• বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯
  • ||

কাঁঠালের গন্ধে মৌ মৌ করছে কুবি

প্রকাশ:  ২৯ এপ্রিল ২০২২, ১২:৫৩
কুবি প্রতিনিধি

বৈশাখ যেমন বাঙালির জীবনে প্রাণের সঞ্চার ঘটায়, তেমনি আবার তপ্ত গ্রীষ্মে সৌন্দর্যের বার্তা নিয়ে হাজির হয়। সবুজ পাতার ফাঁকে উজ্জ্বল লাল রঙের কৃষ্ণচূড়া আর কাঁঠাল ফলের অপূর্ব বাহারি দৃশ্য পথিকের নয়ন জুড়ায়।

প্রকৃতির রূপসজ্জার এ মাসে পরিবেশ ও প্রকৃতি অনিন্দ্য সৌন্দর্য ধারণ করে। কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) ক্যাম্পাসের কাঁঠাল গাছগুলোতে দেখা মেলে থরে থরে কাঁঠালের। স্বাদ আর ঘ্রাণে অনন্য এই ফল আমাদের জাতীয় ফল। বাঙালির কাছে এটি সুস্বাদু ফল।

লাল মাটির ক্যাম্পাস খ্যাত কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়। পাহাড় আর প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি কুবির এই ৫০ একরের ক্যাম্পাস। ফল, ফুলের কমতি নেই এখানে। প্রতিবছর ক্যাম্পাসে দেখা মেলে শতশত কাঁঠালের। কুবি যেন একখণ্ড কাঁঠাল ফলের স্বর্গরাজ্য। প্রতিবছরের ন্যায় এবারেও ক্যাম্পাসে কাঁঠালের রাজত্ব বিরাজ করছে। কুবির কাঁঠাল তলায়, মুক্তমঞ্চ, একাডেমি ভবনগুলোর পাশেসহ আনাচে-কানাচে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে কাঁঠাল গাছ। ঝাঁকে ঝাঁকে ঝুলে রয়েছে অসংখ্য কাঁঠাল। আর এসব কাঁঠালের মন কাড়ানো লোভনীয় মৌ মৌ গন্ধে এখন মুখরিত কুবির প্রতিটি আঙ্গিনা। কাঁঠালের রসনা তৃপ্তির অপূর্ব আনন্দ যেন ছড়িয়ে পড়েছে কুবির প্রতিটি শিক্ষার্থীদের মাঝে। কারণ এ কাঁঠাল সব ধরনের ক্যামিক্যাল মুক্ত। তাই এর স্বাদও অনন্য। বন্ধু-বান্ধব মিলে কাঁঠাল তলায় বসে গল্প কিংবা গানের তালে কাঁঠালের সৌন্দর্য আর উপকারিতা বর্ণনা করেন।

কাঁঠালের সৌন্দর্যে মন কাড়ে ক্যাম্পাসে ঘুরতে আসা দর্শনার্থীদেরও।

গাছের কাঁঠাল পাকতে শুরু করলে ক্যাম্পাসে চলে কাঁঠাল পাড়ার প্রতিযোগিতা। কার চেয়ে কে বেশি কাঁঠাল পাড়বে! বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোতে বিরাজ করে পাকা কাঁঠালের আমেজ। আবার পাকা কাঁঠাল ক্যাম্পাসেই বসেই বন্ধুরা মিলে খেয়ে থাকেন। এছাড়াও ক্যাম্পাসের পাশে বসবাস করা স্থানীয়রাও ক্যাম্পাস এসে কাঁঠাল নিয়ে যায়।

পূর্বপশ্চিম/এমএইচ/এনএন

কুবি,কাঁঠাল
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close