• রোববার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
  • ||

টাকার বিনিময়ে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সুযোগ!

প্রকাশ:  ০৮ নভেম্বর ২০১৯, ১১:৪৩ | আপডেট : ০৮ নভেম্বর ২০১৯, ১১:৫২
মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) সংবাদদাতা

টাকার বিনিময়ে টেস্ট পরিক্ষায় অকৃতকার্যদের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সুযোগ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার কুরণী জালাল উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি ও কতিপয় শিক্ষকের বিরুদ্ধে।

এ নিয়ে শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও স্থানীয়দের মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। দাবি উঠেছে খাতা পুনর্মূল্যায়ন করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার।

অভিযোগ রয়েছে, বিদ্যালয়ের এসএসসি টেস্ট পরিক্ষায় ৭৩ জন শিক্ষার্থী কৃতকার্য হলেও সোমবার (০৪ নভেম্বর) ম্যানেজিং কমিটি মিটিং করে অতিরিক্ত আরও ৩৫ জনকে কৃতকার্য দেখানোর সিদ্ধান্ত নেয়। অতিরিক্ত ৩৫ জনের কাছ থেকে জনপ্রতি ১ থেকে ২ হাজার টাকা করে আদায় করার দায়িত্ব নেন বিদ্যালয়টির সহকারী প্রধান শিক্ষিকা লুচি আক্তার।

বিদ্যালয়টির ছাত্র রাকিব সিকদার ও সজিব খান বলেন, গত ০৪ তারিখ বিকেলে লুচি আক্তার (সহকারী প্রধান শিক্ষিকা) আমাদের ডেকে নিয়ে বলেন আগামীকালকের মধ্যে তোমরা ২ হাজার করে দিলে তোমাদের কৃতকার্যদের তালিকায় থাকবে বলে জানান। এছাড়াও ৩৫ জনের নামের একটি তালিকা দিয়ে বলেন তাদের সবার সাথে যোগাযোগ করে ২ হাজার করে টাকা দিতে। পরে আমরাসহ শাকিব খান, নাহিয়ান, স্বর্ণা, জান্নাত, সাথী, রোজিনাসহ অন্যান্য ম্যাডামের কাছে টাকা দেই।

এছাড়াও কয়েকজন শিক্ষার্থী অভিযোগ করে বলেন, কয়েকজন মেয়ে সব পরিক্ষায় অংশগ্রহণ না করলেও তাদেরকে টাকার বিনিময়ে পাস করিয়ে দেওয়া হয়েছে। তাই খাতা পুনর্মূল্যায়ন করার দাবি জানান ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত লুচি আক্তার নিজেকে সাবেক চেয়ারম্যানের মেয়ে বলে পরিচয় দিয়ে বলেন, এ ব্যাপারে আমি কিছু বলতে পারব না।

প্রধান শিক্ষক আবু তাহেরকে বিদ্যালয়ে না পেয়ে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনিও পরিক্ষার ফলাফল নিয়ে কিছুই বলতে রাজি হননি।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ড. শরীফ উদ্দিন সর্বশেষ মিটিংয়ে তিনি উপস্থিত ছিলেন জানিয়ে বলেন, মিটিংয়ে অকৃতকার্য কোন শিক্ষার্থীকে কৃতকার্য দেখানোর সিদ্ধান্ত হয়নি এবং সরকারি নিয়ম-কানুনের বাইরে যাওয়ার প্রশ্ন্ই উঠে না।

মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার হারুন অর রশিদ বলেন, অকৃতকার্যদের কৃতকার্য দেখানোর কোনও সুযোগ নেই। কেউ যদি টাকার বিনিময়ে এ কাজ করে থাকে তবে সত্যতা পাওয়া গেলে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা আবদুল মালেক বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে খুব দ্রুত এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/অ-ভি

টাকা,বিনিময়,এসএসসি,সুযোগ,পরীক্ষা,টাঙ্গাইল
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত