• শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ২০ ফাল্গুন ১৪২৭
  • ||

মেয়র পদে বিএনপির জাহাঙ্গীরের হ্যাটট্রিক

প্রকাশ:  ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ২১:৪৪
দিনাজপুর প্রতিনিধি

দ্বিতীয় দফা পৌরসভা নির্বাচনে দিনাজপুরের ৩টি পৌরসভার মধ্যে বিরামপুর পৌরসভায় আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আক্কাস আলী ও বীরগঞ্জ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মোবাইল ফোন প্রতীকের প্রার্থী মোশারফ হোসেন বাবুল বিজয়ী হয়েছেন। আর দিনাজপুর পৌরসভায় নির্বাচিত হয়ে হ্যাটট্রিক করেছেন বিএনপি’র ধানের শীষের প্রার্থী সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম।

দিনাজপুর জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা ও পৌর নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহিনুর ইসলাম প্রামাণিক এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

দিনাজপুর পৌরসভায় ৪৪ হাজার ৯৩৪ ভোট পেয়ে টানা তিনবারের মত নির্বাচিত হয়ে হ্যাটট্রিক করেছেন বিএনপি’র ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী রাশেদ পারভেজ পেয়েছেন ২৪ হাজার ২৬২ ভোট। এছাড়াও নির্বাচনে জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী আহমেদ শফি রুবেল পেয়েছেন ৩ হাজার ৪৫৪ ভোট, হাতপাখা প্রতীকে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের হাবিবুর রহমান রানা পেয়েছেন ৫৭৩ ভোট ও কাস্তে প্রতীকে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির অ্যাড. মেহেরুল ইসলাম পেয়েছেন ৪৭২ ভোট। এই পৌরসভায় এর আগে দুইবারের মত নির্বাচিত হয়েছিলেন সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম।

দিনাজপুর পৌরসভায় ৪৯টি ভোট কেন্দ্রের ৩৭৩টি ভোট কক্ষে এক লাখ ৩০ হাজার ৮০৩ জন ভোটারের মধ্যে ৭৩ হাজার ৬৯৫ জন তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। মোট ভোট পড়েছে ৫৬ দশমিক ৩৪ শতাংশ। এই পৌরসভায় ব্যালটের মাধ্যমে ভোট গ্রহণ হয়েছে।

বিরামপুর পৌরসভায় বিজয়ী আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আক্কাস আলী পেয়েছেন ১৫ হাজার ৩৫৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নারকেল গাছ প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী অ্যাডভোকেট নুরুজ্জামান সরকার পেয়েছেন ৮ হাজার ৬৮৬ ভোট। এছাড়াও বিএনপি’র ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী হুমায়ন কবির পেয়েছেন এক হাজার ৮৩৬ ভোট আর মোবাইল ফোন প্রতীকের বিএনপি’র বিদ্রোহী প্রার্থী আজাদুল ইসলাম পেয়েছেন এক হাজার ৩৯৫ ভোট। এখানে মোট ৩৬ হাজার ৭৪৮ জন ভোটারের মধ্যে ২৭ হাজার ২৭৬ জন ১৬টি ভোট কেন্দ্রের ১০৫টি কক্ষে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। মোট ভোট পড়েছে ৭৪ দশমিক ২৩ শতাংশ। এই পৌরসভায় ব্যালটের মাধ্যমে ভোট গ্রহণ হয়েছে।

দিনাজপুরের বীরগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র মোবাইল প্রতীকের মোশাররফ হোসেন বাবুল ৩ হাজার ৯৯৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের নুর ইসলাম নুর পেয়েছেন ৩ হাজার ৯৪৬ ভোট। এছাড়াও নির্বাচনে জগ প্রতীকের সাবেক মেয়র (জামায়াত নেতা) মোহাম্মদ হানিফ পেয়েছেন ২ হাজার ৯০০ ভোট, ধানের শীষ প্রতীকের মোকারম হোসেন পেয়েছেন ৯৯৮ ভোট এবং হাতপাখা প্রতীকে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের শাহ আলম পেয়েছেন ২৬৬ ভোট।

বীরগঞ্জ পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ১৫ হাজার ৫৪৫জন। পৌরসভার ৯টি ভোট কেন্দ্রের ৪৯টি কক্ষে ১২ হাজার ৯৩ জন তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। বীরগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে ৭৭ দশমিক ৭৯ শতাংশ ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। এই পৌরসভায় ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ হয়েছে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

দিনাজপুর
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
cdbl

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close