• বৃহস্পতিবার, ০৪ জুন ২০২০, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
  • ||

‘ঘরে শান্তি লাগে না’ র‌্যাব কমান্ডারের ভিডিও টক অব দ্যা কান্ট্রি

প্রকাশ:  ০৯ এপ্রিল ২০২০, ১৬:০৩
সিলেট প্রতিনিধি

কাগজপত্রবিহীন চোরাই মোটরসাইকেল চড়ে ঘুরতে বের হয়েছিলেন তিন বন্ধু। করোনা পরিস্থিতির মধ্যে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার সরকারি নির্দেশনার প্রতি তাদের কোন গুরুত্বই নেই। গাড়িতে নম্বরপ্লেট নেই, যাত্রীদের মাথায় নেই হ্যালমেট। ঘটনাস্থল মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল পৌর শহরের কালিঘাট রোড এলাকা।

ওই এলাকায় দায়িত্বরত ছিলেন র‍্যাব-৯ শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের কমান্ডার এএসপি মো. আনোয়ার হোসেন শামীম। আইনভঙ্গ করতে দেখে তিনি মোটরসাইকেলটিকে থামানোর জন্য সঙ্কেত দেন। চালক সঙ্কেত অমান্য করে দ্রুত পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। হাল ছাড়েন না র‍্যাব কর্মকর্তা। অবশেষে ৪/৫ কিলোমিটার ধাওয়া করে চালকসহ মোটরসাইকেলটি আটক করেন। অপর দুইজন মোটরসাইকেল থেকে নেমে দ্রুত পালিয়ে যায়। আটকের পর বাইরে আসার কারণ জানতে চাইলে আটককৃত যুবক অদ্ভুত উত্তর দিতে থাকে। ঘরে শান্তি লাগে না এবং ভাল লাগে না বলে দাবি করে সে।

পরবর্তীতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজের আইডি ‘Md. Anwar Hossan’ এবং ফেসবুক পেজ ‘Shamim Anwar’-এ এই বিষয়ে একটি ভিডিও পোস্ট করেন এএসপি আনোয়ার হোসেন শামীম।

যেখানে দেখা যায়, দুপুরের রোদের মধ্যে রাস্তায় ঘুরেঘুরে বিভিন্ন বয়সী কিশোর- তরুণদেরকে বুঝিয়ে ঘরে ফেরত পাঠাচ্ছেন তিনি। মুহূর্তেই ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে বিভিন্ন গ্রুপ পেজে ছড়িয়ে পড়ে। এএসপি আনোয়ার হোসেন শামীম ও তার পোস্টকৃত ভিডিওটি হয়ে উঠে টক অব দ্যা কান্ট্রি।

সবশেষ দেখা যায়, শুধুমাত্র তার ফেসবুক পেজ ‘Shamim Anwar’ থেকেই মোট ১ কোটির উর্ধ্বে মানুষ ভিডিওটি দেখেছেন। ভিডিওর পোস্টটিতে লাইক পড়েছে ৬ লক্ষ ৯৪ হাজার, মন্তব্য করেছেন ৩৫ হাজার মানুষ। পাশাপাশি ভিডিওটি নিজ টাইমলাইনে শেয়ার করেছেন ১ লক্ষ ৫৯ হাজার ফেসবুক ব্যবহারকারী। এ ছাড়াও ভিডিওটির ‘শান্তি লাগে না’ শীর্ষক খণ্ডাংশ নিয়ে ট্রলে মেতে উঠেন নেটিজেনরা।

এ প্রসঙ্গে পোস্টদাতা র‍্যাব-৯ শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের কমান্ডার এএসপি আনোয়ার হোসেন শামীম বলেন, আসলে সেদিন দুপুরে আমি এবং আমার ক্যাম্পের সদস্যরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী লোকজনের অপ্রয়োজনে বাইরে অবস্থান ঠেকাতে কাজ করছিলাম। তারই এক পর্যায়ে ভিডিওটি ধারণ করা হয়।

তিনি আরও বলেন, আমি আসলে প্রশংসা পাওয়া বা প্রচার পাওয়ার জন্য ভিডিওটি পোস্ট করিনি। সবাইকে ঘরে থাকতে উদ্বুদ্ধ করা, সচেতন করাই ছিল আমার লক্ষ্য। আমি সবাইকে একটু কষ্ট স্বীকার করে যার যার ঘরে অবস্থান করার অনুরোধ জানাচ্ছি।

এএসপি আনোয়ার ৩৪ তম বিসিএস (পুলিশ) ক্যাডারে চাকরিতে যোগ দেন। ২০১৮ সালের মার্চ মাস থেকে তিনি র‍্যাব-৯-এ কর্মরত রয়েছেন। তার গ্রামের বাড়ি খাগড়াছড়ি জেলার উত্তর বড়বিলে।


পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএম

সিলেট,র‌্যাব,করোনাভাইরাস
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close