Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ৬ কার্তিক ১৪২৬
  • ||

সাগরের ঢেউয়ের গর্জন ছাপিয়ে দুর্গা দেবীকে বিদায়

প্রকাশ:  ০৮ অক্টোবর ২০১৯, ১৮:২৮ | আপডেট : ০৮ অক্টোবর ২০১৯, ১৮:৪১
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি
প্রিন্ট icon

সাগরের ঢেউয়ের গর্জন ছাপিয়ে ভক্তকণ্ঠে ‘জয় দুর্গা মায়ের জয়’ স্লোগানে চলছে প্রতিমা বিসর্জন। নানা বয়সী মানুষের ভিড়ে জনসমুদ্রে পরিণত হয়েছে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত।

মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) দুপুর ২টার পর থেকে শুরু হয় প্রতিমা বিসর্জন।

নগরীর বিভিন্ন স্থান থেকে বিদায়ী সুরে ট্রাক, ঠেলাগাড়ি, রিকশাভ্যান, পিকআপে করে প্রতিমার মিছিল আসতে শুরু করে পতেঙ্গা অভিমুখে। এরপর বিকেলে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে নানা বয়সী মানুষের মিলনমেলায় জনসমুদ্রে পরিণত হয়।

ভক্তদের কেউ কেউ শেষবারের মতো দুর্গা দেবীকে প্রণাম করছেন। কেউ দুর্গা দেবীর চরণে। কেউ বা দুর্গা দেবীর হাতে গুঁজে দিচ্ছেন চিরকুট। অনেকে আবার মহাযজ্ঞের ভিড় এড়িয়ে দূর থেকেই এক মনে প্রার্থনা করছেন। ষোড়শ উপাচারে দশমীর বিহিত পূজা, দর্পন বিসর্জন, শাস্ত্রীয় আচার, দেবীর চরণে অঞ্জলি নিবেদন, দেশ-জাতি, ব্যক্তিগত ও পরিবারের সুখ, শান্তি ও মঙ্গল কামনায় ব্যস্ত ছিলেন পূজার্থীরা।

মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট চন্দন তালুকদার বলেন, এবার নগরীতে ২৭০টি মণ্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে পতেঙ্গা সৈকতে ১২০ থেকে ১৩০টি প্রতিমা বিসর্জন দেওয়া হবে। এছাড়া ফিরিঙ্গিবাজারের অভয়মিত্র ঘাটে, কাট্টলী সৈকতে, পাহাড়তলীর বিভিন্ন পুকুর-দীঘিতে, কালুরঘাটে কর্ণফুলী নদীতে প্রতিমা বিসর্জন হবে।

পতেঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উৎপল বড়ুয়া বলেন, সৈকতে নির্বঘ্নে প্রতিমা বিসর্জন করতে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এছাড়া এখানে একটি অস্থায়ী পুলিশ কন্ট্রোল রুম চালু রয়েছে। র‌্যাবসহ নারী পুলিশ সদস্য, টুরিস্ট পুলিশ ও সাদা পোশাকে পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের টিমসহ ডুবুরি দলও রাখা হয়েছে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/পিআই

চট্টগ্রাম,দুর্গামাকে বিদায়
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত