Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬
  • ||

গফরগাঁওয়ে লিটন হত্যা মামলার তদন্তে পিবিআই

প্রকাশ:  ০৩ জুন ২০১৯, ১৫:৪৭
গফরগাঁও প্রতিনিধি
প্রিন্ট icon

ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলায় আলোচিত লিটন (৩০) হত্যা মামলার তদন্ত শুরু করেছে পিবিআই (পুলিশ ইনভেস্টিগেশন অব বাংলাদেশ)।

শনিবার (০১ জুন) পিবিআইয়ের ময়মনসিংহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু বকর সিদ্দিকের নেতৃত্বে একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। হত্যার ঘটনাটি ঘটে গত ২৪ এপ্রিল উপজেলার বারবাড়িয়া ইউনিয়নের পাকাটি গ্রামে।

অভিযোগ রয়েছে, গফরগাঁও থানা পুলিশ একটি যৌতুক মামলায় ভুল তথ্যের ভিত্তিতে প্রকৃত আসামি কামরুজ্জামানকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা না করে পাকাটি গ্রামের ময়েজ উদ্দিনের ছেলে লিটনকে গ্রেপ্তার করতে তার বাড়িতে অভিযান চালায়। লিটনকে আটক করে নির্যাতন করলে তিনি গুরুতর আহত হন। পরে গত ৯ মে রাতে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিত্সারত অবস্থায় লিটন মারা যান।

অভিযোগ রয়েছে, এ ঘটনায় লিটনের পরিবার থানায় গেলে পুলিশ মামলা নেয়নি। পরে নিহতের মা অজুফা খাতুন বাদী হয়ে ময়মনসিংহ আদালতে স্থানীয় ইউপি সদস্য মিজানুর রহমান হিরো, গফরগাঁও থানার এসআই রোবেল, এসআই নূর শাহীন, এএসআই সুখময় ঘোষসহ ১৩ জনের নামে মামলা করেন।

এদিকে যে মামলায় লিটনকে পুলিশ অপরাধী বলছে এবং আসামি হিসেবে চিহ্নিত করেছে স্বয়ং সেই মামলার বাদী হেনা আক্তারের কথায় পুলিশের বক্তব্য মিথ্যা বলেই প্রমাণ মিলছে।

বাদী হেনা আক্তার বলেন, যে লিটন মারা গেছে তিনি তাকে চিনেনই না। তার মামলায় আসামি হিসেবে তিনি কামরুজ্জামানকে অভিযুক্ত করেন।

এদিকে অভিযুক্ত পুলিশ কর্মকর্তাদের বক্তব্য নিতে চাইলে তারা কেউ কথা বলতে রাজি হননি। তবে পুলিশ এখনও লিটনকেই প্রকৃত আসামি হিসেবে প্রমাণ করতে চাইছে।

ময়মনসিংহ পিবিআই সূত্রে জানা যায়, গত ২৩ মে আদালত থেকে তারা মামলাটির তদন্তের ব্যাপারে নির্দেশনা পান। মামলার তদন্তও শুরু হয়েছে।

পিপিবিডি/অ-ভি

apps

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত