• শনিবার, ০৬ জুন ২০২০, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
  • ||

গলাচিপায় সাইক্লোন শেল্টারে যেতে সাধারণ মানুষের অনীহা

প্রকাশ:  ০৩ মে ২০১৯, ১৭:১৯
পটুয়াখালী প্রতিনিধি

পটুয়াখালীর গলাচিপায় আশ্রায়ণ কেন্দ্রে যেতে সাধারণ মানুষের অনীহা দেখা গেছে। ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত প্রচার হলেও সাধারণ মানুষ তা নিয়ে অতোটা মাথা ঘামাচ্ছে না। প্রশাসন চেষ্টা করেও এখন পর্যন্ত সাইক্লোন শেল্টারে নিতে পারেনি সাধারণ মানুষকে। এর পরেও অব্যাহত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে প্রশাসন।

গলাচিপা পৌর এলাকার রিং বেড়িবাঁধের বাইরে বসতী জরিনা বেগম (৪৬) বলেন, রাইন্দা খাওয়া লাগে। পোলাপান লইয়া এহন যামু কই। বইন্যা আইলে হেই সময় যামু। আগে যাইয়া লাভ নাই।

একই এলাকার তাসলিমা বেগম (৫৫) বলেন, হালকা ম্যাগ করছে। এতে তেমন ক্ষতি অইবে না। বাতাস অইলে তহন যামু। এহন ম্যালা কাম আছে। পানি উঠতে আছে, বাড়ি ডুইব্বা যাইতে আছে-এ অবস্থায় কুম্মে যামু।

এদিকে গলাচিপা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘বৃহস্পতিবার থেকেই উপজেলার ১০৫টি আশ্রায়ন শেল্টার জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত রাখা হয়েছে। প্রত্যন্ত এলাকাগুলোতে ঝড়ের পূর্ভাবাস প্রচার করা হচ্ছে। এছাড়া ১২টি ইউনিয়নের জন্য ১২টি মেডিকেল টিম ও ভ্রাম্যমাণ পাঁচটি মেডিকেল টিম প্রস্তুত রয়েছে। প্রতিটি আশ্রয়ণ কেন্দ্রে পুলিশ ও আনসার বাহিনী প্রস্তুত রাখা হয়েছে। যাতে কোন ধরণের বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি না হয়। এছাড়া সাধারণ মানুষের সমন্বয় গঠিত স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী প্রস্তুত রয়েছে। তারা বিভিন্ন জায়গায় কাজ করে যাচ্ছে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা তপন কুমার জানান, এক একটি সাইক্লোন শেল্টারে সাড়ে চারশ থেকে ছয়শ লোক আশ্রয় নিতে পারবে।এতে করে কমপক্ষে ৬০ হাজার মানুষ সাইক্লোন শেল্টারে আশ্রয় নিতে পারবে। আশ্রিতদের জন্য শুকনো খাবার প্রস্তুত রাখা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, সাধারণ মানুষকে আশ্রয় কেন্দ্রে যাওয়ার জন্য প্রচারসহ সব ধরণের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

এদিকে গলাচিপা পৌর মেয়র আহসানুল হক তুহিন বলেন, পৌর এলাকার ৫টি ওয়ার্ডের মানুষ ঝুঁকিতে রয়েছে। তাদেরকে নিরাপদে আশ্রয়কেন্দ্রে যাওয়ার জন্য সব ধরণের প্রস্তুতি নিয়ে রাখা হয়েছে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলরসহ স্বেচ্ছাসেবকরা কাজ করে যাচ্ছে। জানমালের নিরাপত্তার জন্য সাইক্লোনশেল্টার ছাড়াও শহরের বহুতল ভবনগুলো সাধারণ মানুষের আশ্রয়ের জন্য উন্মুক্ত করে রাখা হয়েছে। কিছু দিনমজুর শ্রেণির মানুষ আছে যারা নিজেদের ঘর-বাড়ি ছেড়ে সহজে আশ্রয় কেন্দ্রে যেতে চায় না। তাদেরকেও আশ্রায়ন কেন্দ্রে যাওয়ার জন্য বুঝানো হচ্ছে।

/পিপিবিডি/পি.এস

পটুয়াখালী,ঘূর্ণিঝড় ফণী
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
Latest news
close