Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১ কার্তিক ১৪২৬
  • ||

সেই রাজার পালঙ্ক প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরে বুঝিয়ে দিলেন ডিসি

প্রকাশ:  ০৩ জুন ২০১৯, ১৯:৩৯
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট icon

রাজা সীতারাম রায়ের ব্যবহৃত ঐতিহাসিক মহা মূল্যবান সেই পালঙ্কটি প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরে কাছে হস্তান্তর করেছেন মাগুরার জেলা প্রশাসক।

সোমবার (০৩ জুন) প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর খুলনার আঞ্চলিক পরিচালকের প্রতিনিধিদলের কাছে পালঙ্কটি হস্তান্তর করা হয়।

প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর খুলনার আঞ্চলিক পরিচালক আফরোজা খান মিতা জানান, পালঙ্কের বিষয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পরে জেলা প্রশাসক প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বরাবর একটি আবেদন করেন। ওই আবেদনের ভিত্তিতে এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা প্রশাসক মো. আলী আকবর মুঠোফোনে বলেন, পালঙ্কটি প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরে দেওয়া হয়েছে। তবে এটা আসলেই সীতারামের কি না, তা পরীক্ষা করার জন্য ওই দপ্তরে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে ‌‌রাজার পালঙ্গে ঘুমোন মাগুরার ডিসি এমন শিরোনামে দেশের বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হলে ঐতিহাসিক নিদর্শন সংরক্ষণ না করে ব্যক্তিগত ব্যবহার করায় জেলা প্রশাসক আলী আকবর সমালোচনার মুখে পড়েন।

এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বরাবর একটি চিঠি পাঠান জেলা প্রশাসক মো. আলী আকবর। ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, স্থানীয় সূত্রে কেউ কেউ পালঙ্কটি প্রায় চার শ বছর আগের ভূষণার রাজা সীতারাম রায়ের বলে মতপ্রকাশ করেছেন। তবে এ বিষয়ে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রাচীন দলিল দস্তাবেজ অনুসন্ধান করেও কোনো তথ্য–প্রমাণ পাওয়া যায়নি। জীর্ণ ও ব্যবহার অনুপযোগী খাটটি দীর্ঘদিন ধরে মাগুরার জেলা প্রশাসকরা সংরক্ষণ করছেন। খাটটি রাজা সীতারামের কি না, যাচাই করে প্রাচীন নিদর্শন প্রমাণিত হলে সেটি সংরক্ষণের জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হোক।

পিপিবিডি/এস.খান

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত