Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬
  • ||

মালিঙ্গাদের উপর ক্ষেপলেন শোয়েব আখতার

প্রকাশ:  ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৫:৫০
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রিন্ট icon

পাকিস্তানে ক্রিকেটে ফেরাতে মরিয়া পিসিবি (পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড)। বিভিন্ন দেশকে বিভিন্ন প্রলোভনে পাকিস্তানে নিয়ে গিয়ে খেলানোর চেষ্টার কোনো কমতি নেই পাকিস্তান ক্রিকেট কর্তাদের। তবুও কোনো হাই প্রোফাইল দলকে নিতে পারেনি পাকিস্তান। মাঝখানে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দলকে নিতে পেরেছিলো পিসিবি। ২০০৯ এর লাহোর হামলার পর থেকে একপ্রকার নিষিদ্ধ হয়ে আছে পাকিস্তান। তবে এবার আশায় ছিলো পিসিবি। শ্রীলঙ্কার হাত ধরে পাকিস্তানে ক্রিকেট ফেরার একটি সম্ভাবনা দেখা দিয়েছিলো। শ্রীলঙ্কা যাচ্ছে পাকিস্তানে তা নিশ্চিত। কিন্তু শ্রীলঙ্কার নিয়মিত খেলোয়াড়রা পাকিস্তান সফর থেকে নিজেদের নাম প্রত্যাহার করে নেয়ায় অনেকটা খর্ব শক্তির দল নিয়ে পাকিস্তানে যাবে লঙ্কানরা।

আসন্ন ওডিআই ও টি-২০ সিরিজ খেলতে পাকিস্তান সফর থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন ১০ লংকান ক্রিকেটার। এ তালিকায় আছেন দলটির নিয়মিত ওয়ানডে অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে ও টি-টোয়েন্টি দলনেতা লাসিথ মালিঙ্গা। তাদের এমন আচরণে হতাশ পাকিস্তানের সাবেক স্পিডস্টার শোয়েব আখতার।

রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে এ নিয়ে বিস্তর হতাশা প্রকাশ করেছেন। দুই টুইটবার্তায় শ্রীলংকার দুঃসময়ে পাকিস্তানের পাশে দাঁড়ানোর বিষয়টি স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন তিনি।

স্পিডস্টার শোয়েব আখতার তার প্রথম টুইটে লেখেন- পাকিস্তান সফর থেকে নিজেদের নাম সরিয়ে নিয়েছেন ১০ লংকান ক্রিকেটার। এতে আমি ভীষণ হতাশ। শ্রীলংকা ক্রিকেটকে সবসময় সহযোগিতা করেছে পাকিস্তান। কিছু দিন আগেই দেশটিতে প্রাণঘাতী সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। এর পরও সেখানে আমাদের অনূর্ধ্ব-১৯ দল পাঠানো হয়েছে। ন্যক্কারজনক আক্রমণের পর লংকায় সেটিই ছিল কোনো বিদেশি দলের সফর।

ঠিক এরপরেরই টুইটে তিনি লেখেন- ১৯৯৬ সালের বিশ্বকাপের পর শ্রীলংকা সফর প্রত্যাহার করে অস্ট্রেলিয়া-ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তখনও তাদের পাশে ছিল পাকিস্তান। সেই অবস্থায় ভারতের সঙ্গে মিলে সেখানে সম্মিলিত দল পাঠিয়েছিল পিসিবি। তারা একটি প্রীতি ম্যাচ খেলে এসেছিল। আমরা শ্রীলংকার কাছ থেকে আরও ভালো আচরণ প্রত্যাশা করেছিলাম। তাদের বোর্ড বন্ধুত্বপরায়ণ, ক্রিকেটারদেরও এমন হওয়া উচিত।

তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে চলতি মাসের শেষ দিকে পাকিস্তান সফরে যাওয়ার কথা শ্রীলংকার। এর আগে সন্ত্রাসী হামলার হুমকি পেয়েছেন লংকানরা। খেলতে গেলে সেখানে ফের 'ভয়াবহ' হামলার শিকার হতে পারেন তারা। যে কারণে ইতিমধ্যে আসন্ন সফর থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন ১০ সিনিয়র লংকান ক্রিকেটার।

তবে এখনই আশা ছেড়ে দিচ্ছে না এসএলসি। সিরিজ ঘিরে নতুন দুই অধিনায়ক নির্বাচিত করেছেন তারা। ওয়ানডে দলের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে লাহিরু থিরিমান্নেকে। আর টি-টোয়েন্টি দলের নেতৃত্ব পেয়েছেন দাসুন শানাকা। শিগগির অনুশীলন শুরু করবেন তারা।

পূর্বপশ্চিমবিডি/ এসএ

শোয়েব আখতার,মালিঙ্গা,শ্রীলঙ্কা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত