• শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০, ২০ আষাঢ় ১৪২৭
  • ||

বাড়ি ফিরলেন মণিরামপুরে করোনামুক্ত স্বাস্থ্যকর্মী রবিউল

প্রকাশ:  ১১ মে ২০২০, ২২:২৮
মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি

অবশেষে দীর্ঘ একমাস পর যশোর জেলায় প্রথম করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত মণিরামপুরের সেই স্বাস্থ্যকর্মী রবিউল ইসলাম সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। সোমবার (১ মে) মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা নিয়ে মশ্মিমনগরের হাজরাকাঠি গ্রামের বাড়িতে ফিরেছেন তিনি। এর আগে সোমবার দুপুরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জীবাণুবিজ্ঞান বিভাগের চিকিৎসক এসএম মাসুদুর রহমান স্বাক্ষরিত রবিউলের করোনা নেগেটিভ ফলাফলটি মণিরামপুর হাসপাতালে পৌঁছায়।

এরপর বিকেলে যশোরের সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন, মণিরামপুর হাসপাতালের ইউএইচও ডা. শুভ্ররানী দেবনাথ, আরএমও ডা. অনুপবসু এবং মণিরামপুর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়ে রবিউলকে বিদায় জানান।

হাসপাতাল থেকে ফিরে মোবাইলে রবিউল তার প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। তিনি বলেন, সর্বপ্রথম আল্লাহর দরবারে শুকরিয়া আদায় করছি। এরপর কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি যশোরের সিভিল সার্জন স্যার, মণিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, হাসপাতালের ইউএইচও ও চিকিৎসকদেরপ্রতি। তারা সবসময় আমার খোঁজ নিয়েছেন। বিশেষ করে ইউএনও আহসান উল্লাহ শরিফী স্যার প্রায়ই ফোন করে আমার খবর নিয়েছেন। আজও (সোমবার) তিনি আমাকে ফোন দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। আমি ইউএনও স্যারের প্রতি কৃতজ্ঞ।

রবিউল ইসলাম বলেন, করোনা আক্রান্ত হওয়ারপর নাপা, এন্টিবায়োটিক (এজিথ্রোমাইসিন ও রিকনিল-২০০), সিভিট, জিংক ও গ্যাসের বড়ি দিয়ে আমার চিকিৎসা চলেছে। এতেই আল্লাহপাকের ইচ্ছায় আমি সুস্থ হয়েছি। দীর্ঘ একমাস একাকিত্ব সময়ে নামাজ পড়ে, কোরআন তেলওয়াত করে ও মোবাইল নিয়ে সময় কেটেছে। একাকিত্বটাই ছিল বড় কষ্টের। মানসিকভাবে প্রেসারে থাকলেও শারীরিকভাবে আমি সুস্থ ছিলাম।

গত ৮ এপ্রিল জ্বর ও সমস্থ শরীরের ব্যথা নিয়ে মণিরামপুর হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসেন রবিউল। তখন ডা. অনুপ বসু তাকে করোনা পরীক্ষা করানোর পরামর্শ দিলে ওই দিনই নমুনা সংগ্রহ করা হয় তার। এরপর ১২ এপ্রিল খুলনা মেডিকেলের ল্যাবের রিপোর্টে রবিউলের করোনা পজেটিভ রিপোর্ট আসে। এরপর পাঁচবার রবিউলের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। তারমধ্যে প্রথম তিনটি পজেটিভ আসলেও পরের দুইটির ফলাফল নেগেটিভ আসে। একমাস ধরে তিনি কেশবপুরের ইমাননগরে শ্বশুর বাড়িতে ও মণিরামপুর হাসপাতালের আইসোলেশনে ভর্তি থেকে চিকিৎসা নিয়েছেন।

এদিকে মণিরামপুর হাসপাতালের করোনা পজেটিভ এক সেকমো, এক মেডিকেল টেকনোলজিস্ট (ইপিআই), অপর এক স্বাস্থ্যকর্মী ও এক অফিস সহকারী আইসোলেশনে রয়েছেন। আইসোলেশনে থাকা অবস্থায় আরও দুইবার তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। কিন্তু সেগুলোর ফলাফল এখনো আনুষ্ঠানিক জানা যায়নি। তবে আক্রান্ত চারজনই সুস্থ রয়েছেন বলে জানাগেছে।

মণিরামপুর হাসপাতালের আরএমও ডা. অনুপ বসু বলেন, রবিউল সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। তাকে স্বাভাবিক ভিটামিনযুক্ত খাবার খেতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। বিশ্রামে থাকার একসপ্তাহ পর তাকে কাজে যোগ দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। এছাড়া হাসপাতালের আক্রান্ত অপর চার স্টাফ এখন সুস্থ আছেন।

পূর্বপশ্চিমবিডি/জিএম

যশোর,মণিরামপুর,করোনামুক্ত স্বাস্থ্যকর্মী
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close