Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬
  • ||

হোয়াইটওয়াশ হলো পাকিস্তান, ইতিহাস গড়লো শ্রীলঙ্কা

প্রকাশ:  ১০ অক্টোবর ২০১৯, ০০:৪৭
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রিন্ট icon

অপেক্ষাকৃত দুর্বল দল নিয়েও ইতিহাস গড়লো শ্রীলঙ্কা। প্রথমবারের মতো তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টিতে হোয়াইটওয়াশ করলো প্রতিপক্ষকে। টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ দল পাকিস্তানকে হারাল তাদেরই মাঠে।

বুধবার (৯ অক্টোবর) পাকিস্তানের লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে শ্রীলঙ্কা জিতেছে ১৩ রানে। আগে ব্যাট করে লঙ্কানদের করা ১৪৭ রানের জবাবে পাকিস্তান থামে ১৩৪ রানে।

এদিন টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই পাকিস্তানি দুর্ধর্ষ বোলিংয়ের মুখে পড়তে হয় লঙ্কানদের। তবু ওশাদা ফার্নান্দোর কল্যাণে তারা পায় ১৪৭ রানের লক্ষ্য।

পাকিস্তানের দারুণ বোলিংয়ে ৩০ রানের মধ্যেই প্রথমসারির তিন ব্যাটসম্যানকে হারায় শ্রীলঙ্কা। গুনাথিলাকা ৮, সামারাভিক্রমা ১২ এবং ভানুকা রাজাপাকষে আউট হন ৩ রান করে। ৫৮ রানের মাথায় ১৩ রান করে রানআউট হয়ে ফিরে যান অ্যাঞ্জেলো পেরেরা।

ওশাদা ফার্নান্দোই শুধুমাত্র পাকিস্তানি বোলারদের সামনে বুক চিতিয়ে লড়াই করতে সক্ষম হন। ৪৮ বলে তিনি অপরাজিত থাকেন ৭৮ রানে। ৮টি বাউন্ডারির সঙ্গে তিনি মারেন ৩টি ছক্কার মার।

দাসুন সানাকা ১২, মাধুশঙ্কা ১ এবং ওয়ানিদু হাসারাঙ্গা আউট হন ৬ রান করে। শেষ পর্যন্ত ৭ উইকেটে ১৪৭ রান করতে সক্ষম হয় লঙ্কান ব্যাটসম্যানরা। মোহাম্মদ আমির নেন ৩ উইকেট। ইমাদ ওয়াসিম এবং ওয়াহাব রিয়াজ নেন ১টি করে উইকেট।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ইনিংসের প্রথম বলেই গোল্ডেন ডাক পান ওপেনার ফখর জামান। দ্বিতীয় উইকেটে হারিস সোহেলকে সঙ্গে নিয়ে ৭৬ রানের জুটি গড়েন বাবর আজম। আগের দুই ম্যাচে ১৩ ও ৩ রানে আউট হওয়া পাকিস্তানের এ তারকা ব্যাটসম্যান ফেরেন ২৭ রানে। পঞ্চাশ ছোঁয়ার পর বেশি দূর যেতে পারেননি হারিস। ৫০ বলে ফিরেন ৫২ রান করে।

ম্যাচ জিততে শেষ ৫ ওভারে পাকিস্তানের দরকার ছিল ৫৪ রান। হাতে ৮ উইকেট থাকায় কাজটা ছিল না খুব একটা কঠিন। কিন্তু এরপরই টপাটপ পড়তে থাকে উইকেট। তারা নিয়মিত বিরতিতে আউট হলে ৬ উইকেটে ১৩৪ রানের থেমে যায় পাকিস্তান। ১৩ রানের ব্যবধানে জয় পায় শ্রীলংকা। পাকিস্তানের হয়ে সর্বোচ্চ ৫২ রান করেন হারিস সোহেল।

শ্রীলঙ্কার স্পিনার ভানিদু হাসারাঙ্গা ২১ রানে নেন ৩ উইকেট। দারুণ বোলিংয়ে জেতেন ম্যাচ ও সিরিজ সেরার পুরস্কার। পেসার লাহিরু কুমারা ২ উইকেট নেন ২৪ রানে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/অ-ভি

হোয়াইটওয়াশ,পাকিস্তান,শ্রীলঙ্কা,ইতিহাস,ক্রিকেট
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত