Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • রোববার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬
  • ||

ফুলবাড়ীতে ড্রেজার মেশিন দিয়ে চলছে অবৈধ বালু উত্তোলন

প্রকাশ:  ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২০:৩৬
দিনাজপুর প্রতিনিধি
প্রিন্ট icon

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে ছোট্র যমুনা নদী থেকে বিভিন্ন এলাকায় অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করলেও নিরব ভূমিকায় রয়েছে উপজেলা প্রশাসন। নদীর বিভিন্ন এলাকায় বালু ব্যবসায়ীরা ইচ্ছামত বালু উত্তোলন করায়, নদীগর্ভে বিলিন হয়ে যাচ্ছে নদীর গ্রামরক্ষা বাঁধসহ ফসলি জমি। শুধু তাই নয়, বালু ব্যবসায়ীদের ইচ্ছামতো বালুর দাম নেয়ায় তাদের নিকট জিম্মি হয়ে পড়েছে বালু বহনকারী ট্রাক্টর মালিক-শ্রমিকসহ সাধারণ মানুষ।

উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্য্যলয় সূত্রে জানা গেছে, ফুলবাড়ী উপজেলার শিবনগর ইউনিয়নের ছোট যমুনা নদীর রাজারামপুর মৌজার বেলতলী ঘাট ও গোপলপুর ঘাট বালুমহল হিসেবে ইজারা প্রদান করা হয়েছে।

কিন্তু উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, বালুমহল ইজারাদার ইমরুল হুদা চৌধুরী ইনু, বেলতলী ও গোপলপুর ঘাট ছাড়াও, উপজেলা শিবনগর ইউনিয়নের গঙ্গাপ্রসাদ ঘাট, মৎসর বীল থেকে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে দেধারছে বালু উত্তোলন করছে। এছাড়া উপজেলার খয়েরবাড়ী ইউনিয়নের মহদিপুর ঘাট, জমিদারপাড়া ঘাট, দৌলতপুর ইউনিয়নের বারাইপাড়া ঘাট, জানিপুর ঘাটে সাব-ইজারাদার নিয়োগ করে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে ইচ্ছামত বালু উত্তোলন করছে।

বারাইপাড়া ঘাটের বালু উত্তোলনকারী বাবলু মিয়া বলেন, প্রতিমাসে ৪০ হাজার টাকা চুক্তিতে, বালুমহল ইজারাদার ইনুর নিকট থেকে তিনি বারাইপাড়া ঘাট সাব-ইজারা নিয়েছেন, একই কথা বলেন, মহদিপুর ঘাটের বালু উত্তোলনকারী মুরাদ হোসেন।

জমিদারপাড়া ঘাটের বালু উত্তোলনকারী মতিয়ার রহমান বলেন, জমিদার পাড়া ঘাট থেকে বালু উত্তোলনের জন্য প্রতিমাসে ৩০ হাজার টাকা করে দিতে হয় বালুমহলের ইজারাদার ইমরুল হুদা চৌধুরী ইনুকে।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে বালুমহল ইজারাদার ইমরুল হুদা চৌধুরী বলেন, মাত্র দু’টি ঘাট থেকে বালু উত্তোলন করে ইজারা মূল্য পরিশোধ করা কঠিন, তাই তিনি ওইঘাটগুলো সাব-ইজারা প্রদান করেছেন।

এদিকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করায় নদী গর্ভে ভেঙে পড়েছে বন্যার হাত থেকে গ্রামরক্ষার বাঁধসহ ফসলি জমি।

জাফরপুর গ্রামের বাসিন্দা প্রভাষক হামিদুল হক বলেন, বালু উত্তোলনের কারনে গত বছরে বন্যায় তার প্রায় এক একর ফসলি জমি নদীতে বিলিন হয়ে গেছে, এই বিষয়ে তিনি উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেও কোনও প্রতিকার পাননি।

খয়েরবাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি এনামুল হক বলেন, জমিদার পাড়া ঘাটে যে ভাবে বন্যার হাত থেকে গ্রামরক্ষা বাঁধটি কেটে নিয়ে যাওয়া হয়েছে তাতে আগামী বন্যায় গ্রামের বাড়ী-ঘর ও মাঠের ফসল সবই নদীতে বিলিন হয়ে যাবে।

রাজারামপুর গ্রামের আবু বক্কর বলেন, বালু উত্তোলনের ফলে তার এক বিঘা জমি ইতোমধ্যে নদীতে চলে গেছে, এখন যেভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে, তাতে আগামী বন্যায় তার পাশের জমিটিও নদী গর্ভে বিলিন হয়ে যাবে।

এদিকে বালু ব্যবসায়ীরা তাদের ইচ্ছামতো বালুর দাম নির্ধারণ করে, জিম্মি করে ফেলেছে বালু বহনকারী ট্রাক্টর মালিক শ্রমিকদের।

ট্রাক্টর মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মকলেছার রহমান ও নবাব সরকার বলেন, গত কয়েক দিন পূর্বেও ৩৫০ টাকায় এক ট্রাক্টর বালু ঘাট থেকে নেয়া হলেও, এখন বালুর ইজারাদার এক ট্রাক্টর বালুর দাম নির্ধারন করেছে ৭০০ টাকা, এতে করে তারা উন্নয়মূলক প্রকল্পে বালু সরবরাহ করতে পারছেনা।

ট্রাক্টর মালিক শ্রমিক ইউনিয়নের উপদেষ্টা অধ্যক্ষ মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, বালু ইজারাদারের দৌরাত্বে জিম্মি হয়ে পড়েছে ট্রাক্টর মালিক ও শ্রমিকরা, বালু ইজরাদার এক মাস পরপর বালুর দাম বৃদ্ধি করছে, এতে উন্নয়নমূলক কাজের ব্যায় বাড়ছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এলজিইডির একজন ঠিকাদার বলেন, বালুর দাম হঠাৎ বৃদ্ধি করায় তার ঠিকাদারী কাজ বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়ে পড়েছে। তিনি বলেন, টেন্ডারে যে বালুর দাম ধরা রয়েছে বালু মহল ইজারাদার তার থেকে অনেকগুণ বেশি দাম চাওয়ায় তিনি বালু নিতে পারছে না।

ইজারা ছাড়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন ও বালুমহল ইজারাদারের দৌরাত্বের বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুস সালাম এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, কিছুদিন আগে একটি ট্রলি ও ড্রেজার জব্দ করা হয়েছে, অ্ল্প সময়ের মধ্যে বাকি অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধ করা হবে।

অপরদিকে গ্রামবাসীরা বলেছেন, কয়েক বছর থেকে বালুর ইজারাদার তার ইচ্ছামত বালু উত্তোলন করলেও কোনও ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি উপজেলা প্রশাসন।

দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি সাংবাদিকদের জনান, কেউ অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করতে পারবে না। তিনি অল্প সময়ের মধ্যে অবৈধ বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানান।

পূর্বপশ্চিমবিডি/অ-ভি

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত