• বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট ২০২২, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯
  • ||

স্বামীর গোপনাঙ্গ কাটলেন স্ত্রী

প্রকাশ:  ০৪ আগস্ট ২০২২, ২১:০৬ | আপডেট : ০৪ আগস্ট ২০২২, ২১:১০
নিজস্ব প্রতিবেদক

পাশবিক নির্যাতন ও মারধোর সইতে না পেরে ঘুমন্ত স্বামীর গোপনাঙ্গ কাটার অভিযোগে সালেহা বেগম নামে এক নারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) ভোরে দেবিদ্বার উপজেলার সুলতানপুর ইউনিয়নের রাধানগর গ্রামের আন্দিরপাড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দেবিদ্বার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কমল কৃষ্ণ ধর।

আহত ব্যক্তির নাম মো. সোহেল মিয়া। সে এলাহাবাদ গ্রামের আলী মিয়ার ছেলে। তিনি সঙ্গী সালেহা বেগম ও চার সন্তানকে নিয়ে রাধানগরের আন্দিরপাড় এলাকায় বসবাস করে আসছিলেন। সে পেশায় একজন শ্রমিক।

পুলিশ জানায়, স্বামী-স্ত্রী উভয়ের মধ্যে বহুদিন ধরে পারিবারিক কলহ চলছিল। এর আগে থানায় একাধিক সালিস হয়েছে। সালিসে মীমাংসা হলেও বাড়িতে গিয়ে পুনরায় ঝগড়া-বিবাদে জড়াত। স্বামীর গোপনাঙ্গ কাটার অভিযোগে স্ত্রী সালেহা বেগমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, ভোরে সোহেল মিয়ার চিৎকার শুনে তার বাড়িতে গিয়ে দেখি পুরো বিছানা ও সোহলে মিয়ার পরহিত লুঙ্গিতে রক্তাক্ত। পাশে উপুর হয়ে বসে আছেন আহত সোহেল মিয়া। পরে জিজ্ঞাসাবাদে সোহেল মিয়া তার গোপনাঙ্গ কাটার কথা জানালে এলাকাবাসী তার সঙ্গী সালেহা বেগম আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। স্থানীয়রা সোহেল মিয়াকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান।

সালেহা বেগম পুলিশকে বলে, তার স্বামী সোহেল মিয়া তাকে পাশবিক নির্যাতন করত। ঘটনার সময় রাতে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে আমাকে নির্যাতন করেছে। তাই আমি বটি-দা দিয়ে পায়ের রানে কোপ দিয়েছি। কিন্তু তারা বলছে গোপনাঙ্গ কেটে গেছে।

এ বিষয়ে দেবিদ্বার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কমল কৃষ্ণ ধর বলেন, আহত সোহেল মিয়া কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তৈয়ব আলী নামে এক ব্যক্তি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগের ভিত্তিতে পেনাল কোডের ৩০৭/ ৩২৬ ধারায় একটি মামলা হয়েছে। (যার নং-০৪) ওই মামলায় স্ত্রী সালেহা বেগমকে গ্রেপ্তার করে কুমিল্লা আদালতে পাঠানো হয়েছে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এআই

দেবিদ্বার,কুমিল্লা
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close