• মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৫ ফাল্গুন ১৪২৬
  • ||

হামলা ঠেকাতে লাহোর পুলিশের অভিনব সফটওয়ার

প্রকাশ:  ২৩ জানুয়ারি ২০২০, ১২:০৩ | আপডেট : ২৩ জানুয়ারি ২০২০, ১২:৪৪
স্পোর্টস ডেস্ক
ফাইল ছবি

তিন ম্যাচের টি২০ সিরিজে অংশ নিতে বুধবার (২২ জানুয়ারি) মাঝরাতেই লাহোরে পা রাখে বাংলাদেশ দল। সেখান থেকে কঠোর নিরাপত্তায় বুলেট প্রুফ বাসে চড়ে টিম হোটেলে যায় তারা। টিম হোটেলের চারপাশও নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা। তবু যেন স্বস্তি নেই। এবার প্রযুক্তির সর্বোচ্চ ব্যবহারও শুরু করেছে লাহোর পুলিশ।

পাকিস্তানের জনপ্রিয় দৈনিক ‘দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন’ এক প্রতিবেদনের জানিয়েছে, অনেক আগে থেকেই চালু হওয়া ক্রাইম ম্যাপিং সফটওয়ার পুনরায় সক্রিয় করেছে লাহোর পুলিশ। মূলত বাংলাদেশ আর পাকিস্তানের মধ্যকার গুরুত্বপূর্ণ সিরিজকে ঘিরে বাড়তি নিরাপত্তার অংশ হিসেবে এমন পদ্ধতি অবলম্বন করল দেশটির পুলিশ প্রশাসন।

সফটওয়ারটি যে কেনো ধরণের হামলা এবং অপরাধমূলক কার্যক্রম ঠেকাতে পুলিশকে সহায়তা করবে। ক্রাইম ম্যাপিং একটি আইটি বেইসড আধুনিক সফটওয়ার। যেটা ওয়েব এবং অ্যান্ড্রয়েডের সঙ্গে যুক্ত করে অপরাধীর তথ্য উপাত্ত ছবি এবং ঘটনার স্থান মুহূর্তেই পুলিশের কাছে পৌঁছে দেয়।

প্রথম তথ্য হিসেবে পুলিশ ওই অপরাধীর নাম্বার, ছবি এবং অন্যান্য বিষয়াদি পেয়ে যায়। যাতে করে দ্রুত আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ঘটনাস্থলে চলে যেতে পারেন এবং তৎক্ষণাৎ ‘জিও ট্যাগ’ এর মাধ্যমে অপরাধীকে শনাক্ত করতে পারে। এমনকি অপরাধীর বৃত্তান্ত পুলিশ কন্ট্রোল রুমের ড্যাসবোর্ডে চলে আসে।

লাহোরের ওপর জঙ্গিদের নজর অনেক আগে থেকেই। ইতিহাস ঐতিহ্যের দিক থেকে পাকিস্তানের এই শহরটি নানা কারণে বিখ্যাত। সেজন্য গত কয়েক বছরে এখানটায় অসংখ্যবার জঙ্গি হামলা হয়েছিল। যাতে হতাহত হয় বহু মানুষ, নিরাপত্তাকর্মী।

এমনকি ২০০৯ সালে এই লাহোরেই লংকান টিম বাসে হামলা করে সন্ত্রাসীরা। তাইতো এখন লাহোরকে নিয়ে খোদ পাকিস্তানও শঙ্কিত। আর কোনো কারণে যেন ওঁত পেতে থাকা জঙ্গিরা সুযোগ না পায় সেজন্য সব ধরণের নিরাপত্তা ব্যবস্থা হাতে নিয়ে তারা।

বিশেষ করে বাংলাদেশ দলের পাকিস্তান সফরকে কেন্দ্র করে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা। মোতায়েন করা হয়েছে প্রায় ১০ হাজারের বেশি পুলিশ এবং অন্যান্য আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। সেই সাথে গোয়েন্দা নজরদারিও জোরালো করা হয়। এমন তথ্যই জানাল দেশটির জনপ্রিয় দৈনিক ‘ডন’।

প্রসঙ্গত, আগামী ২৪, ২৫ ও ২৭ জানুয়ারি লাহোরে পাকিস্তানের বিপক্ষে তিনটি টি২০ খেলবে টাইগাররা। ওই সিরিজ খেলে দেশে ফিরে ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে টেস্ট খেলতে দল আবার যাবে পাকিস্তানে। ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচ হবে রাওয়ালপিণ্ডিতে।

বাংলাদেশের তৃতীয় দফার সফর এপ্রিলে। ৩ এপ্রিল করাচিতে একটি ওয়ানডে খেলবে দুই দল। তার পর একই শহরে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের আরেকটি টেস্ট ৫ এপ্রিল থেকে।


পূর্বপশ্চিমবিডি/জেআর

অভিনব সফটওয়ার,হামলা,লাহোর পুলিশ,বাংলাদেশ ক্রিকেট দল,পাকিস্তান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close