• শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ২ মাঘ ১৪২৭
  • ||

মোংলা বন্দরে আমদানি নিষিদ্ধ ৪ কন্টেইনার পোস্তদানা জব্দ

প্রকাশ:  ১৩ আগস্ট ২০২০, ১৭:৪৩
মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি
মোংলা বন্দরে আমদানি নিষিদ্ধ পোস্তদানা জব্দ

বাগেরহাটের মোংলা বন্দরে আনা আমদানি নিষিদ্ধ ৪ কন্টেইনার পোস্তদানা জব্দ করেছে মোংলা কাস্টমস হাউস। বৃহস্পতিবার (১৩ আগষ্ট) দুপুরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ মোংলা বন্দর থেকে আমদানিকারক প্রতিনিধিদের সামনে এ অবৈধ পণ্য জব্দ করা হয়। ২ নম্বর কন্টেইনার ইয়ার্ডে থাকা সিএন্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশন প্রতিনিধি, শিপিং এজেন্ট প্রতিনিধি, বাগেরহাট চেম্বার অব কমার্সের প্রতিনিধি এবং মোংলা বন্দরের প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে কন্টেইনারগুলো খোলা হয়।

চারটি কন্টেইনারগুলোতে যে পণ্য ছিলো সেগুলোর সবই ঘোষণা বর্হিভূত ছিলো। ২০ ফুট দৈর্ঘ্যের এই ৪টি কন্টেইনারে ফুটবল, টেনিস বল ও স্নো-স্প্রে আনার ঘোষণা ছিল আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের। আমদানিকারকরা ঘোষণা অনুযায়ী প্রতিটি কন্টেইনারে পণ্যের ওজন দেয়া ছিল ৫ টন। তবে সেখানে পোস্তদানা আনায় প্রতিটি কন্টেইনারে ১৭ থেকে ২০ মেট্রিক টন ওজন দাঁড়িয়েছে। ওজনে গড়মিল হলে কন্টেইনারগুলো খোলা করা হয়। খোলা মাত্র বেরিয়ে আসে ঘোষণা বর্হিভুত নিষিদ্ধ আমদানি পণ্য পোস্তদানা। কন্টেইনারে আনা প্রতিটি বস্তায় ২৫ কেজি করে পোস্তদানা রয়েছে। উদ্ধার হওয়া এসব পণ্যের বাজারদর পরবর্তীতে কাস্টমস কর্তৃপক্ষের জানানোর কথা রয়েছে।

এদিকে, মোংলা কাস্টমস হাউসের যুগ্ম কমিশনার মো. সামসুল আরেফিন খান পূর্বপশ্চিমকে বলেন, কাস্টমস কর্তৃপক্ষের কাছে গোপন সংবাদ ছিল যে, কিছু দুষ্কৃতিকারী রাতের আধারে কন্টেইনারের সিল ভেঙ্গে অন্যান্য মালামালের সাথে এ অবৈধ পণ্য পাচার করবে। যার জন্য জাহাজ থেকে কন্টেইনার নামার পর সেখানে কাস্টমসের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়। তাতে বন্দর কর্তৃপক্ষও যথেষ্ট সহায়তা করেন। পরবর্তীতে সকলের উপস্থিতিতে পণ্যগুলো পরীক্ষণের জন্য বৃহস্পতিবার দুপুরে খোলা হয়। সেখানে ফুটবল, টেনিস বল ও স্নো-স্প্রের বদলে পাওয়া যায় আমদানি নিষিদ্ধ পোস্তদানা। মিথ্যা ঘোষণা দিয়ে ঢাকার সোয়ারী ঘাট এলাকার মেসার্স তাজ ট্রেডার্স ও চক বাজারের আয়েশা ট্রেডার্স এ পণ্য আমদানি করেছে।

তিনি আরও বলেন, কন্টেইনার খোলার সময় নির্ধারণ করে তাদেরকে পত্র দেয়ার পাশাপাশি টেলিফোনে উপস্থিত থাকার জন্য বলা হলেও তারা উপস্থিত হননি। এ পণ্য নিয়ে এখন পরীক্ষণ চলছে। পরীক্ষণের ফলাফল জানা গেলে কাস্টমস আইনে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। এক্ষেত্রে পণ্যগুলো বাজেয়াপ্তসহ জড়িতদের আইনের আওতায় এনে আইনশৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীর হাতে সোপর্দ করা হতে পারে বলেও জানান তিনি।

পূর্বপশ্চিম/এমএস/এসএস

বাগেরহাট,মোংলা,জব্দ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
cdbl

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close