• মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
  • ||

নারায়ণগঞ্জ সিটিতে ভোটগ্রহণে ধীরগতি, ইভিএমে যান্ত্রিক ত্রুটি

প্রকাশ:  ১৬ জানুয়ারি ২০২২, ১৪:৪৬
নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে ইভিএমের মাধ্যেমে ভোটগ্রহণ চলছে। যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে ইভিএমে অনেকের ফিঙ্গারপ্রিন্ট মিলছে না বলে অভিযোগ উঠেছে।

বন্দর গার্লস হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রের একটি বুথের সহকারী প্রিসাইডিং কর্মকর্তা সালাউদ্দিন কাউসার সাংবাদিকদের বলেন, ইভিএম সব ভোটারের জন্য নতুন একটি বিষয়। এ জন্য ভোট দিতে দেরি হচ্ছে। এ বুথে দুই ঘণ্টায় ২২টি পড়ছে।

১৬ নম্বর ওয়ার্ডের শিশুবাগ বিদ্যালয়ের নারী কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা নারায়ণ চন্দ্র মণ্ডল বলেন, বয়স্ক নারীদের আঙুলের ছাপ মেলাতে কিছুটা দেরি হচ্ছে। তবে কেন্দ্রে প্রচুর ভোটার উপস্থিতি রয়েছে। কেন্দ্রে মোট ভোটার দুই হাজার ৬৮ জন। এর মধ্যে এক ঘণ্টায় এক নম্বর বুথে ভোট দিয়েছেন ১২ জন, দুই নম্বর বুথে ১৮ জন, তিন নম্বর বুথে ২১ জন, চার নম্বর বুথে ১৮ জন ও পাঁচ নম্বর বুথে ১৩ জন।

রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহফুজা আক্তার জানিয়েছেন, ‘নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনে ভোট হচ্ছে শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর পরিবেশে; গোলযোগবিহীন এ নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতিও তুলনামুলক ভালো।’

তিনি বলেন, ‘কোথাও বেশি, কোথাও কম ভোট পড়েছে। সকালের দিকে কয়েকটি কেন্দ্রে ধীরগতি দেখা গেছে। কোথাও কোনো মেশিন ডিস্টার্ব করেছে, সাময়িক কিছু সমস্যা ঘটলেও টেকনিক্যাল পার্সনরা দ্রুত সেরে নিচ্ছে। শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রয়েছে, কোনো গোলযোগ নেই। উৎসবমুখর ভোট হচ্ছে।’

নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ বলেন, , ‘সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশে ভোট হচ্ছে। প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে প্রার্থীদের এজেন্ট আছে। নারী ভোটারদের উপস্থিতি বেশি। ভোট গ্রহণ নিয়ে কোন মেয়র বা কাউন্সিলর প্রার্থী লিখিত বা মৌখিক অভিযোগ করেননি।’

নাসিক নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বী সাত জন প্রার্থী হলেন- খেলাফত মজলিসের এবিএম সিরাজুল মামুন (দেওয়াল ঘড়ি), স্বতন্ত্র থেকে তৈমূর আলম খন্দকার (হাতি), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের . মো. মাছুম বিল্লাহ (হাতপাখা), বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের মো. জসীম উদ্দিন (বটগাছ), বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির মো. রাশেদ ফেরদৌস (হাতঘড়ি), স্বতন্ত্র প্রার্থী কামরুল ইসলাম (ঘোড়া) এবং বাংলদেশ আওয়ামী লীগের সেলিনা হায়াৎ আইভী (নৌকা)।

এছাড়া সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১৪৮ জন ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৩৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ সিটির ২৭টি ওয়ার্ডের প্রায় ৫ লাখ ১৭ হাজার ৩৬১ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পেয়েছেন। ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে ১৯২টি ভোটকেন্দ্রে ১ হাজার ৩৩৩টি ভোটকক্ষে। এর মধ্যে ৩০টি ভোটকেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে মাঠ প্রশাসন।

পূর্বপশ্চিম-এনই

নারায়ণগঞ্জ সিটিতে ভোট,নাসিক
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close