• শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
  • ||

ক্যারিয়ারের ১৮ বছর

ভালোবাসার আরেক নাম মাশরাফি

প্রকাশ:  ০৮ নভেম্বর ২০১৯, ১১:৩৩ | আপডেট : ০৮ নভেম্বর ২০১৯, ১১:৩৮
স্পোর্টস রিপোর্টার
ফাইল ছবি

৮ নভেম্বর। বাংলাদেশ ক্রিকেটের উজ্জ্বল এক দিন। সেদিন লাল-সবুজের জার্সিতে পথচলা শুরু হয় মাশরাফি বিন মর্তুজা নামের এক মহানায়কের। ২০০১ থেকে ২০১৯। আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের ১৮টি বছর পার করলেন এই টাইগার সুপারস্টার। দীর্ঘ পথ পরিক্রমায় তার সঙ্গী হয়েছে অসংখ্য আনন্দ-বেদনা।

বয়স তখন ১৮ ছুঁইছুঁই। ঢাকার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সাদা পোশাকে ২২ গজে প্রথম পা পড়ে মাশরাফির। পেসার মাশরাফির শুরুটা হয়েছিল ব্যাট হাতে। প্রথম দিন ৪৫ মিনিট ক্রিজে থেকে ২২ বল থেকে করেছিলেন ৮ রান। এরপর বল হাতে ১০৬ রানে তুলে নেন ৪টি উইকেট।

আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি মাশরাফিকে। দুর্বার গতিতে এগোতে থাকেন। ধীরে ধীরে জায়গা করে নেন ক্রিকেটপ্রেমীদের মনের মণিকোঠায়। ক্রিকেটের দুটি অধ্যায়ে নেই তার বিচরণ। তবুও রেখে গেছেন মনে রাখার মতো বিশেষ কিছু।

টেস্ট ক্যারিয়ার ৩৬টি ম্যাচ খেলেছেন মাশরাফি। নিয়েছেন ৭৮টি উইকেট। গড় ৪১.৫২, ইকনোমি রেট ৩.২৪ করে। রান করেছেন ৭৯৭। ওয়ানডে খেলেছেন ২১৭ ম্যাচ। উইকেট শিকার করেছেন ২৬৬টি। সেরা বোলিং ফিগার ২৬ রানে ৬ উইকেট। বিপরীতে রান করেছেন ১৭৮৬। আর টি-টুয়েন্টিতে ৫৪ ম্যাচ থেকে নিয়েছেন ৪২ উইকেট। রান ৩৭৭। পাশাপাশি ক্যাপ্টেন হিসেবেও তিনি সফল। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ জিতেছে বহু ঐতিহাসিক ম্যাচ।

১৯৮৩ সালের ৫ অক্টোবর নড়াইলে জন্মগ্রহণ করেন মাশরাফি। বাবা গোলাম মর্তুজা আর মায়ের নাম হামিদা মর্তুজা। মা-বাবা আদর করে কৌশিক নামে ডাকতেন মাশরাফিকে। ছোটবেলা থেকেই খেলাধুলার প্রতি টান ছিল তার। ফুটবল আর ব্যাডমিন্টন খেলতেই বেশি পছন্দ করতেন তিনি। তবে বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ক্রিকেটের প্রতিও ভালোবাসা জন্মে তার। এভাবেই হয়ে যান ‘নাম্বার ওয়ান’।


পূর্বপশ্চিমবিডি/জেআর

মাশরাফি,১৮ বছর,ক্রিকেট,অধিনায়ক,ভালোবাসার আরেক নাম মাশরাফি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত