• সোমবার, ০১ জুন ২০২০, ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
  • ||

কলেজছাত্রী তোহার মৃত্যু, রানা খলিফায় নিরব পুলিশ

প্রকাশ:  ০৬ এপ্রিল ২০২০, ১১:৪২
মহিউদ্দিন মিশু, ব্রাহ্মণবাড়িয়া

মেধাবী কলেজছাত্রী তানজিনা আক্তার তোহার মৃত্যু রহস্য এখনও বের হয়নি। আতঙ্কে মুখ খুলছেনা তোহার পরিবার। পুলিশ জানিয়েছে, তোহার মৃত্যুর কারণ খুঁজে বের করার চেষ্টা করছেন তারা। এরইমধ্যে তোহার ভাই ও এক বান্ধবীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তবে বার বার ঘুরে আসা রানা খলিফার ব্যাপারে রহস্যজনকভাবে নিরব পুলিশ। এ নিয়ে জনমনে প্রশ্নের সৃষ্টি করেছে।

বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) দিবাগত রাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া পৌরশহরের দেবগ্রাম উত্তরপাড়ার ষ্টিলব্রীজ এলাকায় রহস্যজনক মৃত্যুর শিকার হয় কলেজছাত্রী তোহা। পরদিন শুক্রবার সকালে পুলিশ তার শয়ন কক্ষ থেকে লাশ উদ্ধার করে। সে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকা মহিলা কলেজে একাদশ শ্রেণীর (দ্বিতীয় বর্ষে) পড়াশুনা করতো বলে জানিয়েছে তার পরিবার। এঘটনা ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করে আখাউড়াজুড়ে। কলেজছাত্রী তোহার মৃত্যুর রহস্য উদঘাটনে উদগ্রীব হয়ে আছেন এলাকাবাসী।

অভিযোগ উঠেছে, স্থানীয় প্রভাবশালী জনপ্রতিনিধি ও প্রতাবশালী পরিবারের সন্তান রানা খলিফার সাথে সম্পর্কের জেরে তোহার মৃত্যু -এমন আলোচনা এখন আখাউড়াজুড়ে। রানার সাথে তোহার সম্পর্ক ছিলো বলে জানিয়েছে তোহার পরিবার। তোহার মৃত্যুর খবর পেয়ে ওইরাতেই রানা খলিফা তার বাড়িতেও ছুটে গিয়েছিলো।

নিহত তোহার ছোট ভাই জুবায়ের আলম নওশাাদ পূর্বপশ্চিমকে জানান, রাত তখন ৩টা। আমার বোন তোহার মৃত্যুর পর বাসায় থাকা আপুর বান্ধবী পুনম আমার মায়ের কথা মতো রানা ভাইকে ফোন করেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই রানা আমাদের বাসায় আসে। এসময় রানা ভাই আপুকে মৃত অবস্থায় দেখে বলে ও মরলো কেন? এ কথা বলে সে ঘরের দেয়ালের সঙ্গে তার মাথায় আঘাত করতে থাকে। তার বুক চাপরাতে থাকে। রানা ভাই তখন পাগলের মতো আচরণ করতে থাকে। রানা খলিফা পৌরশহরের রাধানগর গ্রামের বাসিন্দা দানিস খলিফার ছেলে।

তবে চলতি বছরের ২৭ জানুয়ারী রানা খলিফা তার বন্ধুদের নিয়ে তোহাকে বাড়ি থেকে তুলে এনে মারধরের বিরুদ্ধে নালিশ দিতে থানায় গিয়েছিলো তোহা ও তার মা জোৎস্না বেগম। সেসময় থানায় সাংবাদিকের কাছেও রানা খলিফার নির্যাতনের বর্ণনা দেন তোহা। রানার পরিবারের কাছে একাধিকবার নালিশ দেয়ার কথাও জানিয়েছিলেন তোহা। শেষবার নালিশ নিয়ে যাওয়ার পর রানার বড় ভাই হাসান খলিফা তোহার পিঠের চামড়া তুলে নেয়ার হুমকি দিয়েছিলো বলে তোহা জানিয়েছিলো। ওইদিন থানায় গিয়ে আখাউড়া উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ও রানা খলিফার চাচাত বোনের জামাই শাহাবুদ্দিন বেগ শাপলু অভিযোগ দেয়া থেকে বিরত করেন তোহার পরিবারকে।

