Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬
  • ||

নিম্নমানের কাজে বাধা দেওয়ায় ঠিকাদার ও জনগণের হাতাহাতি

প্রকাশ:  ১৮ জুলাই ২০১৯, ১৬:৪২
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি
প্রিন্ট icon

কর্ণফুলীর চরলক্ষ্যায় নেয়ামত শাহ (রঃ) সংযোগ সড়ক নির্মাণে নিম্নমানের কাজে বাধা দেওয়ায় এলাকাবাসী ও ঠিকাদারের হাতাহাতি হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার চরলক্ষ্যা ২নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় সড়ক নির্মাণে নিয়োজিত প্রতিষ্ঠান মেসার্স রমা এন্টারপ্রাইজের শ্রী দেবরাজ রতন নামের ঠিকাদারের সাথে নিম্নমানের কাজের অভিযোগ তুলে এলাকাবাসী পক্ষে স্থানীয় যুবক মো. মহসিন ও কয়েকজনের সাথে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় ও হাতাহাতি হয়।

এ কারণে কয়েক ঘন্টা কাজ বন্ধ করে দিয়েছিলো রমা এন্টারপ্রাইজের লোকজন। পরে উপজেলা প্রকৌশলী ও সহকারী প্রকৌশলী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে কাজের মান ঠিক রেখে পুনরায় কাজ করার নির্দেশ দিয়ে চলে যান বলে খবর পাওয়া যায়।

এলজিইডি প্রকৌশলী অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলার জুলধা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড হাজী আরবান আলী সড়ক আরসিসি দ্বারা উন্নয়ন ও ড্রেন নির্মাণ, জুলধা ইউনিয়নের ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের হাজী আবুল কাশেম সড়ক আরসিসি দ্বারা উন্নয়ন, চরলক্ষ্যা ২ নং ওয়ার্ডের নেয়ামত শাহ (রঃ) সংযোগ সড়ক (হিন্দুপাড়া) আরসিসি দ্বারা উন্নয়নে ১৫ লাখ ৪৪ হাজার প্রাক্কলিত দরপত্রে মূল্যে কাজ পায় মেসার্স রমা এন্টারপ্রাইজ।

পরে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কার্যাদেশ নিয়ে কাজ শুরু করে কিন্তু রাস্তার উন্নয়ন কাজে নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার ও রডের এর নিচে পলিথিন ও ব্যাগ না দেওয়া সহ পুরাতন ইট দিয়ে ঢালাই কাজ করার অভিযোগ তুলে স্থানীয় লোকজনের সাথে মো. মহসিন নামে এক যুবক। যার সাথে ঠিকাদারের হাতাহাতি ও তর্কাতর্কি হয়।

জানতে চাইলে ঠিকাদার শ্রী দেবরাজ রতন মুঠোফোনে জানান, মুখ চেনা চিনি এমন কয়েকজন সহ মহসিন অনেকদিন যাবত কাজে ডিস্টার্ব করতেছে কাজ বন্ধ করার। আজ সকালেও সড়কে কাজ করার সময় কয়েকজন যুবক কাজে বাধা দিতে আসলে তর্কাতর্কি হয় বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। পরে প্রকৌশল অফিস হতে লোকজন আসলে তারা পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে স্থানীয় যুবক মো. মহসিন বলেন, আমি এলাকার ছেলে সকালে রাস্তার কাজে অনিয়ম হচ্ছে দেখে স্থানীয় প্রশাসনকে মৌখিকভাবে বিষয়টি জানিয়েছি দেখে ক্ষিপ্ত হয়ে ঠিকাদার দেবরাজ রতন আমাকে আক্রমণ করে যা আমি ইউএনও, উপজেলা চেয়ারম্যান ও প্রকৌশল অফিসসহ সবাইকে জানিয়েছি আশা করি তাঁরা ব্যবস্থা নেবেন।

কর্ণফুলী উপজেলা প্রকৌশলী জয়শ্রী দে বলেন, সড়কে কাজে বাধা দিচ্ছে ঠিকাদারের এমন খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে কাউকে পাইনি।

পূর্বপশ্চিমবিডি/আরএইচ

চট্টগ্রাম
apps

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত