Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • রোববার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬
  • ||

দেশের হয়ে শেষবারের মতো সিরিজ জিততে চান মাসাকাদজা

প্রকাশ:  ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৭:৩৯
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রিন্ট icon

জিম্বাবুয়েকে কিছুদিন আগেই ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করেছে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। ক্রিকেট বোর্ডে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপের অভিযোগে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা দেয় আইসিসি। নিষিদ্ধ হলেও বাংলাদেশে আয়োজিত ত্রিদেশীয় টি-২০ সিরিজে অংশ নিতে বাংলাদেশে এসেছে হ্যামিল্টন মাসাকাদজার নেতৃত্বে জিম্বাবুয়ে দল।

নিষিদ্ধ হওয়ার পরে অনেক প্রতিকূলতা পার করে ত্রিদেশীয় সিরিজে অংশ নিতে এসেছে জিম্বাবুয়ে। দেশটির ক্রিকেট বোর্ডকে আইসিসি বরখাস্ত করার পর বেশ নাজুক অবস্থায় রয়েছে দলটি। সেদিক থেকে চিন্তা করলে জিম্বাবুয়ের ওপর চাপ থাকাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু সেই চাপকে পাত্তা না দিয়ে দেশের জন্য জয় তুলে নেওয়াতেই সব মনোযোগ দিতে চান দলটির অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা।

আগামী শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে জিম্বাবুয়ের ত্রিদেশীয় সিরিজ। ম্যাচের আগের দিন মিরপুরে অনুশীলন করে নিজেদের ঝালিয়ে নিয়েছে সফরকারীরা। এর আগে প্রস্তুতি ম্যাচে বিসিবি একাদশের বিপক্ষে জয়ও পেয়েছে তারা। তাই সিরিজ শুরুর আগে দলটি বেশ আত্মবিশ্বাসী।

সাম্প্রতিক ফর্ম ও অবস্থান বিবেচনায় জিম্বাবুয়ের চেয়ে অনেকটা এগিয়ে বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান। সে হিসেবে সিরিজের ‘আন্ডারডগ’ বলা যায় জিম্বাবুয়েকেই। কিন্তু দুই প্রতিপক্ষের শক্তিমত্তা নিয়ে সন্দেহ না থাকলেও নিজেদেরও খুব একটা পিছিয়ে রাখছেন না হ্যামিল্টন মাসাকাদজা।

বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক বলেন, ‘আফগানিস্তান দারুণ টি-টোয়েন্টি খেলছে। আর বাংলাদেশ খেলবে ঘরের মাটিতে। আমি বলব দুটো দলই শক্তিশালী। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে আমাদেরও সাফল্য আছে। আমার মনে হয় বাংলাদেশে (অতীতে) আমরা বেশ ভালো টি-টোয়েন্টি খেলেছি। অতএব আমার মনে হয় না যে আমরা অনেক পিছিয়ে থেকে টুর্নামেন্ট শুরু করবো।’

আইসিসি নিষিদ্ধ করার পরে প্রথম কোনো ম্যাচ খেলতে নামবে জিম্বাবুয়ে দল। তবে মাঠের বাইরের বিষয়ে দৃষ্টি না দিয়ে মাঠের ক্রিকেটেই মনোযোগী হতে চান মাসাকাদজা, ‘অবশ্যই অনেক ঘটনা ঘটে গেছে। এটা পর্দার আড়ালের ঘটনা। কিন্তু ক্রিকেট আমাদের পেশা। আমার জেনে দরকার নেই ওখানে কি হয়েছে। আমাদের প্রধান কাজ ক্রিকেট খেলা। এবং সেটা ভেবেই আগামীকাল থেকে দেশের জন্য আমাদের কাজটি শুরু করতে চাই।’ টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটটা সংক্ষিপ্ত বলেই জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক মনে করেন এই ফরম্যাটে যেকোনো দলকেই হারানো সম্ভব। তিনি জানান, ‘ম্যাচের ফরম্যাট যত ছোট হবে দলগুলোর ব্যবধান ততই কমে আসবে। টি-টোয়েন্টি খেলাটি এমন যে একাই ম্যাচটি টেনে নিতে পারে ও ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারে। এই রকম খেলোয়াড় আপনার দরকার যে একাই খেলাটি আপনার দিকে এনে দিতে পারে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/ এসএ

জিম্বাবুয়ে,মাসাকাদজা
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত