Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০১৯, ১১ আষাঢ় ১৪২৬
  • ||

লঙ্কার কাছে ৩৪ রানে হারলো আফগানরা

প্রকাশ:  ০৫ জুন ২০১৯, ০০:৪৯ | আপডেট : ০৫ জুন ২০১৯, ০৫:১১
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রিন্ট icon

বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে বোলারদের নৈপুণ্যে বৃষ্টি আইনে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ৩৪ রানের জয় পেয়েছে শ্রীলঙ্কা।.সেই সঙ্গে বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম জয় তুলে নিল লঙ্কানরা। আর পর পর দুই ম্যাচে হার দেখলো আফগান ক্রিকেট দল।

এর আগে ৩৩ ওভারে বৃষ্টির কারণে শ্রীলঙ্কার ব্যাটিং ইনিংস থেমে যায়। অবশেষে প্রায় দুই ঘণ্টা পর ম্যাচ ফের শুরু হয়। তবে আফগানিস্তান ও শ্রীলঙ্কার জন্য ৪১ ওভার করে বেধে দেওয়া হয়। কিন্তু ৩৬.৫ ওভারে ২০১ রানে গুটিয়ে যায় লঙ্কানরা। যেখানে ডার্কওয়ার্থ-লুইস (বৃষ্টি আইন) পদ্ধতিতে আফগানরা ১৮৭ রানের টার্গেট পায়।

১৮৭ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে ৪.৪ ওভারে উদ্বোধনী জুটিতে ৩৪ রান তুলে আফগানিস্তানের দুই ওপেনার হজরউল্লাহ জাজাই ও মোহাম্মদ শাহাজাদ। তবে এরপরেই ম্যাচে ফেলে শ্রীলঙ্কা। নিয়মিত বিরতিতে তুলে নেয় শাহাজাদ, জাজাই, রহমত শাহ, হাসমতউল্লাহ শহিদী ও মোহাম্মদ নবীকে। এদের মধ্যে জাজাই ২৫ বলে সর্বোচ্চ ৩০ রান করেন।

আফগান অধিনায়ক গুলবাদিন নাঈবকে ব্যক্তিগত ২৩ রানে এলবির ফাঁদে ফেলেন প্রদীপ। পরে রশিদ খানকে (২) ফিরিয়ে নিজের চতুর্থ উইকেট তুলে নেন এই বোলার। আর দাওলাত জাদরানকে ৬ রানে বোল্ড করে শ্রীলঙ্কাকে ম্যাচে ফেরান লাসিথ মালিঙ্গা।

দলীয় সর্বোচ্চ ৪৩ রান করা নাজিবুল্লাহ জাদরান শেষ দিকে রান আউটের শিকার হলে ম্যাচ পুরোপুরি শ্রীলঙ্কার দিকে ঘুরে যায়। আর হামিদ হাসানকে বোল্ড করে আফগানদের জয়ের স্বপ্নকে মাটিতে নামান মালিঙ্গা।

শ্রীলংকার পক্ষে প্রদ্বীপ ৪টি, মালিঙ্গা ৩টি ও লাকমাল ২টি উইকেট পান।

মঙ্গলবার (০৪ জুন) কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেন্সে টস জিতে শ্রীলঙ্কাকে প্রথমে ব্যাটিং করার আমন্ত্রণ জানায় আফগান অধিনায়ক গুলবাদিন নাইব। ম্যাচটি শুরু হয় বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে ৩টায়। সরাসরি সম্প্রচার করে গাজী টিভি, মাছরাঙা এবং বিটিভি।

টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে ২১ ওভারেই ১ উইকেটে ১৪৪ রান তুলে ফেলেছিল শ্রীলঙ্কা। রানরেট ভালো ছিল। বড় সংগ্রহের পথেই এগোচ্ছে দল, ধরেই নিয়েছিলেন লঙ্কান সমর্থকরা।

কিন্তু ২২তম ওভারে এসে চমক দেখালেন মোহাম্মদ নবী। ওভারের দ্বিতীয় বলে সেট ব্যাটসম্যান লাহিরু থিরিমান্নেকে (২৫) ইনসাইড এজে বোল্ড করেন। চতুর্থ বলে কুশল মেন্ডিসকে (২) স্লিপে বানান ক্যাচ। এক বল বিরতি দিয়ে ওভারের শেষ ডেলিভারিতে একইভাবে স্লিপে ক্যাচ অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ (০)।

১ উইকেটে ১৪৪ রান তোলা শ্রীলঙ্কা পরিণত হয় ৪ উইকেটে ১৪৬ রানে। ২ রানেই হারায় ৩ উইকেট। এখানেই শেষ নয়। লঙ্কানদের সেই ধাক্কা কাটিয়ে উঠার সুযোগ না দিয়ে পরের ওভারে আঘাত হানেন পেসার হামিদ হাসান। এবার উইকেটরক্ষক মোহাম্মদ শাহজাদের ক্যাচ ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, রানের খাতা খোলার আগেই।

উজ্জীবিত আফগানদের সামনে চাপে পড়া শ্রীলঙ্কাকে উদ্ধার করতে পারেননি থিসারা পেরেরাও। লঙ্কান অলরাউন্ডারকে ব্যক্তিগত ২ রান এবং দলীয় ১৫৯ রানের মাথায় রান আউট করে সাজঘরে ফেরান উইকেটরক্ষক মোহাম্মদ শাহজাদ।

দলকে একপাশ আগলে রাখা কুশল পেরেরা রশিদ খানের বলে শেষ পর্যন্ত নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন। ৮১ বলে ৮টি চারের সাহায্যে ৭৮ করে মোহাম্মদ শাহাজাদকে ক্যাচ দেন। আর ইসুরু উদানাকে (১০) বোল্ড করেন দাওলাত জাদরান।

শেষ ২ উইকেটে আর ২১ রান যোগ করতে পেরেছে লঙ্কানরা। অপরাজিত থেকেই মাঠ ছাড়েন ১৩ বলে ১৫ রান করা সুরাঙ্গা লাকমল।

আফগানিস্তানের পক্ষে ৩০ রান খরচায় ৪টি উইকেট নেন মোহাম্মদ নবী। ২টি করে উইকেট শিকার রশিদ খান আর দৌলত জাদরানের।

পিপিবিডি/অ-ভি

apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত