• বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯
  • ||

বিশ্বকাপের খরচ বাংলাদেশের তিন বছরের বাজেটের সমান

প্রকাশ:  ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৯:১১
নিজস্ব প্রতিবেদক

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ফিফা বিশ্বকাপ ফুটবল । ৩২টি দেশের অংশগ্রহনে মাস ব্যপী ৬৪ টি টান টান উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচের মাধ্যমে এর বিজয়ী নির্ধারণ করা হয় । ২০২২ সালের এই আসর ফিফার ২২তম বিশ্বকাপ । ২০২২ সালের ফুটবল বিশ্বকাপ আয়োজক দেশ কাতার । কাতারের ৫টি শহরের ৮টি মাঠে এ আসরের খেলা গুলো অনুষ্ঠিত হবে । বিশ্বকাপ এর ইতিহাসে নানা কারনে এই আসরটি হতে যাচ্ছে খানিকটা ভিন্ন। দীর্ঘ প্রস্তুতি ও জমকালো উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আয়োজক দেশ হিসেবে মধ্যপ্রাচ্যের আয়াতনে ছোটে এই দেশটি ছাড়িয়েগেছে আগের দেশগুলোকে।

বিশ্বকাপকে ঘিরে অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে মরিয়া কাতার সরকার। সেই সঙ্গে খেলা দেখতে যাওয়া বিভিন্ন দেশের ফুটবল প্রেমিদের টানার চেষ্টা চালাচ্ছে তার প্রতিবেশি অন্যান্য দেশও । এতে করে কাতার ছাড়া ও সমৃদ্ধ হবে উপসাগরীয় অঞ্চলের অর্থনীতি । তবে প্রশ্ন হচ্ছে এত বড় আসরের আয়োজন করে কতটা লাভভান হচ্ছে কাতার? চলছে এর পুঙ্খানুপুঙ্খন হিসেব নিকাশ । বিশ্বকাপ কে ঘিরে প্রায় ১৫ লাখ মানুষের সমাগম আশা করা হয়েছে । তাই এই সময়টা অর্থনতৈকিভাবে লাভবান হওয়ার আশা করছে দেশটি। দেশটির দাবি এটি হবে পৃথিবীর সফল বিশ্বকাপের একটি । কাতার বিশ্বকাপ এখন পর্যন্ত সবচেয়ে ব্যয়বহুল বিশ্বকাপ । প্রায় ২০০ বিলিয়ন ডলার খরচ হয়েছে যা বাংলাদেশের তিন বছরের বাজেটের সমান। এত টাকা খরচের কারণ বিশ্বকাপে ব্যবহৃত ৮টি স্টেডিয়াম এর মধ্যে সাতটি নতুন করে করা হয়েছে । বাকি ১টি স্টেডিয়াম এমন ভাবে সংস্কার করা হয়েছে যা নতুন করে নির্মাণের চেয়ে কোন অংশে কম নয় ।

সম্পর্কিত খবর

    কাতার বিশ্বকাপ ইতিহাসের প্রথম শীতকালীন আসর । সাধারণত বিশ্বকাপ আয়োজন করা হয় জুন জুলাই মাসে কিন্তু সে সময় কাতারের তাপমাত্রা থাকে প্রায় ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এই প্রচণ্ড গরম আবহওয়া ফুটবল এর মত পরিশ্রম সাধ্য খেলা আয়োজন করা মোটেও উপযোগী নয় । তাই শীতকালে এর আয়োজন করা হয়েছে । শীতকালে এই আসরের আয়োজন করা হলেও কাতারে এখন তাপমাত্রা ২০থেকে ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস । তাই তাদের সব গুলো স্টেডিয়ামই শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত । কাতার বিশ্বকাপে সর্বপ্রথম শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত স্টেডিয়ামের আয়োজন করা হয়েছে। দর্শক গ্যালারির জন্য সম্পূর্ণ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ব্যবস্থা এবং মাঠে খেলোয়াড়দের জন্য আরাম দায়ক তাপমাত্রার ব্যবস্থা করা হয়েছে । আয়োজকদের দিক থেকে এটি যেমন ব্যায়বহুল বিশ্বকাপ, দর্শকদের দিক থেকেও কাতার বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে অনেক বেশি খরচ সাপেক্ষ । কারন ব্রান্ড নিউ স্টেডিয়ামে খেলা দেখতে অনেক বেশি দামে টিকেট কাটতে হবে । উদ্বোধনী ম্যাচ এর টিকেট এর মূল্য ছিল প্রায় ৪০ হাজার টাকা ।

    ধারণা করা হচ্ছে কাতার বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি দর্শক সমাগম হবে । যাতায়াতে সহজ হবার কারণে প্রায় ১০ লক্ষ ফুটবল প্রেমী কাতার বিশ্বকাপে হাজির হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে । এই আয়োজন এ কাতার ও প্রতিবেশী দেশগুলোর পর্যটনের পাশাপাশি চাঙ্গা হয়ে উঠবে বিমান খাতও। জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে ২০ নভেম্বর পর্দা উঠেছে কাতার ফুটবল বিশ্বকাপের। আর ফাইনাল খেলার মধ্য দিয়ে ১৮ ডিসেম্বর শেষ হবে এবারের বহুল আলোচিত-সমালোচিত এই আসর ।

    মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
    • সর্বশেষ
    • সর্বাধিক পঠিত
    close