Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১ কার্তিক ১৪২৬
  • ||

তাবলীগ জামাতের দু’গ্রুপে হাতাহাতি

প্রকাশ:  ১৫ মে ২০১৯, ২০:৩২
টাঙ্গাইল প্রতিনিধি
প্রিন্ট icon

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে মসজিদে অবস্থান নিয়ে তাবলীগ জামাতের দু’গ্রুপে মধ্যে হাতাহাতি ও বেডিং আসবাবপত্র ফেলে দিয়ে মসজিদে তালা লাগানোর ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার (১৫ মে) সকালে উপজেলার বেতডোবা বায়তুল করিম কোর্ট জামে মসজিদে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় মুসল্লীরা জানান, বিশ্ব মারকাজ দিল্লি নিজামউদ্দিন (ছাদ) অনুসারী ও মাওলানা জুবায়ের হোসেন ওলামা পরিষদ অনুসারী দু’গ্রুপের মধ্যে মসজিদে অবস্থান করা নিয়ে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে দু’গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতি ও বেডিং আসবাবপত্র ফেলে দেয়ার ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। দুই গ্রুপের হাতাহাতির ঘটনায় কালিহাতীতে উত্তেজনা বিরাজ করে। পরে ছাদ গ্রুপের অনুসারীরা থানায় গোলঘরে অবস্থান নেয়।

বিশ্ব মারকাজ দিল্লি নিজামউদ্দিন ছাদ গ্রুপের অনুসারী হুমায়ন বাঙ্গাল জানান, মঙ্গলবার বিকালে বায়তুল করিম কোর্ট জামে মসজিদে প্রবেশ করার সময় দুষ্ট প্রকৃতির কয়েকজন বাঁধা দেয়। এসময় পুলিশ গিয়ে মসজিদে প্রবেশ করিয়ে আসে। বুধবার সকালে কয়েকজন লোক এসে আমাদের তাবলীগ জামাতে সাথীদের মারধর করে বেডিং ও আসবাবপত্র মসজিদ থেকে ফেলে দেয়।

মাওলানা জুবায়ের হোসেন অনুসারী ওলামা পরিষদের থানা সূরার সাথী মোখলেছুর রহমান মারধরের বিষয়ে অস্বীকার করে বলেন, ছাদ গ্রুপ মঙ্গলবার মসজিদে প্রবেশ করেন। পর্চায় কালিহাতী না থাকায় তাদের চলে যেতে বলা হয়। চলে যেতে অস্বীকার করায় তাদের বেডিং ও আসবাবপত্র বাহির করে দেয় স্থানীয় মুসল্লীরা।

কালিহাতী থানা ওসি মীর মোশারফ হোসেন জানান, দু’গ্রুপে মসজিদে থাকা নিয়ে তর্কবিতর্ক ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

কালিহাতী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অমিত দেবনাথ বলেন, ছাদ গ্রুপের জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ থাকায় বুধবার দুপুরে দু’গ্রুপকে ডেকে শান্তির লক্ষে মীমাংসা করে দিয়ে বিশ্ব মারকাজ দিল্লি নিজামউদ্দিন (ছাদ) অনুসারীদের ওই মসজিদে থাকার জন্য বলা হয়েছে।

পিবিডি/এআইএস

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত