• শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮
  • ||

প্রাথমিক শিক্ষিকা রাবেয়ার বাঁচার আকুতি

প্রকাশ:  ০৫ জুলাই ২০২১, ১৫:৪৫
পটুয়াখালী প্রতিনিধি

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের স্কুল শিক্ষিকা রাবেয়া বেগম বাঁচতে চায়। দু’টি কিডনি নষ্ট হওয়ায় সপ্তাহে দু’বার করে ডায়ালাইসিস’র বিল মেটাতে গিয়ে সহায় সম্বল হারিয়ে এখন নিঃস্ব পরিবারটি। এখন অন্যের বরাদ্দ পাওয়া আবাসনে দিন কাটছে তার।

বর্তমানে পরিবারটি চরম আর্থিক সঙ্কটে পড়ায় দেশের সবার কাছে আর্থিক সহযোগীতা চেয়ে বাঁচার আকুতি জানিয়েছে। রাবেয়ার স্বামী আফসার উদ্দিন একই স্কুলের সহকারী শিক্ষক। মহামারির প্রাদুর্ভাবে দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় এ শিক্ষক দম্পতির আয়ের পথ বন্ধ হয়ে গেছে। টিউশনি করে স্বাচ্ছন্দে চললেও টিউশনিও এখন বন্ধ।

রাবেয়া আক্তারের পিতা মো. রফিকুল ইসলাম জানান, হঠাৎ করে আমার মেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে চিকিৎসার জন্য ঢাকা নিয়ে যাই। পরীক্ষা শেষে জানতে পারি আমার মেয়ের দু’টি কিডনি বিকল হয়ে গেছে।

এদিকে পায়রা বন্দরের ভূমি অধিগ্রহণের ফলে আমার ভিটা মাটি সব নিয়ে গেছে। অধিগ্রহণে পাওয়া প্রায় ২৫ লাখ টাকা মেয়ের চিকিৎসায় ব্যয় করেছি। এখন আমার কাছে আর নগদ কোন অর্থ নেই। এই অবস্থায় মেয়েকে সপ্তাহে দুইবার ডায়ালাইসিস করার মতো টাকা জোগাড় করা আমার পক্ষে অসম্ভব হয়ে পড়েছে। তাই কোন সহৃদয় ব্যক্তি অথবা সরকার যদি আমার অসহায় পরিবারের দিকে সহযোগিতার হাত বাড়ায়, তাহলে আমার মেয়েটা বেঁচে যেতো।

রাবেয়া’র স্বামী আফসার উদ্দিন বলেন, আমাদের ৭ বছর বয়সী একটি কন্যা শিশু রয়েছে। টিউশনি করিয়ে স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে সুখেই ছিলাম। করোনায় স্কুল বন্ধ থাকায় টিউশনি নেই। এছাড়া স্ত্রীর অসুস্থতায় নিজের সহায় সম্বল সব হারিয়ে দিন মজুরের কাজ করে মানুষের কাছে হাত পেতে সংসার চালাতে হয়। তাও কোনোদিন কাজ পাই আবার কোনোদিন পাইনা। ডায়ালাইসিস, ওষুধ কিনতে কষ্ট হয়।

রাবেয়াকে সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা। আফসার উদ্দিন, হিসাব নম্বর- ২০০১১২১০০০২৪৮০৭, শাহ্জালাল ইসলামী ব্যাংক, খেপুপাড়া শাখা, পটুয়াখালী। অথবা বিকাশ নম্বর ০১৭৩৪-৭৭৩৪৯৪।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

পটুয়াখালী
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close