• মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল ২০২০, ২৪ চৈত্র ১৪২৬
  • ||

মাদরাসা থেকে মুছে যায়নি অধ্যক্ষ সিরাজের নাম

প্রকাশ:  ২৪ অক্টোবর ২০১৯, ২১:৪৪ | আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০১৯, ২১:৪৯
নিজস্ব প্রতিবেদক

ফেনীর সোনাগাজীতে মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় প্রধান আসমি অধ্যক্ষ সিরাজ উদ্দৌলাসহ ১৬ আসামিকেই মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (২৪ অক্টোবর) ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মামুনুর রশিদ এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার সময় সকল আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

এ রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন মাদ্রাসার শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। তবে বহিষ্কার করা হলেও এখনও মাদ্রাসা থেকে মুছে যায়নি সিরাজের নাম।

বৃহস্পতিবার মাদ্রাসা ঘুরে দেখা গেছে, মাদ্রাসার সাইক্লোন সেন্টারের তৃতীয় তলায় অধ্যক্ষের কক্ষের সামনে নেমপ্লেটে এখনো এস. এম সিরাজ উদ্দৌলার নাম রয়েছে। তবে কক্ষটি তালাবদ্ধ অবস্থায় রয়েছে।

জানা গেছে, গত ৭ এপ্রিল মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটি সভা করে অধ্যক্ষ সিরাজকে বরখাস্ত করে। একইসঙ্গে মাদ্রাসার আরেক শিক্ষক মাওলানা মোহাম্মদ হোসাইনকে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব দেওয়া হয়। পরে গত ১১ এপ্রিল অধ্যক্ষ সিরাজ উদ্দৌলার এমপিও স্থগিত করে সরকার।

মাদ্রাসার বিভিন্ন বিজ্ঞপ্তিতে ভারপ্রাপ্ত হিসেবে মাওলানা মোহাম্মদ হোসাইনের নাম থাকলেও অধ্যক্ষের কক্ষের সামনে সিরাজের নামটি এখনও রয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মাদ্রাসার এক শিক্ষক কথা বলতে অস্বীকৃতি জানান। এসময় তিনি দ্রুত মোটরসাইকেল নিয়ে মাদ্রাসা ত্যাগ করেন। পরে শিক্ষকদের কক্ষে থাকা বাংলা বিষয়ের প্রভাষক খুদিস্তা খানম অন্যান্য বিষয়ে প্রশ্নের উত্তর দিলেও এ বিষয়টি জানেন না বলে দাবি করেন।

এ বিষয়ে জানতে মাদ্রাসার বর্তমান ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মোহাম্মদ হোসাইনের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।


পূর্বপশ্চিমবিডি/ইমি

নুসরাত জাহান রাফি,ফেনীর সোনাগাজী,অধ্যক্ষ,অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলা
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close