• শুক্রবার, ২১ জানুয়ারি ২০২২, ৭ মাঘ ১৪২৮
  • ||

সম্পত্তি আত্মসাতের অভিযোগে ছেলের বিরুদ্ধে মায়ের মামলা

প্রকাশ:  ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭:১০
ফেনী প্রতিনিধি

ফেনীতে অসুস্থ পিতাকে জিম্মি করে জোরপূর্বক সম্পত্তি লিখিয়ে নেয়ার অভিযোগে নিজ সন্তান মোঃ নুরুল আলম (৪৩) বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছেন মা মাজেদা খাতুন।

পিতার ৩১ শতাংশ জায়গা জোরপূর্বক নিজের নামে লিখে নেবার অভিযোগ এনে নুরুল আলম ও তার এক সহযোগীর বিরুদ্ধে ফেনী জেলা জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও আমলী আদালতে মামলা দায়ের করেছেন তিনি।

অন্যদিকে অভিযোগ অস্বীকার করে মো. নুরুল আলম দাবি করেন, পিতা মো. ইয়াহিয়া খান মৃত্যুর পূর্বে স্বেচ্ছায় তাকে জায়গা দান করে গেছেন৷ তার এক শত্রুর প্ররোচনায় মাজেদা এ মামলা করেছেন বলে দাবি করছেন তিনি৷

মাজেদা খাতুন মামলায় উল্লেখ করেন, গত বছর (১৭ জুলাই) আমার অসুস্থ স্বামী মোঃ ইয়াহিয়া খাঁনকে ডাক্তার দেখানোর কথা বলে নুরুল আলম শহরের মাষ্টার পাড়ায় তার শশুর বাড়িতে নিয়ে যায়। পূর্বপরিকল্পিতভাবে নুরুল আলম আমার স্বামীর মালিকীয় দখলীয় নাজিরপুর মৌজার ২৫০ নং খতিয়ান, বিএস ২১২ নং খতিয়ানের সাবেক ৮৯৮ দাগ বি.এস ২০৩৬ দাগের ৩১ ডিসিমেল জায়গা তার নামে হেবা দলিলে সাক্ষর করিয়ে নেয়। নুরুল আলম অসুস্থ বৃদ্ধ বাবাকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে মতিগঞ্জ রেজিষ্ট্রি অফিসে নিয়ে থাম বহিতে সাক্ষর করিয়ে নেয়।

মামলায় মাজেদা দাবি করেন, সন্তানের ভয়ভীতি প্রদর্শন ও নির্যাতনে শারিরীক ও মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে তার স্বামী ইয়াহিয়া ২০২০ সালের (২২ জুলাই) হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। তার অভিযোগ স্বামী ইয়াহিয়াকে শারিরীক ও মানসিকভাবে লাঞ্ছিত করে জোরপূর্বক সম্পত্তি আত্মসাৎ করেছে তার সন্তান। পরবর্তীতে আত্মসাৎকৃত সম্পত্তি ফিরেয়ে দেয়ার কথা বললে নুরুল আলম তার মাকেও লাঞ্ছিত করে। আত্মসাত হয়ে যাওয়া স্বামীর সম্পত্তি ফিরে পেতে মামলা করেছেন বলে জানান তিনি।

মায়ের করা অভিযোগ ও মামলার কোন ভিত্তি নেই বলে দাবি করে নুরুল আলম বলেন আমি আমার বাবার থেকে জোর করে জায়গা কেন নিব৷ আমি আমার বাবার চিকিৎসা সেবা ও ভরণপোষণের দায়িত্ব নেয়ায় বাবা খুশি হয়ে স্বেচ্ছায় আমাকে ওই জায়গা রেজিস্ট্রি করে দিয়েছেন। সেই জায়গা আমি বিক্রিও করে ফেলেছি৷ আমাকে বাবা জায়গা দান করায় আমার ভাই ও মা মেনে নিতে পারেন নি৷

নুরুল আলমের দাবি করে বলেন, মামলা করার মতো অর্থ মায়ের কাছে নেই। আড়াল থেকে আমার আপন খালাতো ভাই আবদুল্লাহ আল মামুন মামলার কলকাঠি নাড়ছে৷ তার কাছে আমি ফ্ল্যাট কেনা বাবদ ২১ লক্ষ টাকা পাবো। টাকা পরিশোধ করলেও ফ্ল্যাট বুঝিয়ে না দেয়ায় মামুনের বিরুদ্ধে মামলা করেছি আমি। সে ক্ষোভ থেকে তাকে মা মাজেদা খাতুনকে দিয়ে মামলা করে হয়রানির চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ তার৷


পূর্বপশ্চিমবিডি/জিএস

সম্পত্তি আত্মসাত,ছেলের বিরুদ্ধে মামলা
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close