• মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৬ আশ্বিন ১৪২৮
  • ||

স্কুলে গিয়ে চাঁদা দাবি, সাংবাদিককে পুলিশে দিলেন শিক্ষকরা

প্রকাশ:  ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:২৫ | আপডেট : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:২৮
ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলার শরীফপুর পূর্ব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কাছে চাঁদা চাওয়ার অভিযোগে মঙ্গলবার এস এম আলী আজম নামের এক সাংবাদিককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও স্থানীয় লোকজন। এ সময় আশিকুর রহমান রনি নামের আরেকজন পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় আশুগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক হাবিবুর রহমান।

আটক আলী আজম উপজেলার তারুয়া গ্রামের হোমিও চিকিৎসক গোলাম মোস্তফার ছেলে এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে প্রকাশিত ‘সাপ্তাহিক সত্যের দিগন্ত’ নামের একটি পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক। তবে বিভিন্ন সময়ে তিনি নিজেকে দৈনিক সমকাল পত্রিকার নাসিরনগর প্রতিনিধি হিসেবে পরিচয় দিতেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

হাবিবুর রহমান জানান, মঙ্গলবার ক্লাস চলাকালীন আলী আজম ও আশিকুর রহমান রনি স্কুলে ঢোকেন। এ সময় তারা নিজেদের সাংবাদিক ও আশুগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে পরিচয় দেন। এক সময় তারা স্কুলের শিক্ষক হাজিরা খাতা, স্কুলের খরচের হিসাব ও অন্যান্য কাগজপত্র দেখতে চান। শিক্ষকরা তা দেখাতে অস্বীকৃতি জানালে আলী আজম ও আশিকুর শিক্ষকদের গালাগাল করেন। পরে তারা স্কুল ও শিক্ষকদের বিভিন্ন অনিয়মের সংবাদ প্রকাশের হুমকি দিয়ে ২০ হাজার টাকা দাবি করেন। শিক্ষকরা চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে আবারও বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। এ সময় স্থানীয় লোকজন জড়ো হলে আশিকুর রহমান রনি পালিয়ে যায়। পরে শিক্ষক ও এলাকাবাসী আলী আজমকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

এদিকে আলী আজমের গ্রেপ্তারের খবরে সমকাল পত্রিকার নাসিরনগর প্রতিনিধি জানান, আলী আজম সমকালের নাসিরনগরের প্রতিনিধি ছিলেন, তবে তাকে প্রায় বছর দুয়েক আগে বরখাস্ত করা হয়।

এ ব্যাপারে আশুগঞ্জ থানার ওসি আজাদ রহমান বলেন, হাবিবুর রহমানের মামলার পরিপ্রেক্ষিতে আলী আজমকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। অপর অভিযুক্ত আশিকুর রহমান রনি পলাতক আছে।

আরো পড়ুন: রাজনীতি নিয়ে ব্যস্ত প্রধান শিক্ষক, যান না স্কুলে

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

ব্রাহ্মণবাড়িয়া,সাংবাদিক,শিক্ষক
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

ঘটনা পরিক্রমা : শিক্ষক

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close