Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ৩ কার্তিক ১৪২৬
  • ||

সহপাঠীর চিকিৎসার দাবিতে বিদ্যালয়ে তালা দিল শিক্ষার্থীরা

প্রকাশ:  ০৪ অক্টোবর ২০১৯, ১০:৪১
নেত্রকোনা প্রতিনিধি
প্রিন্ট icon

সহপাঠীর হার্টে ছিদ্র হওয়ায় কারণে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ায় চিকিৎসা সহায়তার দাবিতে নেত্রকোনার আঞ্জুমান আদর্শ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের গেটে তালা লাগিয়ে দেয় শিক্ষার্থীরা।

উন্নত চিকিৎসার জন্য নবম শ্রেণির অসুস্থ্য ছাত্র সাব্বির হোসেন রাফিকে (১৪) অতিসত্বর দেশের বাহিরে নেয়া প্রয়োজন। কিন্তু রাফির দরিদ্র বাবার পক্ষে তা কিছুতেই সম্ভব ছিলনা পরিবারের।

সকল শিক্ষার্থী-বন্ধুরা মিলে টিফিনের টাকা সংগ্রহ করে প্রাথমিক পর্যায়ের খরচের টাকার যোগান দেয়। অবশেষে বিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষের সহযোগিতা কামনা করে শিক্ষার্থীরা। কিন্তু কর্তৃপক্ষ তাদের চাহিদা অনুসারে অর্থ সহায়তা দিতে না পারায় শিক্ষক-কর্মচারীদের প্রতিষ্ঠানের ভিতরে রেখে শিক্ষার্থীরা বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) দুপুরে বাহির থেকে বিদ্যালয়ের গেটে তালা বন্ধ করে আন্দোলন শুরু করে।

পরিস্থিতি সামলাতে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) মনোয়ার হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান জুয়েল ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে তাদেরকে বিদ্যালয়ের ভিতরে নিয়ে যান।

আবেগঘন অশ্রুশিক্ত বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা জানায়, চিকিৎসকের পরামর্শ ও রাফির শারীরিক অবস্থা অনুযায়ী রাফিকে ভারত নিয়ে যেতে হবে। চিকিৎসার ব্যয় অনেক টাকা, সহপাঠী বন্ধুকে বাঁচাতে বিদ্যালয়ের সহায়তার ফান্ড থাকার পরও কর্তৃপক্ষ তা দেওয়ার বিপরীতে দাবি উপস্থাপন করলে তাদের সাথে দুর্ব্যবহার করে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আকলিমা খাতুন সকল শিক্ষার্থীদের রুম থেকে বের করে দেয়।

এমনকি রাফির চিকিৎসার জন্য ভারতে যেতে বিদ্যালয়ের প্রত্যায়নপত্রও দিবেন না বলে জানায়। পরে এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা রাফিকে বাঁচাতে বিদ্যালয়ের সামনে আন্দোলন শুরু করে।

এব্যাপারে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আকলিমা খাতুন জানান, শিক্ষার্থীরা রাফির চিকিৎসার জন্য বিদ্যালয়ের ফান্ড থেকে ১ লাখ টাকা সহায়তা চায়। তাদেরকে ১০ হাজার টাকা দিতে চাইলে ক্ষিপ্ত হয়ে যায়। দাবি পূরণে ব্যর্থ হয়ে একপর্যায়ে আন্দোলন করে বিদ্যালয়ের মূল গেটে তালা লাগিয়ে দেয়।

রাফির বাবা পৌর শহরের কুরপাড় এলাকার আব্দুস ছালাম জানান, ১৮ সেপ্টেম্বর রাফির হার্টে ছিদ্র ধরা পড়ে। রাফিকে প্রথমে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে সেখান থেকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে (মমেক) হাসপাতালে নিয়ে হার্টের চিকিৎসক কৌশিক ভৌমিককে দেখানো হয়। চিকিৎসক রাফিকে দ্রুত দেশের বাহিরে নেয়ার পরামর্শ দেন।

রাফির বাবা ছালাম জানান, ব্যয়বহুল এ চিকিৎসা করে ছেলেকে বাঁচানো তার পক্ষে সম্ভব নয়। রাফীকে বাঁচাতে সকলের সহায়তা কামনা করেন অসহায় বাবা।

পূর্বপশ্চিমবিডি/আরএইচ

নেত্রকোনা,সহপাঠীর চিকিৎসার দাবি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত