• শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
  • ||

তিউনিসিয়াকে উড়িয়ে দিলো ব্রাজিল

প্রকাশ:  ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:৪২
স্পোর্টস ডেস্ক

কাতার বিশ্বকাপের আগে প্রস্তুতিটা দুর্দান্ত হলো ব্রাজিলের। দাপুটে পারফরম্যান্সে ঘানার পর আফ্রিকার আরেক দেশ তিউনিসিয়াকে ৫-১ গোলে উড়িয়ে দিলো রাফিনহা-নেইমাররা।

মঙ্গলবার রাতে প্যারিসের পার্ক দে প্রিন্সেসে রেকর্ড পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের পক্ষে জোড়া গোল করেন রাফিনহা। একবার করে নিশানা ভেদ করেন রিচার্লিসন, নেইমার ও পেদ্রো। তিউনিসিয়ার হয়ে ব্যবধান কমান মনতাসার তালবি।

ম্যাচের ১১ মিনিটেই দলকে লিড এনে দেন রাফিনহা। মাঝমাঠ থেকে উঁচু করে বল এগিয়ে দিয়েছিলেন রিয়াল মাদ্রিদের ডিফেন্ডার ক্যাসেমিরো। লাফিয়ে ওঠা হেডে সেটিকে জালে পাঠান বার্সেলোনার তারকা রাফিনহা। ক্লাবে চির প্রতিদ্বন্দ্বী হলেও দেশের হয়ে এক থাকার বার্তাই যেন দেন ক্যাসেমিরো-রাফিনহা।

এই লিড অবশ্য বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি ব্রাজিল। ম্যাচের ১৮ মিনিটে সতীর্থে ফ্রি-কিকে হেড করে স্কোরলাইনে সমতা আনেন তালবি। তবে ফের এগিয়ে যেতেও সময় লাগেনি নেইমারদের। এক মিনিট পরই রাফিনহার পাস ধরে ফের দলকে এগিয়ে দেন রিচার্লিসন। এর মিনিট দশেকের মধ্যে ফের গোলের সুবর্ণ সুযোগ পেয়ে যায় ব্রাজিল। ডি-বক্সের মধ্যে ক্যাসেমিরোকে পেছন থেকে টেনে ফেলে দেন তিউনিশিয়ার ডিফেন্ডার। পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। সফল স্পট কিকে গোল করেন নেইমার। জাতীয় দলের হয়ে এটি তার ৭৫তম গোল।

বিরতির আগে ৪০ মিনিটে গিয়ে স্কোরলাইন ৪-১ করেন রাফিনহা। প্রথমার্ধেই চার গোল হজম করা তিউনিশিয়ার জন্য আরো বড় ধাক্কা হয়ে আসে ৪২ মিনিটের সময় ডাইলান ব্রনের লাল কার্ড। এসময় হওয়া মারামারিতে অবশ্য রিচার্লিসনও দেখেন হলুদ কার্ড।

দ্বিতীয়ার্ধের পুরোটা সময় দশজন নিয়েই খেলতে হয় তিউনিশিয়াকে। তবু সেই সুযোগ তেমন কাজে লাগাতে পারেনি ব্রাজিল। দ্বিতীয়ার্ধে তারা করতে পেরেছে মাত্র একটি গোল। ম্যাচের ৭৪ মিনিটে বদলি হিসেবে নামা পেদ্রো দলের পঞ্চম ও শেষ গোলটি করেন।

এবার ফিফা আন্তর্জাতিক বিরতির প্রথম ম্যাচে ঘানাকে ৩-০ হারিয়েছিলো ব্রাজিল। তিউনিশিয়াকেও হারিয়ে টানা সপ্তম জয় নিয়েই বিশ্বকাপের প্রস্তুতি সারলো পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। তবে সবমিলিয়ে টানা ১৫ ম্যাচ ধরে অপরাজিত রয়েছে তিতের দল।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএম

ব্রাজিল,তিউনিসিয়া,কাতার বিশ্বকাপ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close