• শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
  • ||

জোড়া খুনের মামলায় একজনের মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশ:  ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ১৭:১৭
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম নগরের কোতোয়ালী থানাধীন বান্ডেল রোড এলাকায় এক বাসায় ঢুকে ডাকাতির পর ৭০ বছরের নারী ও গৃহকর্মীকে হত্যার দায়ে সোলায়মান নামে এক আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই রায়ে পৃথক ধারায় ওই আসামিকে ১০ বছরের কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

বুধবার (২৩ অক্টোবর) চট্টগ্রামের অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ জান্নাতুল ফেরদৌস এ রায় দেন। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত মো. সোলায়মান সাইফুল ইসলামের ছেলে।

হত্যার শিকার নুরজাহান বেগম (৭০) কোতোয়ালী থানাধীন বান্ডেল রোড এলাকার হাছি মিয়ার স্ত্রী এবং তাদের গৃহকর্মী পপি (৭)।

আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী তসলিম উদ্দীন বলেন, সোলায়মানের বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সাথে ছিনতাইয়ের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড এবং ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, ২০০৯ সালের ১৮ আগস্ট বিকেলে বান্ডেল রোডের বাসায় খুন হন নুরজাহান বেগম ও পপি। বাসা থেকে ৩ ভরি ৮ আনা স্বর্ণ ডাকাতি করে নিয়ে যায় খুনি। এ ঘটনায় নিহত নুরজাহানের ছেলে ফারুক হোসেন অজ্ঞাতদের আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

আইনজীবী তসলিম উদ্দীন বলেন, আসামি সোলায়মান ঘর ভাড়া নেওয়া কথা বলে ওই বাসায় ঢুকেছিল। মালামাল লুট করতে সে নুরজাহানের গলায় ছুরি চালিয়ে হত্যা করে। এসময় ঘটনা দেখে ফেলায় পপিকেও ছুরিকাঘাতে হত্যা করে সে।

এ হত্যাকাণ্ডের এক বছর পর ২০১০ সালের ১৯ আগস্ট আসামি সোলায়মানকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ওইদিনই সোলায়মান হত্যার ঘটনার বর্ণনা দিয়ে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। একই বছরের ২৩ সেপ্টেম্বর আদালত আসামি সোলায়মানের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন।


পূর্বপশ্চিমবিডি/পিআই

জোড়া খুন,চট্টগ্রাম,মৃত্যুদণ্ড
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত