• রোববার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
  • ||

জুভেন্টাসেও প্রমাণ করব আমিই শ্রেষ্ঠ

প্রকাশ:  ১৭ জুলাই ২০১৮, ১১:৪০
স্পোর্টস ডেস্ক

গ্রিসে পরিবারের সঙ্গে ছুটি কাটিয়ে চব্বিশ ঘণ্টা আগেই ব্যক্তিগত বিমানে তুরিন পৌঁছে গিয়েছিলেন রোনালদো। সোমবার সকালে ছাই রঙের চেক সুট পরে জুভেন্টাস স্টেডিয়ামে যখন পৌছন, তাঁকে দেখার জন্য অপেক্ষা করেছিলেন কয়েকশো সমর্থক। গাড়ি থেকে নেমেই এগিয়ে যান ভক্তদের সঙ্গে হাত মেলাতে। শুধু তাই নয়। ‘জুভ...জুভ...’ গান গেয়ে প্রথম দিনই চমকে দেন তাদের।

১০০ মিলিয়ন পাউন্ড (প্রায় ৯১১ কোটি) ট্রান্সফার ফি দিয়ে রিয়াল থেকে রোনালদোকে নিয়েছে জুভেন্টাস। কিন্তু কেন টানা নয় বছর খেলার পরে রিয়ালের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করলেন, তা নিয়ে এত দিন কোনও মন্তব্য করেননি সি আর সেভেন। সোমবার ডাক্তারি পরীক্ষার পরে মুখ খুললেন পাঁচটি ব্যালন ডি’ওর-এর মালিক। রোনালদোকে বলেছেন, ‘‘আমার নতুন করে প্রমাণ করার কিছু নেই। রেকর্ডই আমার যোগ্যতার প্রমাণ। আমিই যে বিশ্বের সেরা, এ বার ইটালিতে দেখাতে চাই।’’ তিনি যোগ করলেন, ‘‘আমার বয়সি অনেক ফুটবলারই চিন ও কাতারের ক্লাবে খেলছে। ওদের অসম্মান করছি না। কিন্তু আমি চ্যালেঞ্জ নিতে ভালবাসি বলেই জুভেন্টাস সই করলাম। এই কারণেই ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের মতো নিশ্চিত জায়গা ছেড়ে রিয়ালে গিয়েছিলাম। জুভেন্টাসেও এই কারণে খেলার সিদ্ধান্ত নিলাম।’’

গত মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে তুরিনেই জুভেন্টাসের বিরুদ্ধে রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে জোড়া গোল করেছিলেন রোনালদো। দ্বিতীয় লেগে জুভেন্টাস জিতলেও গোল পার্থক্যে ছিটকে যায়। কারণ, শেষ মুহূর্তে পেনাল্টি থেকে গোল করেছিলেন সি আর সেভেন। রিয়ালের টানা তিন বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের নেপথ্যে মূল কারিগর ছিলেন তিনি। রোনালদো বলছেন, ‘‘সহজ ছিল না রিয়াল ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া। কিন্তু আমার বন্ধুর পরামর্শ শুনেই জুভেন্টাসের চুক্তিতে সই করি।’’ তিনি যোগ করেছেন, ‘‘জুভেন্টাস ইটালির সেরা ক্লাব। বিশ্বেরও অন্যতম সেরা ক্লাব। জুভেন্টাসে খেলার সুযোগ পেয়ে আমি গর্বিত।’’ লা লিগায় লিওনেল মেসির সঙ্গে রোনালদোর দ্বৈরথই ছিল আকর্ষণের কেন্দ্র। কিন্তু এ বার তা দেখা যাবে না। সাংবাদিকেরা সেই প্রসঙ্গ তোলায় রোনালদোর জবাব, ‘‘সবাই নিজের ক্লাবের সাফল্যের জন্যই খেলে। মৌসুম শেষ হওয়ার পরেই প্রমাণ হয় কে শ্রেষ্ঠ।’’

/এস কে

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত