Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬
  • ||

সিলেটে ঈদ বাজারে সর্তক অবস্থানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী

প্রকাশ:  ২৯ মে ২০১৯, ২২:১২
সিলেট প্রতিনিধি
প্রিন্ট icon

ঈদুল ফিতর এর আর বেশি দিন বাকি নেই। আগামী সপ্তাহে সারা দেশেই উদযাপিত হবে পবিত্র ঈদুল ফিতর। আর ঈদকে কেন্দ্র করে কেনাকাটায় ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রবাসী অধ্যুষিত সিলেট অঞ্চলের লোকজন। নগরবাসীকে নিরাপদে কেনাকাটা করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকেও নেওয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা। প্রতিটি বিপনী বিতানের সামনে মোতায়েন করা হয়েছে বাহিনীর সদস্যদের। সবমিলিয়ে তিন স্তরের নিরাপত্তা বলয় তৈরি করা হয়েছে নগরজুড়ে।

পুলিশ জানায়, মার্কেট-শপিংমল এলাকায় চুরি, ছিনতাই, অজ্ঞান বা পকেট কাটাসহ নানা অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে নিয়মিত টহল ও ছদ্মবেশি গোয়েন্দা মোতায়েন করা হয়েছে।

র‌্যাব ও পুলিশের দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা জানান, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কঠোর নিরাপত্তা ও নজরদারির কারণে ঈদ কেন্দ্রিক অপরাধীরা কোণঠাসা হয়ে পড়েছে। ফলে সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত সরগম থাকছে মার্কেট-শপিংমলগুলো। নিশ্চিন্তে- নির্বিঘ্নে চলছে ঈদের কেনাকাটা।

বুধবার (২৯ মে) বিকেলে নগরের বেশ কয়েকটি বিপনীবিতান ঘুরে দেখা গেছে, শপিংমলের সামনে পুলিশের নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হয়েছে। কিছু কিছু মার্কেটের সামনে রাস্তায়ও ছিল বিপুলসংখ্যক পুলিশ সদস্য। সড়কের শৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত ছিল ট্রাফিক পুলিশ।

ঈদ বাজারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর নিরাপত্তায় সন্তুষ্ট রয়েছেন ক্রেতা বিক্রেতারা।

আয়েশা নামের এক কিশোরী বলেন, ঈদ বাজারকে সামনে রেখে একটি চক্র বেপরোয়া হয়ে উঠে। বিশেষ করে ছিনতাইয়ের ঘটনা বেশি ঘটে। তাই এবার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নিরাপত্তা বলয় তৈরি হওয়াতে কিছুটা স্বস্থি কাজ করছে। আমরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নিরাপত্তা বলয়ে সন্তুষ্ট।

নগরের ব্লু-ওয়াটার শপিং সেন্টারের এক ব্যবসায়ী আজিজুর রহমান রাজু বলেন, ‘ঈদকে সামনে রেখে আমাদের মার্কেটে পুলিশের নিরাপত্তায় অনেকটা শঙ্কা মুক্ত থেকেই আমারা ব্যাবসা করতে পারছি।’

নগরের জিন্দাবাজারস্থ কাকলী শপিং সেন্টার ব্যবসায়ী কমিটির সভাপতি টিপু সুলতান বলেন, মার্কেটের সামনে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর অবস্থানের কারণে ক্রেতারা নির্ভয়ে কেনাকাটা করছেন। আমাদের ব্যাবসায়ও কোন সমস্যা হচ্ছে না।

নিরাপত্তার বিষয়ে র‌্যাব-৯ এর দায়িত্বরত মিডিয়া অফিসার ওবাইন বলেন, ঈদ বাজারকে কেন্দ্র করে সিলেট নগরে মার্কেট শপিংমলে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে র‌্যাব। এর বাইরেও বিশেষ করে বাস, ট্রেনসহ গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় বিশেষ নজরদারি বাড়ানো হয়েছে।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (মিডিয়া) মো. জেদান আল মুসা বলেন, আসন্ন ঈদকে সামনে রেখে ১৫ রোজার পর থেকে আমরা নগরের গুরুত্বপূর্ণ মার্কেটে সামনে র্ফোস মোতায়েন করেছি। সড়কে যাতে কোন বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না হয় সেজন্য দিনরাত কাজ করছে আমাদের ট্রাফিক সদস্যরা।

এদিকে, ফিটনেসবিহীন গাড়ি এবং লাইসেন্সবিহীন গাড়িকে সড়কে চলাচল করতে দেওয়া হচ্ছে না। ট্রাফিক বিভাগের সদস্যরা নগরের হুমায়ুন রশীদ চত্বর ও কদমতলী টার্মিনাল এলাকায় নিয়মিত কাজ করছে বলেও পুলিশের এই মুখপাত্র পূর্বপশ্চিমকে জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, সব মিলিয়ে আমরা নিরাপত্তা ব্যবস্থায় সব ধরণের কাজ করছি।

এছাড়াও নগরের মার্কেট ও শপিংমলের পাশাপাশি নগরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে নিয়মিত টহল ও গোয়েন্দা কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে বলে পুলিশের এই কর্মকর্তা।

এদিকে, ঈদবাজারকে কেন্দ্র করে বিশেষ ব্যবস্থা হাতে নিয়েছে সিলেট মহানগর পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ। নগরের বিভিন্ন শপিং মহলের সামনে যানজট নিরসনে কাজ করছে ট্রাফিক পুলিশ। এমনটাই পূর্বপশ্চিমকে জানিয়েছেন সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) নিকুলিন চাকমা।

পিপিবিড/জিএম

পবিত্র ঈদুল ফিতর,আইনশৃঙ্খলা বাহিনী,সিলেট অঞ্চল,মার্কেট-শপিংমল
apps

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত