• শনিবার, ২২ জানুয়ারি ২০২২, ৮ মাঘ ১৪২৮
  • ||

নির্বিষ বোলিং, হতাশাময় দিন পার করলো বাংলাদেশ

প্রকাশ:  ২৭ নভেম্বর ২০২১, ১৭:২৪
স্পোর্টস ডেস্ক

বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসে ভালো সংগ্রহ পাওয়ার স্বস্তি উবে গেলো দিনশেষে। স্বাগতিক বোলারদের নির্বিষ বোলিংয়ের সুযোগ নিয়ে দুই পাকিস্তানি ওপেনার রীতিমত হেসেখেলে ব্যাটিং করলেন, নির্বিঘ্নে পার করলেন দ্বিতীয় দিন। ইতোমধ্যে অর্ধশতক তুলে নিয়েছেন অভিজ্ঞ আবিদ আলী। ৮৪ বলে ৬ চার ও ১ ছয়ের মারে ক্যারিয়ারের তৃতীয় ফিফটির দেখা পান এই ব্যাটসম্যান। অন্যদিকে তার সঙ্গী অভিষিক্ত আবদুল্লাহ শফিক খেলছেন দুর্দান্ত।

চট্টগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষে নিজেদের প্রথম ইনিংসে পাকিস্তানের সংগ্রহ বিনা উইকেটে ১৪৫ রান। অপরাজিত থাকা দুই ওপেনারের মধ্যে আবিদ আলী করেছেন ৯৩ রান, সঙ্গী শফিক ব্যাট করছিলেন ৫২ রানে। বাংলাদেশের চেয়ে ১৮৫ রানে পিছিয়ে থেকে তৃতীয় দিন ব্যাট করবেন তারা।

সম্পর্কিত খবর

    শুরুটা ধীরগতির হলেও রান তোলার গতি বাড়িয়েছেন দুই পাকিস্তানি ওপেনার। এরইমধ্যে ক্যারিয়ারের তৃতীয় টেস্ট ফিফটির দেখা পেয়েছেন আবিদ আলী। ৮৪ বলে ফিফটি করার পথে তিনি হাঁকিয়েছেন ৬টি চার ও ১টি ছক্কা। তবে ব্যক্তিগত ৯ রানে শফিক এলবিডাব্লিউ হলেও আম্পায়ার দেননি। বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হকও রিভিউ নেননি! পরে এই জুটিই ১৪০ ছাড়িয়ে যায়। আবিদের পর ফিফটির দেখা পান শফিকও।

    এর আগে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ইনিংসে ৩৩০ রানে অলআউট হয়েছে বাংলাদেশ। ১১৪.৪ ওভারে এই সংগ্রহ পায় স্বাগতিকরা।

    শনিবার (২৭ নভেম্বর) প্রথম দিনে সাদা পোশাকে অভিষেক সেঞ্চুরি হাঁকানো লিটন দাস এদিন দ্বিতীয় ওভারেই ফিরে যান। হাসান আলীর বলে এলবির আবেদন উঠলে আম্পায়ার সম্মতি দেননি। তবে রিভিউ নিয়ে ঠিকই লিটনের বিদায় নিশ্চিত করে পাকিস্তান। ডানহাতি এই ব্যাটার ২৩৩ বল খেলে ১১টি চার ও একটি ছক্কায় ১১৪ রানে আউট হন। পঞ্চম উইকেট জুটিতে লিটন ও মুশফিক ৪২৫ বলে ২০৬ রান তোলেন।

    এরপর দ্রুতই ফিরে যান অভিষিক্ত ইয়াসির আলী। হাসান আলীর বলে বোল্ড হওয়া এই ব্যাটার ৪ রান করেন। তবে 'নড়বড়ে নব্বইয়ে' মুশফিক বিদায় নিলে অস্বস্তিতে পড়ে বাংলাদেশ। ফাহিম আশরাফের বলে উইকেটরক্ষক মোহাম্মদ রিজওয়ানের কাছে ক্যাচ দেন মুশি। অভিজ্ঞ এই ব্যাটার ২৩৩ বলে ১১টি চারে ৯১ রান করেন। দলীয় ৩০০ রানের পর তাইজুল ইসলাম আউট হন। শাহিন শাহ আফ্রিদির বলে আব্দুল্লাহ শফিককে ক্যাচ দেন তিনি। ২৮ বলে ১১ রান করেন এই বাঁহাতি।

    বাংলাদেশের শেষ দুই ব্যাটার আবু জায়েদ রাহি (৮) ও এবাদত হোসেনকে (০) বিদায় করে পাঁচ উইকেট পূর্ণ করেন হাসান আলী। ডানহাতি এই পেসারের এটি টেস্ট ক্যারিয়ারে ষষ্ঠবার পাঁচ উইকেট দখল। অন্যপ্রান্তে মেহেদী হাসান মিরাজ ৬৮ বলে ৬টি চারে ৩৮ রানে অপরাজিত থাকেন। পাকিস্তান বোলারদের মধ্যে হাসানের ৫ উইকেট ছাড়াও শাহিন আফ্রিদি ও ফাহিম আশরাফ দুটি করে উইকেট তুলে নেন। সাজিদ খান নেন একটি।

    এর আগে লিটন ও মুশফিকুর রহিমের দুর্দান্ত জুটিতে ভর করে প্রথম দিন শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে ২৫৩ রানের সংগ্রহ পায় বাংলাদেশ। আলোক স্বল্পতায় ৮৫ ওভারেই প্রথম দিনের খেলা শেষ হলে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন মুশফিক ও লিটন। ২২৫ বলে ১১৩ রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন লিটন এবং মুশফিক ৮২।

    পূর্বপশ্চিমবিডি/অ-ভি

    মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
    • সর্বশেষ
    • সর্বাধিক পঠিত
    close