• সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০২২, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯
  • ||

প্রেমের টানে প্রেমিকের বাড়িতে মেয়ে, বাবা দিলেন অপহরণ মামলা

প্রকাশ:  ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ১৬:২১
ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি

প্রেমের টানে প্রেমিকের বাড়িতে চলে এসেছেন মেয়ে। এতে বেজায় চটে মেয়ের বাবা করলেন ছেলের বিরুদ্ধে অপহরণের মামলা। আর এতে হয়রানির শিকার হচ্ছেন ছেলেটিসহ তার পরিবারের সদস্যরা। ঘটনাটি ঘটেছে ঢাকার ধামরাইয়ের বালিয়া ইউনিয়নের পাবরাইল গ্রামে।

জানা গেছে, ধামরাইয়ের পাবরাইল গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে শহিদুল ইসলামের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে একই গ্রামের আলাউদ্দিনের মেয়ে রত্না আক্তার। প্রায় তিন বছর প্রেমের সম্পর্কের পর সম্প্রতি প্রেমিকের বাড়িতে বিয়ের দাবি নিয়ে উঠেন প্রেমিকা। এতে ক্ষুব্ধ হন মেয়ের বাবা।

এ ঘটনায় প্রেমিক শহিদুল ইসলাম, তার বড় ভাই শরিফুল ইসলাম ও তার স্ত্রীসহ ৪ জনকে আসামি করে ধামরাই থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন। কিন্তু শনিবার সকালে অভিযুক্ত শহিদুলের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় রত্না আক্তার সেখানে নিজ ইচ্ছাতেই অবস্থান করছেন।

এসময় বিয়ের দাবিতে অবস্থান করা প্রেমিকা রত্না আক্তার সাংবাদিকদের জানান, ভালবেসে মনের মানুষকে বিয়ে করতেই আমি এ বাড়িতে নিজেই চলে এসেছি। এখন আমার বাবা না বুঝেই আমার হবু স্বামীসহ তার বড় ভাই ভাবীর নামে মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে। আর এ মামলা করতে সহযোগিতা করেছেন আমার বড় চাচা সাহাবুদ্দিন ও চাচাতো ভাই জাহাঙ্গীর আলম। তিনি এ মিথ্যা মামলার করায় বাবার বিরুদ্ধে আলাদতে সাক্ষী দিবেন বলে জানান।

এঘটনায় প্রেমিক শহিদুল ইসলাম পলাতক রয়েছে। তবে তার বড় ভাই শরিফুল ইসলাম জানান, বিয়ের দাবি নিয়ে আমার বাড়িতে উঠেছে রত্না। আমরা তাকে বাড়িতে ফিরে যেতে অনুরোধ করছি। কিন্তু সে যাচ্ছে না। অথচ মেয়ের বাবা আমাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন। এতে আমরা চরম হয়রানি শিকার হচ্ছি।

পূর্বপশ্চিমবিডি/ এনএন

অপহরণ মামলা,প্রেমের টানে,ধামরাই
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close