• সোমবার, ২৫ মে ২০২০, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
  • ||

পুলিশকে আত্মহত্যার হুমকি দিতেন লিজা-সাখাওয়াত

প্রকাশ:  ০৫ অক্টোবর ২০১৯, ২০:০২
রাজশাহী প্রতিনিধি

সাখাওয়াতকে না পেলে আত্মহত্যা করবো বলে প্রায় ফোন দিতেন লিজা। আর সাখাওয়াত ফোনে জানাতেন লিজা আসলে সেও আত্মহত্যা করবে। এমন হুমকি প্রায় আসতো চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মিন্টু রহমানের কাছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাচোল থানায় কর্মরত এই পুলিশ কর্মকর্তা নিজেই।

মিন্টু রহমান বলেন, গত ২৭ সেপ্টেম্বর সকালে সাখাওয়াত ফোন দিয়ে বলে স্যার আমি আত্মহত্যা করবো। তখন সাখাওয়াতকে বিভিন্ন ভাবে বোঝানো হয়। পরে ২৮ সেপ্টেম্বর সকালে আবার লিজা ফোন দিয়ে আত্মহত্যা করবে বলে জানায়। তখন একই ভাবে তাকেও বোঝানো হয়।

প্রায় একমাস আগে সাখাওয়াতকে রাজশাহীতে না পেয়ে লিজা নাচোলে খুঁজতে আসে। বিষয়টি এলাকার মেম্বার আবুল খায়ের বুঝতে পেরে রাতে পুলিশকে জানায়। পরদিন পুলিশ সাখাওয়াত ও তার বাবাকে থানায় নিয়ে আসে। এসময় লিজা সাখাওয়াতের বাবাকে সালাম দেয়। পরে সাখাওয়াতের জিম্মায় লিজাকে দেওয়া হয়। এছাড়া দু’জনের মধ্যে মিল করে দেওয়ার জন্য অনেক চেষ্টা করা হয়।

নগর পুলিশের মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস জানান, লিজার মৃত্যুর বিষয়টি নিয়ে স্বামী সাখাওয়াতের পরিবার সম্পর্কে এলাকার কেউ মুখ খুলছে না। এছাড়া নাচোল উপজেলার খান্ধুরা গ্রামের বাড়িতে ঝুলছে তালা। লিজার মৃত্যু ও মামলা বিষয়ে জানতে পেরে তারা গা-ঢাকা দিয়েছে।

তিনি আরো বলেন, পুলিশের গাফিলতি আছে কি না লিজার গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার পিছনে, সেটি গঠন করা তদন্ত কমিটি শনিবার (৫ অক্টোবর) রিপোর্ট জমা দিয়েছে। তবে নগর পুলিশের পক্ষ থেকে এখনও তদন্ত রিপোর্ট প্রসঙ্গে কিছু বলা হয়নি।

উল্লেখ্য, গত ২৮ সেপ্টেম্বর গায়ে আগুন দেওয়ার পরে রাতে লিজাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়। আগুনে তার শরীরের ৬৩ শতাংশ পুড়ে যায়। এরপর ঢামেকের বার্ন ইউনিটে টানা চার দিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে মৃত্যুবরণ করেন লিজা।


পূর্বপশ্চিমবিডি/পিআই

আত্মহত্যার হুমকি,পুলিশ,রাজশাহী
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close