• রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ২৮ চৈত্র ১৪২৭
  • ||

ভারতের পাহাড়সম রানের জবাব দিচ্ছে অজিরা

প্রকাশ:  ০৯ জুন ২০১৯, ২২:২২ | আপডেট : ০৯ জুন ২০১৯, ২২:৩৬
স্পোর্টস ডেস্ক

চলতি বিশ্বকাপের ১৪তম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার সামনে ৩৫৩ রানের পাহাড়সম টার্গেট দাঁড় করিয়ে দিয়েছে ভারত। বিশ্বকাপে এর আগে এত বড় লক্ষ্য কখনও তাড়া করেনি অস্ট্রেলিয়া। অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যানরা তাই হয়তো বেছে নিয়েছেন ধীরে চলার নীতি।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত দুই ওপেনারের উইকেট হারিয়ে ৩১ ওভারে ১৫৯ রান তুলেছে অস্ট্রেলিয়া।

প্রথম উইকেটটি হারাতে হয়েছে দুই ব্যাটসম্যানের ভুল বোঝাবুঝিতে। হার্দিক পান্ডিয়ার নিরীহ ধরনের একটি বল কভার অঞ্চলে ঠেলে দিয়ে দুই রানের জন্য দৌঁড়েছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার ও অ্যারন ফিঞ্চ। কিন্তু ওয়ার্নারের ডাকে সাড়া দিতে একটু দেরি করে ফেলেন অধিনায়ক ফিঞ্চ। বাউন্ডারি থেকে কেদার যাদবের থ্রোতে স্টাম্প ভেঙে ৬১ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন পান্ডিয়া।

আউট হওয়ার আগে অবশ্য বেশ আক্রমণাত্মকই ছিলেন ফিঞ্চ। অপর প্রান্তে ওয়ার্নারের গতি কিছুটা মন্থর ছিল বলেই কি না, রান বাড়ানোর দায়িত্বটা নিজের কাঁধে তুলে নেন অস্ট্রেলীয় অধিনায়ক। ৩ চার ও ১ ছয়ে ৩৫ বলে ৩৬ করে আউট হওয়ার আগে আত্মবিশ্বাসীই দেখাচ্ছিল ফিঞ্চকে। সাম্প্রতিক সময়ে নতুন বলে ইনসুইংয়ে তাঁর দুর্বলতা দেখা গেলেও আজ বড় ইনিংসের আশাই দেখাচ্ছিলেন ফিঞ্চ।

ফিঞ্চ ফিরলেও স্মিথকে সঙ্গে নিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে এগিয়ে নিচ্ছিলেন ওয়ার্নার। দলের পরিকল্পনা মেনেই কি না, সহজাত আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ের বদলে বেশ রয়েসয়ে খেলছিলেন ওয়ার্নার। ফিফটি করতে খেলেছেন ৭৬ বল, বাউন্ডারি মেরেছেন মাত্র ৫টি। তবে ডট বলগুলো পুষিয়ে দিয়ে যেতে পারেননি।

এরপর ২৫ তম ওভারে যুজবেন্দ্র চাহালকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে ভুবনেশ্বর কুমারকে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন ওয়ার্নার। করেন ৮৪ বলে ৫৬ রান।

রোববার (০৯ জুন) ইংল্যান্ডের রাজধানী লন্ডনের দ্য ওভাল স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ম্যাচটি শুরু হয় বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায়। সরাসরি সম্প্রচার করছে গাজী টিভি, মাছরাঙা চ্যানেল ও স্টার ওয়ান।

টস জিতে শুরুটা দুর্দান্ত করে ভারতের দুই ওপেনার রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ান। মিচেল স্টার্ক, প্যাট কামিন্সদের দিশেহারা করে ১৯ ওভারেই শতরানের জুটি গড়েন এই দুই ব্যাটসম্যান। এর মাঝে ধাওয়ান ৫৩ বলে তুলে নেন ক্যারিয়ারের ২৭তম অর্ধশতক।

শতরানের জুটি হওয়ার পরের দুই ওভার পরই ৬১ বলে নিজের ব্যক্তিগত ৪৭তম অর্ধশতক তুলে নেন রোহিত। তবে ফিফটি করার পর ইনিংসটা বড় করতে পারেননি আগের ম্যাচের এ সেঞ্চুরিয়ান। ইনিংসের ২৩ তম ওভারে নাথান কল্টার নাইলের বল রোহিতের ব্যাটের কানায় লাগলে ক্যাচ ধরতে ভুল করেননি অজি উইকেটকিপার অ্যালেক্স ক্যারে। ৭০ বলে ৩ চার ও এক ছয়ে ৫৭ রান করে আউট হন এই ব্যাটসম্যান।

রোহিতে যেখানে শেষ করেছিলেন সেখান থেকেই যেন শুরু করলেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি। দুর্দান্ত খেলতে থাকা ধাওয়ানকে যোগ্য সঙ্গ দেন তিনি। দুজন মিলে মাত্র ৩১ ওভারেই দলের সংগ্রহ দুইশতে নিয়ে যান।

প্রথম উইকেটের মতো এ উইকেটেও বড় সংগ্রহের দিকে এগুতে থাকে এ জুটি। এর মাঝেই ৯৬ বলে দারুণ এক সেঞ্চুরি তুলে নেন ধাওয়ান। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৭তম ও বিশ্বকাপ ক্যারিয়ারে তৃতীয় সেঞ্চুরিটি (এর আগের দুটি ২০১১ বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকা ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে) পেতে এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান খেলেছেন ৯৫ বল, বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন ১৩টি। ব্যক্তিগত ১১৭ রানে মিচেল স্টার্কের বলে ক্যাচ তুলে দিলে ১০৯ বলে ১৬টি চারে সাজানো ধাওয়ানের ইনিংসের ইতি ঘটে।

৩৯ ওভারে ২৩৬ রানের মাথায় দ্বিতীয় উইকেট হারানোর পর হার্দিক পান্ডিয়াকে নামিয়ে দেয় ভারত। যাতে করে তিনি দ্রুত গতিতে রান তুলতে পারেন। নামার সাথে সাথে সেই কাজটা করেও দেখিয়েছেন তিনি। তার ঝড়ো ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি অপর প্রান্তে ৫৩ বলে ফিফটি তুলে নেন কোহলি। এটি তার ক্যারিয়ারের ৫০তম অর্ধশতক।

দুজনের ৮১ রানের জুটিতে ৪৬ ওভারেই ৩০০ পার করে ফেলে ভারত। তার পরের বলেই কামিন্সের বলে ফিঞ্চের হাতে ক্যাচ দেন পান্ডিয়া। ২৭ বলে ৪ চার ও ৩ ছয়ে ৪৮ রানের ঝড়ো এক ইনিংস খেলেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

১৪ বলে ২৭ রানের ছোট ক্যামিও ইনিংস খেলেন ধোনি। ৩ চার ও ১ ছক্কায় সাজানো ইনিংসটির পাশাপাশি মাত্র ৩ বলে ১ ছক্কা ও চারে ১১ রানের ইনিংস খেলে দলকে ৩৫০ রানের কোটা পার করেন লোকেশ রাহুল।

অজি বোলারদের মধ্যে ২ উইকেট পেয়েছেন মারকাস স্টোয়েনিস। আর ১টি করে উইকেট পেয়েছেন প্যাট কামিন্স, স্টার্ক ও কোল্টার-নাইল।

পিপিবিডি/অ-ভি

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ,ভারত,অস্ট্রেলিয়া
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
cdbl
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close