• মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩, ১৭ মাঘ ১৪২৯
  • ||

নকল ধরা পড়ায় স্কুলের বারান্দা থেকে ছাত্রীর ঝাপ

প্রকাশ:  ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮:৩২ | আপডেট : ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:০৩
লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি

লক্ষ্মীপুরে হাতে লেখে আনা উত্তর (নকল) দেখে লেখার সময় জান্নাত আক্তার নামে এক ছাত্রী পরীক্ষকের কাছে ধরা পড়েছে। এতে সে লজ্জায় স্কুল ভবনের ৩য় তলার বারান্দা থেকে নিচে ঝাপ দেয়।

রোববার (৪ ডিসেম্বর) দুপুরে লক্ষ্মীপুর পৌর শহরের মজুপুর এলাকার হাজী আমজাদ আলী পাটওয়ারী ওয়াকফ এস্টেট একাডেমিতে এ ঘটনা ঘটে।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় জান্নাতকে উদ্ধার করে তাৎক্ষণিক লক্ষ্মীপুর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। জান্নাত লক্ষ্মীপুর পৌরসভার মজুপুর এলাকার মুরাদ হোসেনের মেয়ে ও ওই বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী।

শিক্ষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সপ্তম শ্রেণির রোববার গণিত পরীক্ষা ছিল। অন্য শিক্ষার্থীদের সঙ্গে জান্নাতও পরীক্ষায় অংশ নেয়। সে ৪ টি অংক হাতে লিখে আনে। এরমধ্যে দুটিই পরীক্ষায় এসেছে। হাতে লেখে আনা অংকগুলো দেখে দেখে খাতায় লিখছিল। পরীক্ষক আরিফ হোসেন দেখে তার থেকে উত্তরপত্র নিয়ে নেয়। পরে আরিফ প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষককে বিষয়টি জানান। পরে পরীক্ষায় বসতে না দেওয়ায় জান্নাত শিক্ষকদের কাছে মিনতি করে। একপর্যায়ে লজ্জায় সে স্কুল ভবনের তৃতীয় তলার বারান্দা থেকে নিচে ঝাপ দেয়।

শিক্ষার্থীর মা শাহিনুর বেগম বলেন, নকল ধরা পড়ায় পরীক্ষা থেকে জান্নাতকে বহিস্কার করা হয়েছে। সেই কারণেই সে বিদ্যালয়ের বারান্দা থেকে ঝাপ দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে।

পরীক্ষক আরিফ হোসেন জানান, নকল ধরা পড়ার পর তাকে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করতে বলা হয়েছে। কিন্তু সে হঠাৎ করে বারান্দা থেকে ঝাপ দেয়। তাৎক্ষণিক তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দেলোয়ার হোসাইন বলেন, নকল ধরা পড়ার বিষয়টি পরীক্ষক আমাকে জানায়। এর কিছুক্ষণ পরই ওই ছাত্রী ঝাপ দেয়। ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোসলেহ উদ্দিন পূর্বপশ্চিমকে বলেন, ঘটনাটি কেউ আমাকে জানায়নি। এ এবিষয়ে খোঁজ-খবর নেওয়া হচ্ছে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএম

লক্ষ্মীপুর
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close