• রোববার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
  • ||

১৮দিন পর হত্যা মামলার আসামি মাসুদ ঢাকায় আটক

প্রকাশ:  ২০ আগস্ট ২০১৯, ১০:৩৮
নওগাঁ প্রতিনিধি

নওগাঁর রাণীনগরে দুই সন্তানের জননী গৃহবধূ শাকিলা আক্তার শ্যামলেকে (৩৫) পিটিয়ে হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত প্রধান আসামি ঘাতক স্বামী মাসুদ রানেকে (৪০) ঢাকায় আটক করেছে পুলিশ।

রোববার (১৮ আগস্ট) রাতে ঢাকার শাহ আলী থানার পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাসুদ রানাকে ওই এলাকা থেকে আটক করে। সোমবার বিকেলে তাকে ঢাকা থেকে রাণীনগর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

রাণীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জহুরুল হক বলেন গত ৩১জুলাই স্বামী মাসুদ রানার মারপিটে তার স্ত্রী শাকিলা আক্তার শ্যামলী তার নিজ বাসায় গুরুত্বর আহত হন। এরপর শ্যামলীকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। এরপর থেকে মাসুদ রানা পলাতক ছিলেন। এই ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে ওইদিন রাতে স্বামী মাসুদ রানাকে প্রধান আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। অবশেষে গত রোববার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকার শাহ আলী থানা পুলিশ তাকে আটক করে আমাদের কাছে হস্তান্তর করেছে। মঙ্গলবার তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হবে বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য, প্রায় ১৭বছর আগে উপজেলার দাউদপুর গ্রামের আব্দুস সাত্তারের মেয়ে শ্যামলী আক্তারের সঙ্গে বিয়ে হয় উপজেলার সিম্বা গ্রামের আফছার আলীর ছেলে মাসুদ রানার। বেশ কিছুদিন পূর্ব থেকে শ্যামলী জানতে পারে যে তার স্বামী মাসুদ রানা একাধিক মেয়ের সঙ্গে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে আরেকটি বিয়ে করে। এরপর থেকে শুরু হয় পারিবারিক কলহের। দ্বিতীয় বিয়ে করার পর থেকে মাসুদ রানা ঠিকঠাক মতো খোঁজখবর নিতো না শ্যামলী ও তার সন্তানদের। এই সমস্যা সমাধান করার জন্য দুই পরিবারের লোকজনসহ স্থানীয়রা চেষ্টা করেও তা সমাধান করতে পারে নাই। ঘটনার বেশকিছুদিন আগে থেকে মাসুদ রানা নিরুদ্দেশ থাকলেও জুলাই মাসের শেষের দিকে বাড়িতে আসেন মাসুদ। আর পরকীয়ার প্রেম ও বিয়ে করার জেরেই মাসুদ রানা তার স্ত্রী শ্যামলীকে পিটিয়ে হত্যা করেন।

পিপিবিডি/পিএস

নওগাঁ,হত্যা মামলা,ঢাকা
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত