• বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২ ফাল্গুন ১৪২৭
  • ||

‘ক্রিকেটারদের জাতীয় দলের ম্যাচের ব্যাপারে জোর করা হবে না’

প্রকাশ:  ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৭:৪৪ | আপডেট : ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২০:৪১
স্পোর্টস ডেস্ক

ক্রিকেটারদের জাতীয় দলের ম্যাচের ব্যাপারে জোর করা হবে না বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)’র সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

নাজমুল হাসান পাপন বলেন, এখন থেকে কোনো ক্রিকেটারকে জাতীয় দলের ম্যাচের ব্যাপারে জোর করা হবে না। চাইলে সে সেসময় অন্য কোথাও খেলতে পারে।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আসন্ন দুই টেস্ট সিরিজে খেলবেন না সাকিব এমনটি নিশ্চিত করেছিলেন বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন চেয়ারম্যান আকরাম খান। আইপিএলের ২০২১ মৌসুমে খেলার জন্য এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। সাকিবের এই ছুটি মঞ্জুর হয়েছে বলেও জানায় বোর্ড।

ফিটনেস প্রমাণের পর এপ্রিলে লঙ্কানদের বিপক্ষে টেস্টের আগে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের জন্য ৩৩ বছর বয়সী অলরাউন্ডারকে দলে আশা করা হয়েছিলো।

এ নিয়ে এক প্রশ্নে বিসিবি সভাপতি বলেন, সাকিবের ব্যাপারে আমরা বিব্রত ঠিক না, তবে আমাদের মন খারাপ। আমরা ভেবেছিলাম ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বাজে খেলার পর ক্রিকেটাররা আরো ঝাপিয়ে পড়বে।

ভবিষ্যতের কথা ভেবে নতুন একটি সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন বোর্ড কর্তারা। পাপন জানান, সামনে নতুন এক চুক্তিতে নিয়ে আসা হবে ক্রিকেটারদের। সেই চুক্তিতে স্পষ্ট লেখা থাকবে, কে কোন ফরমেটে খেলতে আগ্রহী, জাতীয় দল ফেলে কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে খেলতে যেতে চাইবেন কি না-এমন নানা বিষয়।

বিসিবি সভাপতি জানান, যদি কেউ টেস্ট বা কোনো ফরমেট খেলতে না চায়, তবে আগেভাগেই জানিয়ে দিতে হবে। সেটা হলে ওই বলের চুক্তিতে তাকে রাখাই হবে না। আর যদি কোনো ক্রিকেটার দেশের খেলাকে প্রাধান্য দেবেন, এই চুক্তিতে সই করেন, তবে তাকে ছাড়াও হবে না।

পাপন বলেন, আমরা আজ এই ব্যাপারে আলোচনা করেছি যে, ওদের (জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের) সাথে একটা চুক্তি তৈরি করবো। ওই চুক্তিতে আরো নতুন কিছু জিনিস যুক্ত হবে। ওখানে পরিষ্কারভাবে লেখা থাকবে, যে কে কোন ফরম্যাট খেলতে চায়, তাদেরকে বলতে হবে। এটাও জানতে হবে, তাদের যদি ওই সময়ে অন্য কোনো খেলা থাকে, তাহলে সেখানে খেলবে নাকি দেশের হয়ে খেলবে? এই চুক্তিতে যারা সই করবে, তাদের আমরা যেতে দিবো না।

তিনি যোগ করেন, এখন ব্যাপারটা ওপেন। আগে এটা ছিলো ব্যক্তির ওপরে, এখন আমরা কাগজে-কলমে লিখিত নিয়ে নিবো। কারো বলার কিছু থাকবে না যে, খেলতে দিলো না কিংবা জোর করে যাচ্ছে। এসব বলার কিছু থাকবে না। যে খেলবে না, সে খেলবে না।

এ নিয়ে আসন্ন দু’টি আন্তর্জাতিক সিরিজে দেখা যাবে না সাকিবকে। এর আগে পিতৃত্বকালীন ছুটি নেওয়ায় নিউজিল্যান্ড সফরে থেকেও নিজেকে সরিয়ে নেন তিনি। কিউইদের বিপক্ষে ফেব্রুয়ারি-মার্চে ওয়ানডে সিরিজ খেলবে টাইগাররা।

নিষেধাজ্ঞার পর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ঘরের মাটিতে সিরিজ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরেন সাকিব। তবে প্রথম টেস্টেই উরুর চোটে পড়েন তিনি। যার ফলে সিরিজ থেকেই ছিটকে যান এই তারকা অলরাউন্ডার। তবে এর আগে ফিরেই ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে বাংলাদেশকে ওয়ানডে সিরিজ জেতান সাকিব।

গত বছরই শ্রীলঙ্কা সফরে যাওয়ার কথা ছিলো টাইগারদের। কিন্তু কয়েকবার চেষ্টা সত্ত্বেও করোনাভাইরাসের কারণে তা স্থগিত করা হয়। এখন স্থগিত হওয়া সেই সফরে এপ্রিলে যাওয়ার ব্যাপারে চিন্তা করছে বিসিবি।

আর এবারই প্রথমবার নয়, সাকিব টেস্ট সিরিজ থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন। ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে কাজের চাপ এড়াতে লাল বলের ক্রিকেট থেকে ৬ মাসের জন্য বিরতি নিয়েছিলেন তিনি।

প্রসঙ্গত, ভারতের চেন্নাইয়ে বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) অনুষ্ঠিত হয় ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ১৪তম আসরের নিলাম। নিলামে নিজের পুরোনো ঠিকানায় ফিরেছেন সাকিব আল হাসান। নিলামে টাইগার অলরাউন্ডারকে ৩ কোটি ২০ লাখ রুপিতে দলে ভিড়িয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স।

আইপিএলের নিলামে সাকিব প্রথম নাম লেখান ২০০৯ আসরে। সেবার কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি নেয়নি তাকে। ২০১১ আসরের আগে তাকে ৪ লাখ ২৫ হাজার ডলারে দলে নেয় কলকাতা নাইট রাইডার্স। ২০১৪ আইপিএলের আগে কলকাতা তাকে ধরে রাখে ২ কোটি ৮০ লাখ রুপিতে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/অ-ভি

জোর,দল,জাতীয়,ক্রিকেটার,ম্যাচ,বিসিবি,নাজমুল হাসান পাপন
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
cdbl
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close