Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • রোববার, ১৬ জুন ২০১৯, ২ আষাঢ় ১৪২৬
  • ||

নারী আইনজীবীর দাফন সম্পন্ন, মামলা হয়নি

প্রকাশ:  ২৭ মে ২০১৯, ২২:১৮ | আপডেট : ২৭ মে ২০১৯, ২২:২৪
মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:
প্রিন্ট icon

মৌলভীবাজারের বড়লেখায় বাবার বাড়িতে খুন হওয়া আইনজীবী আবিদা সুলতানার (৩৫) দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

সোমবার (২৭ মে) রাত সাতটায় স্থানীয় মসজিদ প্রঙ্গনে জানাজা শেষে লাশ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। এর আগে ময়না তদন্ত শেষে আবিদার মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করে পুলিশ।

এদিকে, কী কারণে আবিদাকে খুন করা হয়েছে, তা এখনো জানা যায়নি। তবে পুলিশ বলছে, খুনের রহস্য উদঘাটনের জন্য তারা কাজ করছেন। যদিও এ ঘটনায় এখনো পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা হয়নি। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে আবিদার পৈতৃক বাড়িতে ভাড়াটিয়া হিসেবে থাকা ইমাম তানভীর আহমদকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার দুপুরে শ্রীমঙ্গল উপজেলার কালাপুর ইউপির বরুনা এলাকা থেকে তানভীরকে আটক করা হয়। এর আগে তানভীরের মা ও স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়।

বড়লেখা থানার ওসি মো. ইয়াছিনুল হক বলেন, ঘটনার পর আবিদার বাড়িতে থাকা ভাড়াটিয়া ইমাম তানভীর পালিয়ে গিয়েছিল। শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশের সহায়তায় তাকে আটক করা হয়। তানভীরকে জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার রহস্য বের হয়ে আসবে। এই ঘটনায় তানভীরের মা ও স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হয়নি।

অন্যদিকে, নারী আইনজীবী আবিদা সুলতানা খুনের ঘটনার প্রতিবাদে মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল এবং কর্মবিরতি পালন করেছেন মৌলভীবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্যরা। বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী সভায় জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এসএম আজাদুর রহমান আজাদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলাম চৌধুরীর সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন বারের সাবেক সভাপতি শান্তি পদ ঘোষ, রমাকান্ত দাস গুপ্ত প্রমুখ। এছাড়া সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, রোববার রাত আনুমানিক আড়াইটার দিকে উপজেলার দক্ষিণভাগ উত্তর ইউপির মাধবগুল গ্রামের পৈতৃক বাড়ি থেকে আইনজীবী আবিদা সুলতানার (৩৫) লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। রোববার বেলা বারোটা থেকে সন্ধ্যা ছয়টার যেকোনো সময় তাঁকে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। নিহত আবিদা উপজেলার দক্ষিণভাগ উত্তর ইউপির মাধবগুল গ্রামের মৃত আব্দুল কাইয়ুমের মেয়ে।

খবর পেয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ও বড়লেখা থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনার পর আবিদার পৈতৃক বাড়িতে থাকাভাড়াটিয়া তানভীর আহমদ (৩০) পলাতক ছিলেন। তিনি স্থানীয় একটি মসজিদে ইমামতি করতেন বলে জানা গেছে।

পিপিবিডি/জিএম

নারী আইনজীবী,খুন,মৌলভীবাজার,বড়লেখা উপজেলা
apps

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত