• সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯
  • ||

লামার জুম বাগানে আগুন, প্রধান তিন আসামীকে গ্রেপ্তারের দাবি

প্রকাশ:  ০৮ মে ২০২২, ২০:১২ | আপডেট : ০৮ মে ২০২২, ২০:৪৮
বান্দরবান প্রতিনিধি

বান্দরবানের লামা উপজেলায় লাংকমপাড়া, রেংয়েনপাড়া ও জয়চন্দ্রপাড়ার জুমের বাগান পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় দায়ের করা মামলার প্রধান তিন আসামী হোতা লামা রাবার ইন্ড্রাষ্ট্রিজের পরিচালক মো. কামাল উদ্দিন, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন (৬২) ও জহিরুল ইসলামকে (৬০) গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় এখন পর্যন্ত গ্রেপ্তার করা হয়েছে দুইজনকে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- লামা রাবার ইন্ড্রাষ্ট্রিজের ম্যানেজার মো. আরিফ হোসেন (৪৫) ও লম্বা খোলা গ্রামের বাসিন্দা মৃত ফজর আলীর ছেলে মো. দেলোয়ার হোসেন (৪২)। অথচ আগুন দেওয়ার ঘটনার মূল হোতা ও মামলার প্রধান আসামী এখনো রয়ে গেছেন ধরা ছোঁয়ার বাইরে।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, মামলার একনন্বর আসামী বর্তমানে মো. কামাল উদ্দিন বর্তমানে অবস্থান করছেন চট্টগ্রামের বাসায়। দুই নম্বর আসামী সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন রয়েছেন ঢাকার গুলশানের বাসায়। তিননম্বর আসামী জহিরুল ইসলাম অবস্থান করছেন ঢাকার ধানমন্ডিতে নিজ বাসভবনে। লাংকম পাড়া, জয় চন্দ্র কারবারী পাড়া ও রেংয়েন কারবারী পাড়াবাসীরা তাদের গ্রেপ্তার কারা দাবি জানিয়েছেন।

এর আগে আগুন লাগিয়ে জুম বাগান পোড়ানোর ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত পাড়াকারবারী লাংকম ম্রো (৪৭) বাদী হয়ে লামা রাবার ইন্ড্রাষ্ট্রিজের পরিচালক মো. কামাল উদ্দিনকে (৬০) প্রধান অভিযুক্ত করে মোট ৮ জনের বিরুদ্ধে উপজেলা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট চৌকি আদালতে মামলা করে (মামলা নং ১২৬, তারিখ ২৯ এপ্রিল’২২ইং)। পরে মামলার সূত্র ধরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ক্যয়াজুপাড়া থেকে দুইজনকে গ্রেপ্তার করেন। মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, লামা রাবার কোম্পানির লোকজন লাংকম পাড়া, জয় চন্দ্র কারবারী পাড়া ও রেংয়েন কারবারী পাড়াবাসীর পাহাড়ি জমি দখলে নিতে বিভিন্ন সময় পাড়াবাসির উপর হামলা, মামলা ও আগুন লাগিয়ে ক্ষতি করে আসছে। এসব ঘটনায় প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ, থানায় জিড়ি ও মামলা করা হয়। সর্বশেষ গত ২৬ এপ্রিল বেলা ১১টার দিকে লামা রাবার ইন্ড্রাষ্ট্রিজের পরিচালক মো. কামাল উদ্দিনসহ অপরাপর অভিযুক্তরা সহ অজ্ঞাত আরো ১৫-২০ জন সংঘবদ্ধ হয়ে বাগানে আগুন লাগিয়ে দেন। এতে পাড়াবাসীর সৃজিত ফলদ ও বনজ গাছের বাগান ও ঘরবাড়ির জিনিসপত্র পুড়ে ব্যাপক ক্ষতি হয়।

ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠিদের জুম বাগানে আগুন লাগানোর ঘটনায় মূল হোতাদের গ্রেপ্তার করা প্রসঙ্গে জানতে চাইলে লামা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, লামা রাবার ইন্ড্রাষ্ট্রিজের ম্যানেজারসহ দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

পূর্বপশ্চিম- এনই

বান্দরবান,লামা
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close