• মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৬ আশ্বিন ১৪২৮
  • ||

চট্টগ্রামে মিলছে না আইসিইউ, করোনায় মৃত্যু আরো ১৭

প্রকাশ:  ২৮ জুলাই ২০২১, ১০:৪১
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

চট্টগ্রামে বেড়েছে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু। এরই মধ্যে হাসপাতালগুলোতে তৈরি হয়েছে সাধারণ শয্যা ও আইসিইউ’র সংকট। রোগীর চাপ বেড়ে যাওয়ায় চিকিৎসা সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন চিকিৎসকরা। এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় ২ হাজার ৭৯২টি নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৯১৫ জন। এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট ৭৮ হাজার ৪৩৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ৫৮ হাজার ৯৬৪ জন চট্টগ্রাম নগরীর। বাকি ১৯ হাজার ৪৭২ জন বিভিন্ন উপজেলার। যা নমুনা পরীক্ষার তুলনায় সংক্রমণের হার ৩২ দশমিক ৭৭ শতাংশ।

এদিন করোনায় আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রামে আরো ১৭ জন মারা গেছেন। এর আগে, গতকাল চট্টগ্রামে করোনায় আক্রান্ত হয়ে সর্বোচ্চ ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। তার আগে গত ২০ জুলাই চট্টগ্রামে করোনায় আক্রান্ত হয়ে একদিনে সর্বোচ্চ ১৫ জন মারা যান। ওই ঘটনার ৭ দিনের মাথায় গতকাল ও আজ দুই দিনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রামে মারা গেল ৩৫জন।

বুধবার (২৮ জুলাই) চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যান। সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্যানুযায়ী, অ্যান্টিজেন টেস্টসহ চট্টগ্রামে ৯টি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা করা হয়। নতুন শনাক্ত হওয়া ৯১৫ জনের মধ্যে ৬১৪ জন মহানগরের বিভিন্ন এলাকায় এবং ২৭৪ জন বিভিন্ন উপজেলায়। ১৪ উপজেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ পাওয়া গেছে রাউজান উপজেলায়, ৪৭ জন। এ ছাড়া বোয়ালখালী উপজেলায় ৪৪ জন, পটিয়া উপজেলায় ৩৮ জন, ফটিকছড়ি উপজেলায় ৩২ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ পাওয়া গেছে।

সিভিল সার্জন কার্যালয়ের প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ২০১টি, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) ল্যাবে ৮৬৮টি এবং চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ১৯৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে চবি ল্যাবে ৮৪জন বিআইটিআইডি ল্যাবে ১৭৬জন এবং সিভাসু ল্যাবে ৮৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া এদিন ৭৯৭টি অ্যান্টিজেন পরীক্ষায় ২৭২ জন করোনা শনাক্ত হয়। এছাড়া আরটিআরএল ল্যাবে ৪৮টি নমুনা পরীক্ষায় ৩০ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

অন্যদিকে বেসরকারি ইমপেরিয়াল হাসপাতালে ২৪৭ টি নমুনা পরীক্ষায় ৯৭ জন, শেভরন হাসপাতাল ল্যাবে ২৫৭টি নমুনা পরীক্ষায় ১০০ জন, চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালে ৫৭টি নমুনা পরীক্ষা করে ২৯ জন এবং মেডিক্যাল সেন্টার হাসপাতালে ৬০টি নমুনা পরীক্ষায় ৩১ জনের করোনা শনাক্ত হয়। এছাড়া কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চট্টগ্রামের ৫৮টি নমুনা পরীক্ষায় আট জনের করোনা শনাক্ত হয়।

সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, সংক্রমণ যে হারে বাড়ছে সামনের দিনগুলোতে আরও কঠিন সময় অপেক্ষা করছে। শহরের চেয়ে গ্রামের মানুষের মধ্যে করোনার প্রকোপ বেশি দেখা যাচ্ছে। এছাড়া সচেতন না হওয়ায় মৃত্যু ঝুঁকিও বেশি। গত কয়েকদিনের তথ্য বিশ্লেষণ করলেই দেখা যায়, শহরের চেয়ে গ্রামে মৃত্যুর সংখ্যা বেশি।

পূর্বপশ্চিমবিডি/আর

চট্টগ্রাম,করোনা
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close