• বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭
  • ||

ঘর ভেঙ্গে মালামাল লুট, খোলা আকাশের নিচে সপরিবারে ৮০ বছরের বৃদ্ধ

প্রকাশ:  ১৫ জুলাই ২০২০, ০০:২৯
লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি

লক্ষ্মীপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে হামলা চালিয়ে মমিন উল্যা নামে এক ৮০ বছর বয়সী বৃদ্ধের বসতঘর গুঁড়িয়ে দিয়েছে প্রতিপক্ষের লোকজন। এতে স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে বৃদ্ধকে খোলা আকাশের নিচে রাতযাপন করতে হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল একাধিকবার পরিদর্শন করলেও মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) দুপুর পর্যন্ত এ ঘটনায় কাউকে আটক করতে পারেনি।

জানা গেছে, সোমবার (১৩ জুলাই) দুপুরে সদর উপজেলা বাঙ্গাখাঁ ইউনিয়নের অলীপুর গ্রামের বক্স আলী হাওলাদার বাড়ির বাসিন্দা মমিন উল্যার ঘর ভেঙে দেওয়া হয়। একপর্যায়ে ঘরটি মাটিতে গুড়িয়ে দেয়। একই বাড়ির হোসেন আহম্মদ ও তার ছেলেরা ঘটনাটি ঘটিয়েছে। রাতে ঘর মাটিতে ঘুড়িয়ে দেওয়া হয়। মঙ্গলবার সকালে তারা আসবাবপত্র, ঘরের টিনসহ সব মালামাল লুটে নেয় তারা। ঘর ছাড়া এমন পরিস্থিতিতে বিয়ের উপযুক্ত মেয়েকে নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে বৃদ্ধের পরিবার ।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার সূত্র জানায়, পূর্বপুরুষের ভিটায় স্ত্রী, দুই মেয়ে ও এক ছেলেকে নিয়ে মমিন উল্যা বসবাস করে আসছেন। তার ঘরের পাশে অভিযুক্ত হোসেন আহম্মদ জমি কিনে বসবাস করছে। কিন্তু মমিনের জমিটি নিজেদের দাবি করে হোসেন ও তার ছেলেরা তাকে (মমিন) উচ্ছেদের পাঁয়তারা করছে। এনিয়ে স্থানীয়ভাবে একাধিকবার সালিসি বৈঠক হলেও হোসেন কোন কিছুর তোয়াক্কা করছে না। এদিকে জমিটি দখলের জন্য হোসেন বিভিন্নভাবে মমিন ও তার পরিবারের ওপর নির্যাতন শুরু করে। সোমবার মমিন তার জমিতে সীমানা প্রাচীর নির্মাণের জন্য ইট নিয়ে আসেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে হোসেনের ছেলে কামরুল ইসলাম ইটবাহী ট্রাকে হামলা করে। একপর্যায়ে হোসেনের পরিবারের ৬-৭জন সদস্য হামলা চালিয়ে মমিনের ঘরটি ভাঙচুর করে। পরে ঘরটি তারা পুরোপুরি মাটিতে গুঁড়িয়ে দেয়। এতে বাঁধা দিতে গেলে হামলা ও লাঞ্চনার শিকার হয় মমিনের মাদ্রাসা পড়ুয়া মেয়ে।

ভূক্তভোগী মমিন উল্যার স্ত্রী কোহিনুর বেগম জানান, তার স্বামী দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ। কোন কাজকর্ম করতে পারছে না। তারা মানবেতর জীবনযাপর করছেন। হোসেনরা তাদেরকে বসতভিটা থেকে উচ্ছেদের চেষ্টা করছে। কিন্তু না পেরে তাদের ঘরটি ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এতে বিয়ের উপযুক্ত মেয়েকে নিয়ে খোলা আকাশের নিচে রাত কাটাতে হয়েছে। হামলা চালিয়ে ঘরে থাকা টাকা ও স্বর্ণালংকার ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ করেছেন তিনি।

বৃদ্ধ মমিন উল্যা জানান, হোসেন তাকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছে ভিটেমাটি ছেড়ে চলে যাওয়ার জন্য। কিন্তু এখান থেকে গেলেই জমিটি বেদখল হয়ে যাবে। জীবনের ঝুঁকি থাকা সত্ত্বেও নিজের ভিটাতেই খোলা আকাশের নিচে সন্তানদের নিয়ে বসে থাকবেন। স্থানীয় তিনজন গ্রামপুলিশ (চৌকিদার) পাহারা দিতে আসলে হোসেনের ছেলেরা তাদেরও মারধর করে। হামলার ঘটনার পর থেকে ছেলে মেয়েকে নিয়ে না খেয়ে আছেন বলে জানিয়েছেন বৃদ্ধ।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত হোসেন আহম্মদের পরিবারের সদস্যরা আত্মগোপনে থাকায় কারো বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মোরশেদ বলেন, খবর পেয়ে ঘটাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে । ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারকে থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

পূর্বপশ্চিম-এন/ ই

লক্ষ্মীপুর,মালামাল লুট
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close