• বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল ২০২০, ২৬ চৈত্র ১৪২৬
  • ||

‘নাইটহুড’ উপাধি পাচ্ছেন স্ট্রস-বয়কট

প্রকাশ:  ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৭:০৩
স্পোর্টস ডেস্ক

ইংল্যান্ডের সাবেক দুই তারকা ক্রিকেটার অ্যান্ড্রু স্ট্রস ও জিওফ বয়কট ব্রিটেনের সম্মানসূচক নাইটহুড বা স্যার পদবিতে ভূষিত হচ্ছেন । ইংল্যান্ডের সদ্য পদত্যাগ করা প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে’র সুপারিশে এই সম্মান পাচ্ছেন তারা।

৭৮ বছর বয়সী বয়কট ইংলিশদের হয়ে ১৯৬৪ থেকে ১৯৮২ সাল পর্যন্ত ১০৮ টেস্ট খেলে ৮,১১৪ রান করেছেন। এছাড়া ১৯৭৮ সালে মাইক বেয়ারলির ইনজুরিতে চারটি ম্যাচে নেতৃ্ত্বও দিয়েছেন তিনি।

অন্যদিকে থ্রি-লায়ন্সদের দুটি অ্যাশেজ জিতিয়ে টেস্ট র‌্যাংকিংয়ের এক নাম্বারে নিয়ে যাওয়া স্ট্রস তার দলের ৫০ টেস্টে অধিনায়কত্ব করেছেন। আর জাতীয় দলের জার্সিতে ১০০ টেস্ট খেলা ৪২ বছর বয়সী এই তারকা ৪০.৯১ গড়ে ৭,০৩৭ রান করেছেন।

নিয়মানুযায়ী ইংল্যান্ডের প্রতিটি সাবেক হওয়া প্রধানমন্ত্রী নাইটহুডের একটি তালিকা দিতে পারেন। যা অনুমদোন দিতে হয় ক্যাবিনেট অফিসকে। যেখানে ক্রিকেট প্রেমী মে তার ৫৭ জনের তালিকাতে স্ট্রস ও বয়কটকে রেখেছেন।

প্রসঙ্গত, এর আগে ইংল্যান্ডের রানি কর্তৃক সম্মানসূচক নাইটহুডে ভূষিত হয়েছেন গত সেপ্টেম্বরে অবসর নেওয়া ইংলিশ ক্রিকেটার অ্যালিস্টার কুক। ইংলিশ ক্রিকেটে অসামান্য অবদানের জন্য নতুন বছরে ব্রিটেনের রানির দেওয়া নাইটহুড ‘অনার্স লিস্টে’ নাম ওঠে কুকের।

অ্যালিস্টার কুককে বলা হয় ইংল্যান্ডের রেকর্ড বয়। ইংলিশদের পক্ষে টেস্টে সর্বকালের সেরা রান সংগ্রাহক এই ওপেনিং ব্যাটসম্যান ১৬১ টেস্ট ম্যাচে ৩৩ সেঞ্চুরিতে করেন ১২৪৭২ রান। পাশাপাশি ইংলিশদের নেতৃত্ব দেন রেকর্ড ৫৯টি টেস্ট ম্যাচে। ২০০৬ সালে ভারতের বিপক্ষে অভিষেকে সেঞ্চুরি করা কুক ব্যক্তিগত শেষ টেস্ট ম্যাচেও ভারতের বিপক্ষে সেঞ্চুরি করে বিরল রেকর্ডের জন্ম দিয়ে বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ায়ের ইতি টানেন। শচীন, পন্টিং, ক্যালিস ও দ্রাবিড়ের পর টেস্ট ক্রিকেটের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকদের তালিকায় পঞ্চম স্থানে আছেন কুক।

প্রায় সাড়ে চার বছর ইংল্যান্ডের অধিনায়কত্ব করার পর ২০১৭ সালে জ্যো রুটের কাছে ইংলিশ আর্মব্যান্ড ছেড়ে দেন কুক। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সম্মানসূচক অ্যাশেজে মোট চারবার সিরিজ জয়ী ইংল্যান্ড দলের অংশ ছিলেন কুক।

পূর্বপশ্চিমবিডি/জিএম

ইংল্যান্ড,সাবেক দুই তারকা,ক্রিকেটার,সম্মানসূচক নাইটহুড
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close