Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬
  • ||

সন্ধ্যায় মুখোমুখি কাতার-বাংলাদেশ

প্রকাশ:  ১০ অক্টোবর ২০১৯, ০০:২৬
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রিন্ট icon

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) ২০২২ বিশ্বকাপ ও ২০২৩ এশিয়ান কাপের বাছাইয়ের দ্বিতীয় রাউন্ডে শক্তিশালী কাতারের মুখোমুখি হবে আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ। সন্ধ্যা ৭টায় শুরু হওয়া ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে বিটিভি ও বাংলা টিভি।

দুই দল এ পর্যন্ত মুখোমুখি হয়েছে চারবার। এশিয়ান কাপের বাছাইয়ের সেই ১-১ ড্র বাংলাদেশের একমাত্র প্রাপ্তি। পরের তিন ম্যাচে যথাক্রমে ৪-০, ৪-১ ও ৩-০ গোলে হার। ২০০৬ সালের এশিয়ান কাপের বাছাইয়ের এক যুগেরও বেশি সময় পর ফের মুখোমুখি হচ্ছে দল দু’টি।

বাছাইয়ে আগামী বিশ্বকাপের স্বাগতিক কাতারের পথচলা শুরু দুর্দান্তভাবে; আফগানিস্তানকে ৬-০ ব্যবধানে উড়িয়ে। বাংলাদেশের শুরুটা আফগানিস্তানের কাছে ১-০ গোলে হেরে। অবশ্য নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ভারতের সঙ্গে কাতার ড্র করেছে নিজেদের মাঠে। হার দিয়ে বাছাই শুরু করা জীবন-জুয়েলদের আত্মবিশ্বাস বাড়াতে ভুটানের সঙ্গে দু’টি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। জিতেছে দু’টিতেই।

শক্তিতে বাংলাদেশের চেয়ে ঢের এগিয়ে থকলেও স্বাগতিদের ছোট করে দেখছেন না কাতার কোচ ফেলিক্স সানচেজ। আর জেমি ডে এবং জামাল ভূইয়া এই ম্যাচ থেকে রেখে দিতে চান অন্তত একটা পয়েন্ট। বিশ্বকাপ বাছাই ম্যাচের আগে প্রেস কনফারেন্সে বুধবার (৯ অক্টোবর) বাংলাদের জামাল ভূইয়া আর কাতারের আলি হাসান হাজির নিজ নিজ দলের শক্তির পক্ষে যুক্তি দেখাতে।

মাঠের লড়াইয়ের আগেই দু’দলের অবস্থা একেবারেই ভিন্ন মুখী। ভুটান ম্যাচের পর হোস্ট বাংলাদেশ ৬ দিন একাগ্র অনুশীন করেছে। কোচ জেমি ডে চেষ্টা করেছেন ছেলেদেলে ক্রুটি শুধরে শতভাগ প্রস্তুত করতে, যাতে জামালরা মেরুন শিবিরে কাপন ধরিয়ে দিতে পারেন।

অথচ কাতার এসেছে ম্যাচের একদিন আগে মধ্য রাতে। প্রতিপক্ষের সামার্থ্য নিয়ে চিন্তা তেমন নেই ওদের। তাই শুধু খেলার আগের দিন সন্ধ্যে বেলা, নিজেদের হালকা ঝালিয়েছেন। যদিও কাতার কোচ ফেলিক্স সানজেচ অমন কিছুর মন্তব্য করলেন না।

বাংলাদেশ প্রসঙ্গে কাতার কোচ ফেলিক্স সানচেজ বলেন, যেহেতু আমরা হোম টিমের বিপক্ষে খেলছি তাই তাদের নিয়ে অবস্যই আমরা সচেতন থাকবে। ভুটানের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে তারা যথেষ্ঠ ভাল খেলেছে। বাংলাদেশে কিছু ইংয়াং ফুটবলার আছে যারা চমৎকার ফুটবল খেলে। সব কিছু মাথায় নিয়েই খেলতে হবে।

বাংলাদেশের কোচ-ক্যাপ্টেন উভয়ই আত্মবিশ্বাসী। নিজেদের মাঠ, তাই দর্শক সমর্থনও থাকছে। শুধু পরিকল্পনার বাস্তবায়নটাই মূল লক্ষ্য।

জেমি ডে খেলোয়াড়দের সম্পর্কে বলেন, আমি ছেলেদের নিয়ে আত্মবিশ্বাসী। আমরা সব দিকে নিয়েই কাজ করেছি। যেহেতু আমাদের মাঠ তাই একটা পয়েন্ট অন্ত রেখে দিতে চাই। বাকি টুকু মাঠেই দেখা যাবে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/অ-ভি

সন্ধ্যায়,মুখোমুখি,কাতার-বাংলাদেশ,ফুটবল
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত