• রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২ আশ্বিন ১৪২৭
  • ||

আহসান উল্লাহ মাস্টার হত্যা মামলার দুই আসামির বাড়িতে অগ্নিসংযোগ

প্রকাশ:  ২৪ জানুয়ারি ২০২০, ২২:৪২ | আপডেট : ২৪ জানুয়ারি ২০২০, ২২:৪৯
গাজীপুর প্রতিনিধি

গাজীপুর-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের জনপ্রিয় নেতা আহসান উল্লাহ মাস্টার হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডাদেশ পাওয়া পলাতক আসামি নূরুল ইসলাম দিপু ও তার ভাই নূরুল ইসলাম শিপুর বাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও ভাংচুর করেছে বিক্ষুব্ধ জনতা।

শুক্রবার (২৪ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে টঙ্গীর গোপালপুরে তাদের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

দিপু জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব। এর আগে তিনি জাপার সহ- আন্তজার্তিক বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন। দিপু ও শিপু টঙ্গীর গোপালপুর এলাকার রফিকুল ইসলাম ওরফে রফু কনট্রাক্টরের ছেলে। বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন শিপু। আর দিপু রয়েছেন প্রবাসে। নিজেরা না থাকলেও তাদের বাড়িতে স্বজন ও ভাড়াটিয়ারা বাস করেন।

টঙ্গী ফায়ার স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আতিকুর রহমান জানিয়েছেন, আগুনে বাড়ির দোতলার একটি ইউনিট পুড়ে গেছে। নিচ তলাসহ অন্যান্য ইউনিট ভাঙচুর করা হয়েছে। তারা দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের ফলে আগুন অন্যান্য ইউনিটে ছড়াতে পারেনি।

দিপুর স্ত্রী শরিফা খানম সুমি বলেন, আসরের নামাজের পর মিছিলসহ হঠাৎ ৪-৫শ’ লোক বাড়িতে লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায়। তারা বাড়িতে প্রবেশ করে কিছু বুঝার আগেই ঘরবাড়ি ও আসবাবপত্র ভাঙচুর করতে থাকে।

তিনি আরও বলেন, বাধা দিলে হামলাকারীরা বলতে থাকে- মাস্টারের খুনির কোনো আত্মীয়-স্বজন টঙ্গীতে থাকতে পারবে না। তাদের দেওয়া আগুনে বাড়ির ৩টি কক্ষ আগুনে পুড়ে গেছে।

অন্তত ২০টি কক্ষের আসবাবপত্র ভাঙচুর করা হয়। পরে টঙ্গী ফায়ার সার্ভিসের দুটি গাড়ি ও পুলিশ এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনাস্থলে পুলিশ যাওয়ার পর পরিস্থিতি শান্ত হয়।

প্রসঙ্গত, আহসান উল্লাহ মাস্টার হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি দিপুকে জাপার যুগ্ম সম্পাদক করায় টঙ্গী থানা আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠন গত ক’দিন ধরে বিক্ষোভ করে আসছিল। আহসান উল্লাহ মাস্টারকে ২০০৪ সালের ৭ মে বাড়ির পাশের নোয়াগাঁও এম এ মজিদ উচ্চবিদ্যালয় মাঠে এক সমাবেশে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা করে ঘাতকরা। এ ঘটনায় তার ছোট ভাই আওয়ামী লীগ নেতা মতিউর রহমান বাদী হয়ে টঙ্গী থানায় জাতীয় ছাত্র সমাজের সাধারণ সম্পাদক নূরুল ইসলাম দীপুকে প্রধান আসামি করে ৩০ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন।

২০০৪ সালে আহসান উল্লাহ মাস্টার হত্যাকাণ্ডের সময় দিপু তৎকালীন জাপার ছাত্র সংগঠন জাতীয় ছাত্র সমাজের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। মামলাটি বর্তমানে উচ্চ আদালতে আপিলে রয়েছে।


পূর্বপশ্চিমবিডি/ওআর

গাজীপুর,শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার,অগ্নিসংযোগ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
cdbl

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close