• বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬
  • ||

জেডিসি পরীক্ষার্থীকে গণধর্ষণ, বিচারের দাবিতে সহপাঠীদের মানববন্ধন

প্রকাশ:  ০৪ নভেম্বর ২০১৯, ০৩:১৭
গফরগাঁও প্রতিনিধি

ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার ধাইরগাঁও দাখিল মাদ্রাসার জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি)-এক পরীক্ষার্থীকে (১৪) অপহরণের পর আটকে রেখে ২৫ দিন ধরে সংঘবদ্ধ গণ ধর্ষণ করার ঘটনার প্রতিবাদে সহপাঠীরা মানববন্ধন করেছে ওই মাদরাসার শিক্ষার্থীরা।

রোববার (০৩ নভেম্বর) সকাল ১০টায় ধাইরগাঁও বাজারের সড়কে ধর্ষকদের বিচারের দাবিতে ঘন্টাব্যাপি এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন মাদরাসার সুপার কামরুল ইসলাম,সহকারী সুপার শিহাব উদ্দিন খান,সহকারী শিক্ষক আরিফুল হক খান,জাহিদুল হক খান,এবতেদায়ী প্রধান খলিলুর রহমান,দশম শ্রেনীর শিক্ষার্থী সুমাইয়া আক্তার,সানি আক্তার প্রমুখ।

বক্তারা দ্রুত অভিযুক্তদের আইনের আওতায় এনে ফাঁসিত ঝুলিয়ে মৃত্যুদন্ড কার্যকরের দাবি জানায়।এখনও অভিযুক্ত ধর্ষকদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।পুলিশের দাবি তারা আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

গত ৬ অক্টোবর দাইরগাঁও গ্রামের আব্দুস ছালামের ছেলে বিপ্লব মেকার (৩৫), পাশের কলুরগাঁও গ্রামের হেলাল উদ্দিন শেখের ছেলে শারফুল (২৬) এবং মুর্শিদ খানের ছেলে ওয়াসির খান (২৮) ওই ছাত্রীকে বাড়ির সামনে থেকে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে আটকে রেখে ধর্ষণ করেন। তাকে না পেয়ে পরিবার তখন পাগলা থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করে। গতকাল ভোরে তাকে ধাইরগাঁও মাদ্রাসার সামনের রাস্তায় ফেলে পালিয়ে যায় অপহরণকারীরা। মসজিদে নামাজ পড়তে আসা লোকজন তাকে দেখতে পেয়ে উদ্ধার করে পরিবারের লোকজনকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন এসে তাকে বাড়ি নিয়ে যায়। এ ঘটনায় সন্ধ্যায় ওই শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে পাগলা থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

পাগলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুজ্জামান খান পূর্বপশ্চিম বলেন, ঘটনাটি ন্যক্কারজনক। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। রোববার নির্যাতিত শিক্ষার্থীর মাদরাসায় গিয়ে তার সহপাঠীদের সাথে কথা বলেছি। অভিযুক্ত আসামিদের ধরতে পুলিশ আপ্রাণ চেষ্টা করছে। আশা করছি আসামিরা খুব শিগগির ধরা পড়বে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/জিএম

ময়মনসিংহ,গফরগাঁও,জেডিসি পরীক্ষার্থী,ধর্ষকদের বিচার
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত