• বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭
  • ||

সাড়ে তিন বছরেও কমলগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয়নি

প্রকাশ:  ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪:১০
কমলগঞ্জ প্রতিনিধি
যুবলীগ

সাড়ে তিন বছরেও মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয়নি। তিন মাসের আহবায়ক কমিটি দিয়েই চলছে সাংগঠনিক কার্যক্রম। পূর্ণাঙ্গ কমিটি না হওয়ায় উপজেলা ও ওয়ার্ড কমিটিগুলোতে সাংগঠনিক কাজে অনেকটা স্থবিরতা বিরাজ করলেও নেতারা তা মানতে নারাজ। বরং তাদের দাবি আওয়ামী লীগের অন্যান্য অঙ্গ সংগঠনের চেয়ে অনেকটা চাঙ্গা উপজেলা যুবলীগ।

এদিকে দীর্ঘদিন ধরে পূর্ণাঙ্গ কমিটি না হওয়ায় জেলা যুবলীগের নেতৃত্বে আসতে পারছেন না নবীনরা। বঞ্চিতরা বলছেন, এতে যেমন সংগঠনের এই শাখা গতি হারিয়ে ফেলছে, তেমনি দীর্ঘদিন ধরে সম্মেলন না হওয়ায় নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়ছেন অনেক নেতাকর্মী। উপজেলার পূর্ণাঙ্গ কমিটি না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয় নেতাকর্মীরা।

আওয়ামী লীগের অন্যতম অঙ্গ সংগঠন আওয়ামী যুবলীগ। দেশের বিভিন্ন জেলায় ও উপজেলায় আওয়ামী যুবলীগের বেশিরভাগ ইউনিটগুলোর পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয়ে গেলেও থমকে রয়েছে কমলগঞ্জ উপজেলার যুবলীগের কমিটি। ২০১৭ সালের ২৯ মার্চ ৩ মাসের জন্য আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হলেও মূল কমিটি গঠন করা হয়নি গত তিন বছরেও।

জানা যায়, ২০১৭ সালের ২৯ মার্চ কমলঞ্জের পৌর মেয়র জুয়েল আহমেদকে আহবায়ক করে ২১ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটির অনুমোদেন দেন যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও সম্পাদক। আহবায়ক কমিটির দায়িত্ব ছিলো সাংগঠনিক কাজ করার পাশাপশি উপজেলার ইউনিয়ন ও ওর্য়াড কমিটি গঠন করা।

কমলগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের একাধিক নেতা নাম প্রকাশ না করা শর্তে বলেন, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটি ঘোষণার প্রায় সাড়ে তিন বছর অতিবাহিত হলেও এখন র্পযন্ত পূর্ণাঙ্গ কমিটি উপহার দিতে পারেনি আহবায়ক কমিটি। প্রায় সাড়ে ৩ বছর কমলগঞ্জ উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার মধ্যে যুবলীগের চারটি ইউনিয়ন কমিটি গঠন করা হলেও অন্যান্য ইউনিয়ন ও ওর্য়াড কমিটি গঠন করতে পারেনি আহবায়ক কমিটি। সময় যতই গড়াচ্ছে সংগঠনটির দায়িত্বশীল নেতাদের মাঝে দূরত্ব তত বাড়ছে। ভেঙে পড়েছে চেইন অব র্কমান্ড। কমেছে সাংগঠনিক কার্যক্রমও। এছাড়াও এই আহবায়ক কমিটির মধ্যে বিএনপি ও স্বাধীনতা বিরোধী পরিবারে সদস্যের নাম রয়েছে বলে জানান তারা। বিষয়টি নিয়ে উপজেলা যুবলীগের সাধারণ কর্মীদের মাঝেও হতাশা সৃষ্টি হয়েছে।

এ বিষয়ে কমলগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক জয়নাল আবেদীন করে বলেন, সম্মেলনের তারিখ হওয়ার পর ৫ দিন আগে যে কমিটি সাবেক চেয়ারম্যান ওমর ফারুক টাকার বিনিময়ে দিয়েছেন সে কমিটির ফুটানি মার্কা কথা শুনলে হাসি লাগে, দুর্নীতিবাজ ওমর ফারুক এখন বুঝছেন রাজনীতি কারে কয়। অবৈধ্যভাবে আনা কমিটির জন্য যারা সহযোগীতা করছেন তারাও কিছু বুঝেছেন আরো বুঝবেন ইনশাল্লাহ।

পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনে বিলম্ব প্রসঙ্গে যুবলীগের আহবায়ক জুয়েল আহমদ বলেন, বিভিন্ন র্নিবাচনের জন্য আমাদের সম্মলেন করতে বিলম্ব হয়েছে।

তিনি বলেন, আহবায়ক কমিটিটি সাড়ে তিন বছর হয়েছে তা ঠিক নয় কমিটির আড়াই বছর অতিবাহিত হয়েছে। এবং এ পর্যন্ত আমরা চারটি ইউনিয়ন কমিটি করেছি। আর বর্তমান করোনাকালীন সময়ে জেলা ও কেন্দ্রীয় কমিটির নির্দেশনা কমে সম্মেলন করা বন্ধ রয়েছে। যা চাইলে যুবলীগের ওয়েবসাইটে আপনি দেখতে পারেন।

কমিটি না হলেও সংগঠনের কর্মকান্ড থেমে নেই। বরং অন্যান্য অঙ্গ সংগঠনগুলোর চেয়ে কমলগঞ্জ উপজেলা যুবলীগ সাংগঠনিকভাবে অনেক শক্তিশালী এবং সক্রিয় বলেও জানান তিনি।


পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএম

যুবলীগ,কমলগঞ্জ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
cdbl

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close