ফলে রানার সাথে তোহার সম্পর্কটা আসলে কি ছিলো তা পরিস্কার নয়। রানা তাকে উত্যক্ত করতো নাকি নিজে বিবাহিত হওয়ার পরও তোহার সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক চালিয়ে যাচ্ছিলো তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

জানা যায়, তোহাকে বিয়ে করতেও রাজী হচ্ছিলোনা রানা। তবে রানা তোহাকে বউ পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন জায়গাতে ঘুরতো বলেও এলাকার লোকমুখে শোনা গেছে। থানায় গিয়েছিলো সে অত্যাচারের বিচার নিয়ে। আর এখন তোহা মারাই গেল। তোহার মা জ্যোৎস্না বেগম এক প্রশ্নে বলেন, রানা কেন, তার মেয়ে যাদের সাথে চলেছে সবার সাথে বন্ধুর মতোই চলেছে। এর আগে রানা তার মেয়েকে বন্ধু হিসেবেই মেরেছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় এক জনপ্রতিনিধি বলেন, সত্য মিথ্যা জানি না। মৃত্যুর খবর পেয়ে সেখানে যাওয়ার পর মহিলাদের বলাবলি করতে শুনি নষ্ট করার পরও সে কেন তাকে বিয়ে করছে না, এ নিয়ে ওইদিন সন্ধ্যায় রানা ও তোহার মধ্যে ঝগড়া হয়।

তোহার বড় বোন পপি আক্তার বলেন, তোহার ব্যাক্তিগত মোবাইল ফোনটি পুলিশ জব্দ করেছে। মোবাইলে রক্ষিত তথ্যের পাশাপাশি মোবাইল ট্রাকিং করলেও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়ার সম্ভবনা রয়েছে বলে তিনি মনে করেন।

তোহার ভগ্নিপতি আকরাম বলেন, তোহাদের পৈত্রিক বাড়ি কসবা উপজেলার ইমামবাড়িতে। বাসাবাড়ি বানিয়ে আখাউড়া বসবাস করলেও এখানে তাদের কেউ নেই। সেকারণেই তারা আতঙ্কে রয়েছেন হয়তো। ভয়ে মুখ খুলছে না।

আখাউড়া থানার ওসি রসুল আহমদ নিজামী বলেন, আমরা তোহার ছোট ভাই ও এক বান্ধবীকে আলাদাভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে। ময়নাতন্ত রিপোর্ট আসুক। তবে কারো কারণে তোহার মৃত্যুর সম্পৃক্ততা আর প্রমাণ মিলে যায় সে যত বড় শক্তিধর হোক আমরা কাউকেই ছাড়বো না।

রানার সাথে ৫ বছর ধরে তোহার সম্পর্ক ছিলো বলে জানান তিনি। তবে আরও ৫-৬ জনের সঙ্গে তোহার ফোনে যোগাযোগ ছিলো বলেও জানান ওসি।

তিনি জানান, তাদের মধ্যে একজন তোহাকে ব্লক করে দেয়ায় তোহা ক্ষিপ্ত হয়ে ঘটনার রাত ১২টার দিকে ঘর থেকে বের হয়ে গিয়েছিলো। এরপর তার মা তাকে আবার ঘরে ফিরিয়ে নেন। কে তাকে ব্লক দিয়েছিলো সেটি জানা এখন সময়ের ব্যাপার।

আরও পড়ুন: যন্ত্রণা থেকে বাচঁতে মৃত্যুকেই বেছে নিয়েছে কলেজছাত্রী তোহা


পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএম

ব্রাহ্মণবাড়িয়া
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close