• মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯, ২৮ কার্তিক ১৪২৬
  • ||
শিরোনাম

পবা উপজেলা পরিষদে নৌকা-হাতুড়ির লড়াই

প্রকাশ:  ৩১ মে ২০১৯, ১৭:১২
রাজশাহী প্র্রতিনিধি

রাজশাহীর পবা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীদের প্রতিক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। শুক্রবার (৩১ মে) সকালে জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে এ প্রতিক বরাদ্দ দেয়া হয়। অবশ্যই চেয়ারম্যান পদে নিজ দলীয় মনোনীত প্রার্থী হওয়ায় প্রতিক অনেকটাই নিশ্চিত ছিল।

তিনজন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করায় এই উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতিকের প্রার্থী মুনসুর রহমান ও ওয়ার্কার্স পার্টির মনোনীত হাতুড়ি প্রতিকের প্রার্থী এসএম আশরাফুল হক তোতার মধ্যেই মধ্যেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে। অবশ্যই এই দুই প্রার্থীর চেয়ারম্যান পদের স্বাদ নেওয়া আছে। প্রার্থী মুনসুর রহমান সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও ভাইস ভাইস চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন। আবার এসএম আশরাফুল হক তোতাও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন। এবারের লড়াই সাবেক ও বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যানের লড়াই। এর আগে এই উপজেলা নির্বাচনে দুই প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছেন। বৃহস্পতিবার ( ৩০ মে) শেষ দিনে তারা মনোনয়ন প্রত্যাহার করেন। প্রত্যাহাকারিরা হলেন চেয়ারম্যান পদে জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ফারুক হোসেন ডাবলু ও পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে রফিকুল ইসলাম।

তার আগে বাছাই পর্বে দুই জন চেয়ারম্যান প্রার্থী ও একজন পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীকে বাতিল ঘোষণা করা হয়। বাতিল ঘোষিত হলেন চেয়ারম্যান প্রার্থী বকুল আহমেদ ও আফজাল হোসেন। আর ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী ওমর ফারুক ফারদিন। এদের প্রত্যেকেরই কাগজপত্রে ভুল থাকার জন্য বাতিল ঘোষণা করা হয়।

এখন চেয়ারম্যান পদে রইলো দুইজন। এরা হলেন আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতিকের প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মুনসুর রহমান, বর্তমান উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও হাতুড়ি প্রতিকের জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির মনোনীত প্রার্থী এসএম আশরাফুল হক তোতা।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা আওয়ামী লীগ মনোনীত দলীয় প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক প্রতিক পেয়েছেন বই, উপজেলা কৃষকলীগ সভাপতি ওয়াজেদ আলী খাঁন পেয়েছে তালা, আওয়ামী লীগ নেতা রবিউল জামাল বাবলু পেয়েছেন উড়োজাহাজ, এএফএম আহাসান উদ্দিন পেয়েছেন মাইক ও আলমগীর হোসেন পেয়েছেন টিউবওয়েল প্রতিক।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান সুফিয়া বেগম প্রতিকের পেয়েছেন হাঁস, উপজেলা আওয়ামী লীগ মনোনীত দলীয় প্রার্থী আরজিয়া বেগম কলস ও আওয়ামী লীগ নেত্রী রীতা বেগম পেয়েছেন ফুটবল।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ি নির্বাচনে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন ছিল ৩০ মে। ৩১ মে প্রতিক বরাদ্দ ও ভোট গ্রহণ করা হবে ১৮ জুন।

পবা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মিরদাহ মোসাম্মদ শাহনাজ পারভিন জানান, পবা উপজেলায় মোট ভোটার ২ লাখ ২৮ হাজার ১৩৭ জন। এখানে সম্ভাব্য ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ৭৮টি।

পিপিবিডি/অ-ভি

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত