• শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯
  • ||

ফেনীর ঈদ বাজারে মানুষের স্রোত

প্রকাশ:  ০১ মে ২০২২, ১৪:২৬
ফেনী প্রতিনিধি

ফেনী শহরের সবচেয়ে ব্যস্ত বড় বাজার। এখানে সন্ধ্যা হলেই মানুষের স্রোত নামে। এ বাজারের সওদাগর পট্টি, দর্জি পট্টি, নিউ মার্কেট, আলম মার্কেট ও আলী আহম্মদ টাওয়ারে দাঁড়ানোর জায়গায় নেই। দিনের বেশিরভাগ সময় শহরের প্রধান সড়ক ট্রাংক রোড, শহীদ শহীদুল্লাহ কায়সার, কলেজ রোড ও মিজান রোডে যানজট দীর্ঘ আকার ধারণ করে। শনিবার শহরে দিনের বেশিরভাগ সময়ের এ দৃশ্য।

শুরুর দিকে কেনাকাটা না জমলেও শেষ মুহূর্তে এসে ঈদ বাজার জমে উঠেছে বাহারি মধ্যরাত পর্যন্ত ক্রেতারা দোকান ঘুরে ঘুরে পছন্দের পোশাকসহ প্রয়োজনীয় জিনিস কিনছেন। শহরের গ্রীন টাওয়ার, গ্র্যান্ড হক টাওয়ার, শহীদ হোসেন উদ্দিন বিপণিবিতানে প্রচুর ভিড় দেখা গেছে।

একইভাবে শহরের শহীদ শহীদুল্লাহ কায়সার সড়কের আড়ং সহ বেশ কয়েকটি শোরুমে ছিল ক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড়। দুপুরের পর থেকেই ক্রেতারা বিপণিবিতানগুলোতে ভিড় জমাতে শুরু করে। তবে ইফতারের পরই মূলত ক্রেতাদের ভিড় বেশি থাকে। রাত যত বাড়তে থাকে, ক্রেতাদের উপস্থিতিও তত বাড়তে থাকে। এ অবস্থায় মধ্যরাতেই ঈদের কেনাকাটা বেশি জমে উঠে। বর্ণিল ও আলোকসজ্জায় সাজানো হয়েছে বিপণিবিতানগুলোকে।

গত কয়েক দিন ধরে গভীর রাত পর্যন্ত এসব বিপণিবিতানে কেনাকাটা চলছে বলে একাধিক বিক্রেতা জানিয়েছে।

ব্যবসায়ীরা জানায়, ঈদের বাজার পুরোপুরি জমে উঠেছে। কেনাকাটা হচ্ছে প্রচুর। ঈদের আগের রাত পর্যন্ত ক্রেতাদের একই রকমের ভিড় থাকবে বলে ব্যবসায়ীরা আশা প্রকাশ করেছেন।

ব্যবসায়ীরা আরও জানায়, দিনের চেয়ে রাতেই ক্রেতারা বেশি আসছে। রমজানের মাঝামাঝি পর্যন্ত কেনাবেচা খুব একটা জমে ওঠেনি। ফলে যেসব ব্যবসায়ী দীর্ঘদিন পর দোকানে নতুন মালামাল তুলেছিলেন, তারা খানিকটা হতাশ হয়ে পড়েছিলেন। তবে গত কয়েকদিনে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড়ের পাশাপাশি বেচাকেনাও বেড়েছে। তাই ব্যবসায়ীদের মুখে হাসিও ফিরেছে।

বরাবরের মতো এবারও মেয়েদের কাছে থ্রি-পিস এবং নারীদের কাছে শাড়ির চাহিদাই শীর্ষে আছে। পুরুষ কিংবা তরুণদের মধ্যে পাঞ্জাবি-পায়জামা, ফতুয়া ও টি-শার্ট-জিনস প্যান্টের চাহিদাই বেশি। এর বাইরে জুতা ও প্রসাধনী সামগ্রী কিনতেও তরুণীরা ভিড় করছেন। পূর্বপশ্চিমবিডি/এএএম/জেএস

ফেনী
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close